কী কারণে ফ্লার্টিং? ১৩ তথ্য জেনে নিন

0
37

ঢাকা, ৩১ জুলাই, (ডেইলি টাইমস ২৪):

ধরুন কারো প্রতি আপনি দারুণভাবে অনুরক্ত, এমন একটা অনুভূতি প্রকাশ করলেন। বাস্তবে তার প্রতি আপনার ততটা আকর্ষণ নেই। এ বিষয়টিকে সামাজিক বিজ্ঞানের দৃষ্টিতেও বিশ্লেষণ করা হয়। এ লেখায় তুলে ধরা হলো ফ্লার্টিং বিষয়ে ১৩ তথ্য। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে বিজনেস ইনসাইডার।

১. ফ্লার্টিংয়ের কারণ ছয়টি ভিন্ন কারণে মানুষ ফ্লার্টিং করে বলে জানা যায়। এগুলো হলো- যৌনতার চেষ্টা, ফান বা বিষয়টিকে মজা হিসেবে খেলোয়াড়সুলভ দৃষ্টিতে দেখা, সম্পর্ক গড়ার চেষ্টা কিংবা বিষয়টি কেমন হয় তা বোঝার চেষ্টা, কারো সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা তৈরির চেষ্টা, নিজের আত্মবিশ্বাস বাড়ানো ও কারো কাছ থেকে কিছু আদায় করার চেষ্টা।

২. দম্পতিদের ফ্লার্টিং প্রয়োজন ফ্লার্টিং সাধারণত সিঙ্গেল মানুষদের মাঝেই দেখা যায়। যদিও এটি বিবাহিত কিংবা যুগলদের মাঝেও প্রয়োজন। এটি তাদের সম্পর্ককে ভালো করতে সহায়তা করবে। বিভিন্ন গবেষণাতেও এ বিষয়টি দেখা গেছে যে, ফ্লার্টিং তাদের সম্পর্ক উন্নত করতে সহায়তা করে।

৩. কিছু কথাবার্তা অন্যদের তুলনায় ভালো এক গবেষণায় ইউনিভার্সিটি অব আলাস্কার সাইকোলজিস্ট ক্রিস এল. ক্লেইনকে ৬০০ জনকে তিনটি উদাহরণের সহায়তায় জিজ্ঞাসা করেন যে, কোন পদ্ধতিটি তাদের জন্য সবচেয়ে ভালো। এক্ষেত্রে উত্তরদাতারা পুরুষেরা জানান তারা সরাসরি ফ্লার্টিংই পছন্দ করেন। অন্যদিকে নারীরা এটি উন্মুক্ত প্রশ্নের মাধ্যমেই পছন্দ করেন।

৪. অতীতের ছোট ছোট কথা মানুষ অতীতের স্মৃতিচারণ করতে পছন্দ করে। এই কারণে আপনি যদি অতীতের ছোট ছোট কথা বলেন বা জিজ্ঞাসা করেন তাহলে তা মানুষের সঙ্গে অন্তরঙ্গতা তৈরি করে।

৫. নারীর আগ্রহ নিয়ে পুরুষের ভুল ধারণা পুরুষেরা প্রায়ই নারীর আগ্রহ নিয়ে ভুল ধারণা পোষণ করে। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, পুরুষেরা প্রায়ই মনে করে নারীরা আগ্রহী, যদিও তারা আগ্রহী নয়। অন্যদিকে নারীরা প্রায়ই পুরুষের আগ্রহের বিষয়টিকে সঠিকভাবে ধরতে পারে না।

৬. সবচেয়ে আগ্রহী চরিত্র মানুষ বিপরীত মুখের দিকেই মূলত আগ্রহ বোধ করে। এক্ষেত্রে মুখের অভিব্যক্তি বেশ প্রভাব বিস্তার করে। সুখী নারীর মুখ পুরুষকে আকর্ষণ করলেও তা যদি গর্বিত নারীর মুখ হয় তাহলে তা আকর্ষণ করে না। তবে পুরুষের ক্ষেত্রে সুখী মুখ যতটা আকর্ষণ করে তার চেয়ে বেশি আকর্ষণ করে গর্বিত মুখ।

৭. হালকা স্পর্শ আগ্রহ বাড়ায় একে অপরের আকর্ষণ বাড়ানোর জন্য হালকা একটু স্পর্শ বেশ কাজ করে। ভালোবাসার মানুষের স্পর্শ কে না চায়। আর এ বিষয়টিই বাস্তবে দেখা যায়।

৮. ফ্লার্টিং আপনার আকর্ষণ বাড়াবে ফ্লার্টিং আপনার আকর্ষণ বাড়ায়। আর এ বিষয়টি উঠে এসেছে বিভিন্ন গবেষণায়। এতে দেখা গেছে আপনি যখন বিপরীত লিঙ্গের কোনো মানুষের কাছে জানান যে, তাকে আপনি পছন্দ করেন তখন তা সত্য কিংবা মিথ্যা যাই হোক না কেন, আপনার আকর্ষণ বৃদ্ধি করে।

৯. আবহাওয়ার প্রভাব রয়েছে গবেষণায় দেখা গেছে ভালোবাসার জন্য আবহাওয়ার প্রভাব রয়েছে। আর এ কারণে কোন সময়ে ফ্লার্টিং ভালো কাজ করবে, তা আবহাওয়া দেখে নির্ণয় করতে পারেন।

১০. ফ্লার্টিংয়ের পর অনুভূতি ফ্লার্টিংয়ের পর অনুভূতি কেমন হবে তা অনেকাংশে আপনি নারী নাকি পুরুষ এর ওপর অনেকাংশে নির্ভর করে। যেমন আপনি যদি নারী হন তাহলে এর যে প্রভাব পড়বে পুরুষ হলে তা ভিন্নভাবে পড়বে।

১১. আকর্ষণের সঙ্গে এর সম্পর্ক নেই ফ্লার্টিংয়ের বিষয়টি মূলত আপনি তাকে গ্রহণ করতে প্রস্তুত এমন একটি বার্তা দেয়। আর এ কারণে আপনি যে কক্ষের সবচেয়ে আকর্ষণীয় ব্যক্তি এমনটা প্রকাশ করে না ফ্লাটিংয়ের মাধ্যমে।

১২. চক্ষু সংযোগ কাজ করে ফ্লাটিংয়ের আকর্ষণ বাড়ানোর জন্য চক্ষু সংযোগ গুরুত্বপূর্ণ। আপনি যদি নিজের আকর্ষণ প্রকাশ করতে চান তাহলে চোখে চোখ রাখার বিকল্প নেই। তবে এজন্য সাপের মতো তাকিয়ে থাকতে হবে না, কয়েক সেকেন্ড তাকিয়ে চোখ নামিয়ে ফেলতে হবে।

১৩. কয়েক ধরনের ফ্লাটিং বেশ কয়েক ধরনের ফ্লার্টিং প্রচলিত রয়েছে। এর কয়েকটি বহুকাল আগে থেকেই দেখা যায়। এগুলো হলো-

-শারীরিক ফ্লাটিংয়ে কাঙ্ক্ষিত মানুষের কোথাও স্পর্শ করা হয়।

-ট্র্যাডিশনাল ফ্লাটিংয়ে পুরুষকে প্রথম পদক্ষেপ নিতে হয়।

-নিষ্ঠার সঙ্গে ফ্লার্ট করতে হলে অপর পক্ষের মনোযোগ আকর্ষণ করতে হয়।

-খেলোয়াড়সুলভ ফ্লার্টিংয়ে বিষয়টিকে অনেকটা খেলার মতোই দেখা হয়।