২০১৯ সালের মধ্যেই জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৮ শতাংশে উন্নীত সম্ভব’

ঢাকা, ০৪ জানুয়ারী, (ডেইলি টাইমস ২৪):

পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, উৎপাদনশীলতা ও দক্ষতা বাড়ানো গেলে ২০১৯ সালের মধ্যেই জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৮ শতাংশে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হবে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে পরিকল্পনা বিভাগের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত ‘রিবেজিং অ্যান্ড রিভিশন অব জিডিপি : বাংলাদেশ পারসপেকটিভ’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন।

মুস্তফা কামাল বলেন, বিনিয়োগ না বাড়িয়েও প্রবৃদ্ধি বাড়ানো যায়। এক্ষেত্রে উৎপাদনশীলতা বাড়াতে হবে। দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য শিক্ষাক্ষেত্রে ব্যাপক পরিবর্তন আনতে হবে। বিনিয়োগ না বাড়িয়েও উৎপাদনশীলতা বাড়ানোর কারণে প্রবৃদ্ধি বেড়েছে। তবে কাঙ্ক্ষিত প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে হলে শিক্ষাব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন আনতে হবে। রোবোটিকস ও প্রযুক্তি বিষয়ে পড়াশুনার ওপর গুরুত্ব দিয়ে ক্ষেত্র বাড়াতে হবে।

মন্ত্রী আরো বলেন, জিডিপির ভিত্তিবছর পরিবর্তন প্রয়োজন। কেননা, এখন প্রযুক্তি, ই-কর্মাস, মোবাইল ব্যাংকিংসহ বিভিন্ন নতুন বিষয় অর্থনীতিতে যোগ হয়েছে। জিডিপির হিসাবে এ বিষয়গুলো অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।

পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, পেঁয়াজ হতে সাবধান। চার-পাঁচ বছর আগে দিল্লিতে পেঁয়াজের কারণে সরকার পরিবর্তন হয়েছিল। পেঁয়াজ খুব তেজস্ক্রিয়। সম্প্রতি এক গবেষণায় বলা হয়েছে চাল এবং পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির কারণে সম্প্রতি ৫ লাখ মানুষ নতুন করে দারিদ্র্যসীমার নিচে চলে গেছে।

পরিকল্পনা বিভাগের সচিব মো. জিয়াউল ইসলামের সভাপতিত্বে সেমিনারে আরো উপস্থিত ছিলেন- সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব ড. শামসুল আলম, তত্বাবধায়ক সরকারের প্রাক্তন উপদেষ্টা ড. মির্জা মোহাম্মদ আজিজুল ইসলাম প্রমুখ।