সাক্ষাৎকার

১/১১ থে‌কে আমরা শিক্ষা নি‌তে পা‌রি‌নি

ঢাকা, ১১ জানুয়ারী , (ডেইলি টাইমস ২৪):

বিএন‌পির স্থায়ী ক‌মি‌টির সদস্য ও সা‌বেক মন্ত্রী গ‌য়েশ্বর চন্দ্র রায় মনে করেন, ১/১১-এর সেনা সম‌র্থিত তত্তাবধায়ক সরকা‌রের কাছ থে‌কে রাজনী‌তি‌বিদ‌দের, বি‌শেষ ক‌রে আওয়ামী লীগ ও বিএন‌পির ‘শিক্ষণীয় অ‌নেক কিছু’ ছিল, যা‌তে ক‌রে ভ‌বিষ্য‌তে আর ‘মাসুল’ দি‌তে না হয়। কিন্তু সে বিষয়টি উপল‌ব্ধি কর‌তে পার‌লেও তারা শিক্ষা নি‌তে ব্যর্থ হয়েছেন।

তার দাবি, ‘২০০৮ সাল থে‌কে ২০১৩ সাল পর্যন্ত সরকা‌রের যে রূপ‌ ছিল, বরং নির্বাচন ছাড়া চল‌তি চার বছ‌রে তথাক‌থিত সরকা‌রের রূপ আরও বে‌শি প্র‌তি‌হিংসা ও প্র‌তি‌শোধময়।’

একান্ত এক সাক্ষাৎকা‌রে এমনটাই জা‌নি‌য়ে‌ছেন বিএন‌পির এই জ্যেষ্ঠ নেতা। কথা বলেছেন চলমান রাজনীতিসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে-

কেমন আছেন ?

গ‌য়েশ্বর: মত প্রকা‌শের জন্য স্বাধীন দে‌শে যখন মানুষ পরাধীনতার শিক‌লে আবদ্ধ থা‌কে তখন কি চাই‌লেই  ভা‌লো থাকা যায়? তাই আ‌ছি কোনোরকম।

নতুন বছর ঘিরে একজন রাজনী‌তি‌বিদ হি‌সা‌বে আপনার প্রত্যাশা কী?

গ‌য়েশ্বর: প্রত্যাশা একটাই, আর সেটা হ‌চ্ছে আমা‌দের হারা‌নো গণতন্ত্র‌কে পুনরুদ্ধার করা। আমরা এমন একটা গণতা‌ন্ত্রিক রাষ্ট্রব্যবস্থা চাই যেখা‌নে দলমত নি‌র্বি‌শে‌ষে মানুষ তা‌দের মত প্রকাশ কর‌তে পারে‌। মানু‌ষের অ‌ধিকারগু‌লো প্র‌তিষ্ঠা করা ও মানু‌ষের দীর্ঘ‌দি‌নের আকাঙ্ক্ষা সব রাজ‌নৈ‌তিক দ‌লের অংশগ্রহ‌ণে এক‌টি অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচ‌নের ব্যবস্থা প্র‌তি‌ষ্ঠিত করা, যেখা‌নে তারা (মানুষ) নি‌জে‌দের ভোটা‌ধিকার প্র‌য়োগ কর‌তে পা‌রে।

১/১১-এর প্রেক্ষাপট ও গত এক দশকের রাজনীতির মধ্যে মৌলিক পার্থক্য খুঁজে পান কি?

গ‌য়েশ্বর: খুব একটা পার্থক্য নাই। আওয়ামী লীগ সরকার ১/১১ সরকা‌রের ষড়য‌ন্ত্রের ধারাবা‌হিক সরকার। এরা (সরকার) সেনা সম‌র্থিত ১/১১ সরকা‌রের প্রডাক্ট। এরা ফখরু‌দ্দিন ও মঈনু‌দ্দিনের সব অপকর্ম সমা‌প্তি ক‌রে চ‌লে‌ছে। কারণ আওয়ামী লীগ সরকার অঙ্গীকারাবদ্ধ যে তারা ক্ষমতায় এস‌ে ১/১১ সরকারের সব অ‌বৈধ কা‌জের বৈধতা দে‌বে, বৈধতা দি‌চ্ছেও। তাই আজ‌কে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাক‌বে কিংবা বিএন‌পি‌কে ক্ষমতায় যে‌তে হ‌বে, সেটা নি‌য়ে মাথাব্যথা নেই। মাথাব্যথা হ‌চ্ছে দেশটা কোন দি‌কে যা‌চ্ছে, পথচলার শেষ কোথায়?

আজ‌কের এ দি‌নে এ‌সে ১/১১ সেনা সম‌র্থিত অসাং‌বিধা‌নিক সরকা‌রকে কীভাবে মূল্যায়ন ক‌রেন?

গ‌য়েশ্বর: ১/১১-এর সেনা সম‌র্থিত সরকা‌রের কাছ থে‌কে ক্ষমতাসীন আওয়ামী এবং আমরা শিক্ষা নি‌তে পা‌রি‌নি। বরং ১/১১ অসাং‌বিধা‌নিক সরকারের আম‌লে দা‌য়েরকৃত মামলাগু‌লো‌কে হা‌তিয়ার ক‌রে এই সরকার ‌ভিন্নমত পোষণকা‌রী বিএন‌পিসহ বি‌রোধী রাজ‌নৈ‌তিক দলগু‌লোর নেতাকর্মী‌দের প্র‌তি‌দিন আদাল‌তের বা‌রান্দায় আনা‌-নেয়ার মাধ্য‌মে হয়রা‌নি কর‌ছে। অথচ সেদিন ১/১১ সরকার‌কে আওয়ামী লীগ ও বিএন‌পি ষড়যন্ত্রকা‌রী আখ্যা দি‌য়ে সহমত না হ‌য়েও যার যার অবস্থান থে‌কে বি‌রোধিতা ক‌রে‌ছি, প্র‌তিবাদ ক‌রে‌ছি। তখন আওয়ামী লী‌গের কোনো নেতা খা‌লেদা জিয়া‌কে হয়রানি করার বিষ‌য়ে কোনো বিবৃ‌তি দেয়‌নি। পক্ষান্ত‌রে শেখ হা‌সিনা যখন গ্রেফতার হ‌য়ে‌ছেন স‌ঙ্গে স‌ঙ্গে খা‌লেদা জিয়া বিবৃ‌তি দি‌য়ে প্র‌তিবাদ জা‌নি‌য়ে‌ছেন। শুধু তা-ই নয়, ১/১১-এর ষড়যন্ত্রকা‌রীদের ই‌তিহাস রেকর্ড সাক্ষ‌ী ‌দেয়, আওয়ামী লী‌গে এমন একজন নেতা নেই, যে কি না সে‌দিন শেখ হা‌সিনার মু‌ক্তি দা‌বি ক‌রে‌ছেন।

আপনার দ‌লের যে বা যারা ১/১১ সরকা‌রের কুশীলব‌দের সা‌থে হাত মি‌লি‌য়েছিল তা‌দেরকে কীভা‌বে দেখ‌ছেন?

গ‌য়েশ্বর: ওই সম‌য় আমা‌দের দ‌লের অ‌নেক নেতা পলাতক ছিল। গ্রেফতার হ‌য়ে‌ছিল। কেউ আবার বাঁচার জন্য বৈরী আচরণ ক‌রে‌ছিল। তা‌দেরকে আমরা সংস্কারপন্থী ব‌লে আখ্যা‌য়িত ক‌রি। তাছাড়া তখন দ‌লের ম‌ধ্যে সী‌মিতসংখ্যক যারা প্র‌তিবাদ ক‌রে‌ছি, আমরা কিন্তু খা‌লেদা জিয়ার মু‌ক্তি দা‌বির পাশাপা‌শি শেখ হা‌সিনার মু‌ক্তিও দা‌বি ক‌রে‌ছি। কারণ আমরা এটা‌কে রাজনী‌তি ও গণত‌ন্ত্রের ওপর রাজ‌নৈ‌তিক আঘাত ব‌লে বি‌বেচনা ক‌রে‌ছি। আর যারা নেতৃ‌ত্বের বিরু‌দ্ধে গি‌য়ে সংস্কারপন্থী হ‌য়ে ওঠে তা‌দের প‌রিণ‌তি তারাই ভোগ কর‌ছেন।

স্বাধীনতার পর থে‌কে এখন পর্যন্ত ক্ষমতাসীন দ‌লের সা‌থে বি‌রোধী রাজ‌নৈ‌তিক দলগু‌লোর ম‌ধ্যে কেন সুসম্পর্ক হ‌য়ে ওঠে‌নি ব‌লে আপ‌নি ম‌নে ক‌রেন?

গ‌য়েশ্বর: ক্ষমতায় থাক‌া হ‌চ্ছে কা‌লো টাকা উপার্জ‌নের পথ। তাই ক্ষমতাসীন দল ও বি‌রোধী রাজ‌নৈ‌তিক দ‌লের ম‌ধ্যে সুসম্পর্ক গ‌ড়ে না ওঠার পিছ‌নে ক্ষমতায় থাকাটাই বি‌বেচ্য বিষয়। কারণ রাজনী‌তি‌বিদরা ক্ষমতায় থাক‌লে এক আর না থাকলে আরেক।

চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি আপ‌নি কীভাবে দেখছেন?

গ‌য়েশ্বর: বর্তমা‌নে রাজনী‌তি নির্বা‌সিত। গণতন্ত্রহীনতায় কখনও রাজনী‌তি কিংবা রাজ‌নৈ‌তিক প‌রি‌বেশ নি‌য়ে আ‌লোচনা করা যায় না। গণতন্ত্র যেখা‌নে অনুপ‌স্থিত সেখা‌নে রাজ‌নৈ‌তিক দলগু‌লো সীমাবদ্ধতার খাঁচায় ব‌ন্দি পা‌খির ম‌তো ছটফট ক‌রে। এ‌তেই শেষ নয়, দে‌শে বর্তমা‌নে ঘ‌রোয়া প‌রি‌বে‌শে রাজ‌নৈ‌তিক কর্মকাণ্ড ও‌ নেতাকর্মী‌দের সা‌থে কথা বলারও সু‌যোগ নাই।

বি‌রোধী দ‌লের রাজনী‌তিবিদ হি‌সেবে ক্ষমতাসীন‌দের কাছ থেকে কেমন রাজ‌তৈ‌কি আচরণ প্রত্যা‌শা ক‌রেন?

গ‌য়েশ্বর: এখন যারা ক্ষমতায় আ‌ছে তা‌দের ভাবা উ‌চিত এক‌দিন না এক‌দিন ক্ষমতা‌ ছে‌ড়ে তা‌দেরও বি‌রোধী রাজ‌নৈ‌তিক দ‌লে যে‌তে হ‌বে। তাই বি‌রোধী দ‌লের সা‌থে এমন আচরণ করাটা সমু‌চিত নয় যে ভ‌বিষ্য‌তে বি‌রোধী দ‌লে গে‌লে আরও প্র‌তি‌হিংসার শিকার হ‌তে হয়। সে কার‌ণেই বলব, ক্ষমতায় থাক‌তে ক্ষমতা ব্যবহা‌রে সতর্ক থাকা ভা‌লো। অর্থাৎ ক্ষমতার বাই‌রের রাজ‌নৈ‌তিক দলগু‌লো য‌দি তা‌দের কর্মকাণ্ডে সফলভা‌বে বিদ্যমান থা‌কে, তাহ‌লে সব রাজ‌নৈ‌তিক দ‌লের জন্যই ক্ষমতায় থাকা আর না থাকা বি‌বেচ্য বিষয় হ‌য়ে দাঁড়া‌বে না। এমন‌কি ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় আমা‌কে ভাব‌তে হ‌বে আ‌মি যে আজ‌কে ক্ষমতায় আ‌ছি, কাল‌কে ক্ষমতায় নাও থাক‌তে পা‌রি।

রাজ‌নৈ‌তিক দলগু‌লো শুধুই ক্ষমতায় থাক‌তে ও যে‌তে চায় কেন ব‌লে আপ‌নি ম‌নে ক‌রেন?

গ‌য়েশ্বর: যারা দীর্ঘ‌দিন বি‌রোধী দ‌লে থা‌কে সে‌ক্ষে‌ত্রে তা‌দের একটা তীব্র যন্ত্রণা থা‌কে। আর সে যন্ত্রণা থে‌কেই কিন্তু ক্ষমতায় যাওয়া ও ক্ষমতায় থাকার ইচ্ছাটাও তীব্র হয়। ত‌বে নি‌র্বি‌ঘ্নে য‌দি সবাই রাজনী‌তি করার সু‌যোগ পায় তাহ‌লে‌ যেন‌তেনভা‌বে ক্ষমতায় থাকা ও ক্ষমতায় যাওয়ার কোনো মন-মান‌সিকতা থা‌কে না।

ক্ষমতাসীন সরকা‌রের নানানমুখী উন্নয়ন কার্যক্রম‌কে কীভা‌বে দেখ‌ছেন?

গ‌য়েশ্বর: গণত‌ন্ত্রের বিকল্প উন্নয়ন নয়। উন্নয়ন হ‌চ্ছে এক‌টি চল‌তি সরকা‌রের চলমান প্র‌ক্রিয়ার অংশ। আর সেটা যে সরকারই ক্ষমতায় আস‌বে তাকেই তা ( উন্নয়ন) কর‌তে হ‌বে। তার মা‌নে এই  না, সবাই‌কে সন্তুষ্ট কর‌তে গি‌য়ে বেশামালভা‌বে সর্ব‌ক্ষে‌ত্রে বৈষম্য সৃ‌ষ্টি করা। কারণ আজ‌কে আওয়ামী লীগ ও বিএন‌পি  ক্ষমতায় আ‌ছে বা নাই, সেটা বড় বিষয় নয়। বিষয় হ‌য়ে দা‌ঁড়ি‌য়ে‌ছে বন্ধুহীনভা‌বে এ দেশ কোন দি‌কে যা‌চ্ছে এবং এভা‌বে রা‌ষ্ট্রের অ‌স্তিত্ব কত‌ দিন টিকে থাক‌বে।

একজন রাজনী‌তি‌বিদ হি‌সে‌বে প্র‌তি‌বেশী রাষ্ট্রের কাছ থে‌কে কী ধরনের সহযো‌গিতা প্রত্যাশা ক‌রেন?

গ‌য়েশ্বর: আমরা প্র‌তি‌বেশী সব গণতা‌ন্ত্রিক রা‌ষ্ট্রের বন্ধুত্ব চাই। ত‌বে বন্ধুত্ব চাই মা‌নে এই নয় আমরা আমা‌দের অভ্যন্তরীণ বিষ‌য়ে কা‌রো হস্তক্ষেপ চাই‌ব। তাই প্র‌তি‌বেশী রাষ্ট্র ভারত‌কেও ভাব‌তে হ‌বে তারা বাংলা‌দে‌শের সা‌থে বন্ধুত্ব চায় না‌কি এক‌টি বি‌শেষ দল ও ব্য‌ক্তির সা‌থে বন্ধুত্ব চায়। কেননা আমার বিশ্বাস ভারত য‌দি এক‌টি দল ও ব্য‌ক্তির সা‌থে বন্ধুত্ব চায় তাহ‌লে দেখা যাবে এক‌দিন প্র‌তি‌টি ঘ‌রে ঘ‌রে ভারতবি‌রোধী মানু‌ষেরা বসবাস শুরু কর‌বে।

একাদশ নির্বাচন‌কে ঘি‌রে আপনার মূল্যায়ন কী?

গ‌য়েশ্বর: ২০১৪ সা‌লের ৫ জানুয়া‌রির ম‌তো যা‌তে ক‌রে কল‌ঙ্কিত ঘটনা না ঘ‌টে সেজন্য বর্তমান সরকা‌রের উ‌চিত ছিল সব রাজ‌নৈ‌তিক দলগু‌লোর ম‌ধ্যে আস্থা, বিশ্বাস ও গ্রহণযোগ্যতা সৃ‌ষ্টি করা। কিন্তু আমরা দেখ‌তে পা‌চ্ছি এক‌টি অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণ‌যোগ্য নির্বাচ‌নের প‌থে না গি‌য়ে তারা (ক্ষমতাসীনরা) আরও জঘন্যতম উপা‌য়ে হ‌লেও ক্ষমতায় থাক‌তে ফের একতরফাভা‌বে প্রহস‌নের নির্বাচ‌নের দি‌কেই হাঁট‌ছে। যা হ‌বে গণত‌ন্ত্রের প‌রিপন্থী। কারণ শেখ হা‌সিনার অধী‌নে নির্বাচন আর ট্রা‌কের নি‌চে মাথা দেয়ার মা‌ঝে কোনো পার্থক্য আ‌ছে ব‌লে ম‌নে হয় না।

ষষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিলের প্রায় ২ বছর পূর্ণ হওয়ার পথে, পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনে কোনো অগ্রগতি আছে কি না? এবং দল ঘো‌ষিত কর্মসূ‌চি‌তে আপনা‌দের উপ‌স্থি‌তি আশানুরূপ হ‌চ্ছে না কেন?

গ‌য়েশ্বর: আপনার উপ‌স্থি‌তি এক জায়গায় আর রাজনী‌তি‌বিদ ও নেতাকর্মী‌দের উপ‌স্থি‌তি নানান জায়গায়। নি‌শ্চিয়ই অবগত আ‌ছেন যে রাজ‌নৈ‌তিক সংগঠ‌নের ম‌ধ্যে কিছু অনুসারী,‌ কিছু স‌ক্রিয়, কিছু অ‌তি স‌ক্রিয় নেতাকর্মী থা‌কে। সে‌ক্ষে‌ত্রে আনুপা‌তিকহা‌রে উপ‌স্থি‌তির সংখ্যাটা হয়‌তো কিছু কম। আরও উপ‌স্থিতি থাক‌লে ভা‌লো হ‌তো। এটাও স‌ত্যি, নানান চা‌পে উপ‌স্থি‌তির স‌ঠিক গণনা করা যা‌চ্ছে না। ত‌বে আমার বিশ্বাস উপ‌স্থি‌তি না হ‌লেও তারা জনগণ ও আদর্শ থে‌কে বিচ্যুত নয়।

বিএন‌পি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সাজা হলে আইনি প্রক্রিয়ায় মোকাবেলা করবেন নাকি আন্দোলনে যাওয়ার চিন্তা-ভাবনা করছেন?

গ‌য়েশ্বর: আমরা এখ‌নও আদাল‌তের ওপর শ্রদ্ধাশীল। ত‌বে আদাল‌তের রায় য‌দি সরকা‌রের ইচ্ছার প্র‌তিফলন ঘ‌টে সে‌ক্ষে‌ত্রে স্বাভা‌বিক কারণে জনগণ প্র‌তি‌রোধ গ‌ড়ে তুল‌বে। তাছাড়া জনগ‌ণের নেত্রীর পা‌শে শুধু দল কেন, জনগণ পা‌শে দাঁড়া‌বে।

সময় দেয়ার জন্য আপনা‌কে অ‌শেষ ধন্যবাদ। ভা‌লো থাক‌বেন, সুস্থ থাক‌বেন।

গ‌য়েশ্বর: আপনা‌কেও ধন্যবাদ।

Related Articles

Close