আমার মনে হয় অদ্ভুত ড্রেস না পরাই ভালো

ঢাকা, ১২ জানুয়ারী , (ডেইলি টাইমস ২৪):

যদি বলি বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেতা কে? নিঃসন্দেহে চোখের সামনে ভেসে উঠবে এ প্রজন্মের ফ্যাশনেবল মডেল এবং অভিনেতা ইমনের নাম। স্টাইল আর লুকের কারণেই এমন মানসপট। কোনো কিছুতেই যেন হার মানানো যায় না তাকে। তার পোশাক নির্বাচন আর আউট লুকে সবসময় কেমন যেন একটা চমৎকার ফ্যাশন ফিউশান লক্ষ করা যায়। তিনি নিজের ব্যক্তিগত ফ্যাশন, স্টাইল, পছন্দের আইকন, ভালোলাগার ব্র্যান্ড এবং তার গেটআপ সম্পর্কে কথা বলেন।

পোশাকের ক্ষেত্রে আপানি কোন জিনিসটি বেশি মেনে চলেন?

মামনুন হাসান ইমন : আমার মনে হয় অদ্ভুত ড্রেস না পরাই ভালো, ক্যামেরায় ভালোলাগার জন্য অনেক সময়ই আমরা অতিরিক্ত রঙিন কাপড় পরি। সেই পোশাক কিন্তু আমরা আমাদের নিজের কোনো প্রোগ্রামে কিংবা বাইরে বের হওয়ার সময় পরি না। কারণ সরাসরি ওই পোশাকে দেখলে ভীষণ অদ্ভুত দেখায়। তাই আমার মনে হয়, যা পরলে আমাকে দেখতে ভালো লাগবে এবং যা পরলে আমি স্বস্তি পাব তা-ই আসলে পরা উচিত।

আপনি কী ধরনের পোশাক পরতে পছন্দ করেন?

মামনুন হাসান ইমন : সবাই বলে আমাকে ফরমাল লুকে ভালো লাগে। কিন্তু আমি সবসময় ক্যাজুয়াল পোশাক পরতে পছন্দ করি। উজ্জ্বল রাং আমার পছন্দ, পোশাকের ক্ষেত্রেও তাই।

ফ্যাশনের দিক থেকে আপনার পছন্দের অইকন কে? 

মামনুন হাসান ইমন : হলিউড অভিনেতা ব্র্যাড পিটের স্টাইল আমার ভালো লাগে। বলিউডের রণবীর কাপুর ও রণবীর সিংও আমার পছন্দ। তবে আমি যে হুবহু তাদেরকেই অনুকরণ করি ব্যাপারটি তা নয়। আয়নায় তাকালে আমার সঙ্গে যা মানায়, তা-ই মেনে চলার চেষ্টা করি।

পোশাকের ক্ষেত্রে আপনার পছন্দের ব্র্যান্ড কোনটি?  

মামনুন হাসান ইমন : পোশাকের ক্ষেত্রে গুচি এবং আরমানি ব্র্যান্ডের পোশাক ভালো লাগে। আমাদের দেশেও এখন বেশ ভালো ভালো ব্র্যান্ড আছে, সেগুলোও আমার পছন্দের তালিকায় আছে। কিন্তু শুটিংয়ের জন্যে যেহেতু বিভিন্ন রকমের পোশাক পরতে হয়, তাই সব পোশাক আর ব্র্যান্ড দেখে কেনা সম্ভব হয় না। তবে নিজের জন্য কেনা বিশেষ ড্রেসগুলো একটু ভালো ব্র্যান্ড থেকেই কিনি।

আপনার বেশিরভাগ শপিং কোথা থেকে করা হয়? 

মামনুন হাসান ইমন : চেষ্টা করি বাংলাদেশের থেকে বাংলাদেশি ব্র্যান্ডের পোশাক-আশাক কিনতে। বসুন্ধরা, যমুনা ফিউচার পার্ক থেকেও কিনি আবার অন্যান্য শপিংমল থেকেও কেনা হয়। এক্সটেসি ও ওয়েস্টেক্সের শোরুম থেকেও কেনাকাটা করি। শুটিংয়ের কাজে দেশের বাইরে গেলে ব্যাংকক, ইন্ডিয়া কিংবা ইউকে গেলে ওখান থেকেও টুকটাক শপিং করি।

টিভি স্ক্রিনে আপনাকে বেশ ফ্যাশনেবল ঘড়ি পরতে দেখা যায়। কোন ঘড়ির ব্র্যান্ড আপনার পছন্দ?

মামনুন হাসান ইমন : আমি চেইনের ঘড়ি বেশি পরি। মাইকেল কোর্স-এর চেইন ঘড়ি আমার ভালো লাগে। ডি শপের ঘড়িও আমার পছন্দ।

দেশীয় পোশাকের ক্ষেত্রে কোথায় শপিং করেন?

মামনুন হাসান ইমন : উৎসব ছাড়া দেশীয় ঐতিহ্যের পোশাক খুব একটা পরা হয় না আমার। যেমন ধরুন, ঈদ, পহেলা বৈশাখ, ফাল্গুনের সময় আমার পাঞ্জাবিগুলো ইয়েলো কিংবা এক্সটেসি থেকে কিনি। পছন্দ হলে অন্যান্য ব্র্যান্ড থেকেও কেনা হয়। দেশীয় পোশাকের চেয়ে ওয়েস্টার্ন বেশি পরা হয়। আর এই পুরো শীত মৌসুমটাও কাটছে ওয়েসটার্ন গেটাপেই।

ইদানীং কোন পারফিউম ব্যবহার করছেন? 

মামনুন হাসান ইমন : ডিউ-এর পারফিউমই ইদানীং ব্যবহার করছি।

কোন ব্র্যান্ডের বডি স্প্রে-তে আপনি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন?

মামনুন হাসান ইমন : নিয়মিত ব্যবহারের জন্য আমি বেছে নিয়েছি আরমানি ও অ্যাডিডাস ব্র্যান্ডের বডি স্প্রে।

বছরজুড়ে কেমন জুতা পরেন?

মামনুন হাসান ইমন : শু পরা হয় বেশি, কেডসও পরি। সারা বছরের ব্যাপার যেহেতু তাই স্যান্ডেলও পরা হয় আমার। জুতার ক্ষেত্রে সাদা ও কালো রঙের জুতাই বেশি পরি। এরপর ড্রেসের সঙ্গে যেটা মানায় সেটাই পরি। নাইকির জুতাই আমার বেশি পছন্দ। এর পরেই অ্যাডিডাসের জুতা।

পোশাকের আনুষঙ্গিক হিসেবে কী কী ভালো লাগে আপনার?

মামনুন হাসান ইমন : ঘড়ি তো ভালো লাগেই। সানগ্লাসও ভালো লাগে।

আপনি কী ধরনের হেয়ার স্টাইল পছন্দ করেন?

মামনুন হাসান ইমন : শীতে আমি চুল খানিকটা বড় রাখি। এখন আমার চুল বড় করেই কাটা আছে। আবার গরম কালে একটু ছোট রাখি চুল।

আপনি সাধারণত কী রকমের শার্ট পরেন?

মামনুন হাসান ইমন : একরঙা শার্ট আর চেক শার্টই বেশি পরি।