আন্তর্জাতিক

সেনাবাহিনী হত্যার দায় নিচ্ছে, এটা ভালো: সু চি

ঢাকা, ১৩ জানুয়ারী , (ডেইলি টাইমস ২৪):

মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চি বলেছেন, রোহিঙ্গা নির্যাতন ও হত্যার ঘটনায় তাঁর দেশের সেনাবাহিনী দায় নিচ্ছে। এটা একটা ইতিবাচক পদক্ষেপ। গতকাল শুক্রবার মিয়ানমার সফররত জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী তারো কোনোর সঙ্গে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে সু চি এ কথা বলেন।

মিয়ানমারের সেনাবাহিনী গত বুধবার এক বিবৃতিতে জানায়, গত সেপ্টেম্বরে রাখাইন রাজ্যের দক্ষিণাঞ্চলে ১০ রোহিঙ্গা মুসলিমকে হত্যার ঘটনায় জড়িত ছিলেন সেনাবাহিনীর সদস্য এবং স্থানীয় বৌদ্ধ গ্রামবাসীরা। তাঁদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনে জিজ্ঞাসা করা হলে সু চি বলেন, ‘সেনাবাহিনী বিষয়টি তদন্ত করেছে এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে। এটা আমাদের দেশে একটি নতুন পদক্ষেপ। আমি বিষয়টিকে এভাবেই দেখি কারণ, দেশে আইনের শাসনের জন্য কাজের দায় নেওয়া প্রয়োজন। দায় নেওয়ার ক্ষেত্রে এটা প্রথম পদক্ষেপ এবং ইতিবাচক।’

তবে রোহিঙ্গা পরিস্থিতি নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাপান। গতকাল নেপিডোয় মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর সু চির সঙ্গে বৈঠকের সময় এই উদ্বেগের কথা জানান জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী তারো কোনো। মিয়ানমারের রাজধানী নেপিডোয় গতকাল বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। এদিকে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের জন্য মিয়ানমার সরকারকে ৩০ লাখ মার্কিন ডলার সহায়তা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে জাপান সরকার।

সু চির সঙ্গে বৈঠকের সময় রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের পর পুনর্বাসনেরও আহ্বান জানান জাপানের মন্ত্রী। একই সঙ্গে জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনান কমিশনের সুপারিশগুলো বাস্তবায়নেরও তাগিদ দেন তারো কোনো।

আরো সংবাদ...