কুল চাষে সফল জহিরুল, আগ্রহ বাড়িয়েছে অন্যদের

ঢাকা ,০২ ফেব্রুয়ারী , (ডেইলি টাইমস ২৪):

ঝালকাঠিতে সম্প্রসারিত হচ্ছে কুল চাষ। অল্পপুঁজি ও ঝুঁকি কম থাকায় কুল চাষে দিন দিন আগ্রহ প্রকাশ করেছে অনেকে। বাড়ির আঙ্গিনা ও জমির আইলে পরীক্ষামূলকভাবে কুল চাষে সফলতা পাওয়ার পরে অনেকেই বাণিজ্যিক ভিত্তিতে এর চাষাবাদ শুরু করেছে। পতিত জমিতে কুল চাষ করে সফল হয়েছেনে ঝালকাঠি সদর উপজেলার কেওড়া ইউনিয়নের রনমতি গ্রামের শিক্ষিত যুবক মো. জহিরুল ইসলাম।ঝালকাঠি জেলা প্রাণিসম্পদ অফিসে ভেটেনারি কম্পাউন্ডার পদে কর্মরত রয়েছেন তিনি। চাকরির পাশাপাশি বাড়তি আয়ের উদ্দেশ্যে কুলের বাগান গড়ে তুলেছেন তিনি। নিজের ৬৩ শতাংশ পতিত জমির জঙ্গল পরিষ্কার করে কুল চাষের উপযোগী করে গড়ে তোলেন। সাতক্ষীরা জেলা থেকে বাউ কুল, আপেল কুল ও নারিকেল কুলের চারা এনে বাগানে রোপণ করেন তিনি। মাত্র এক বছরেই এই বাগানের কুল গাছে বাম্পার ফলন ধরেছে। কুলের ভারে নুয়ে পড়ছে গাছ। কুলের সাইজ বড় ও সুস্বাদু হওয়ায় এর ব্যপক চাহিদা রয়েছে। জেলার বিভিন্ন স্থান থেকে পাইকাররা এসে এখান থেকে কুল কিনে নিচ্ছেন। এখানের নারিকেল ও আপেল কুল ৯০ টাকা এবং বাউ কুল ৬০ টাকা কেজি দরে পাইকারি বিক্রি হচ্ছে। নারিকেল ও আপেল কুল ১২০ টাকা এবং বাউ কুল ৮০ টাকা কেজি দরে খুচরা বিক্রি হচ্ছে।

 

এই বাগানে জমি তৈরিসহ অন্যান্য খরচ বাবদ ১৩৪টি কুল গাছ লাগাতে প্রায় ১ লাখ ২০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। বাগানে প্রতিদিন চার জন শ্রমিক কাজ করেন।

বাগানের শ্রমিক মো. সাইদুল ইসলাম বলেন, ‘বাগান তৈরি থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত আমি এখানে কাজ করছি। কুল পাড়া থেকে শুরু করে অন্যান্য কাজে ব্যস্ত থাকতে হয়।’

এ বছর ফলন ভালো হওয়ায় খচর ওঠে কিছু লাভ থাকবে জানিয়েছেন কুল চাষি মো. জহিরুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘কুল চাষ অত্যন্ত লাভজনক। কম খরচে এখানে অধিক লাভ করা যায়। তা ছাড়া কুল চাষে তেমন কোনো ঝুঁকি নেই। স্থানীয়দের বিষমুক্ত ফল খাওনোর লক্ষ্য নিয়ে আমি কুলের চাষ শুরু করেছি। কৃষি বিভাগ থেকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা পেলে আগামীতে আরও বেশি জমিতে কুলের চাষ করব।

 

স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. কামাল মৃধা জানিয়েছেন, কুল চাষে মো. জহিরুল ইসলামের সফলতা দেখে এখানকার অন্য কৃষকেরাও কুল চাষে আগ্রহ প্রকাশ করছে।

ঝালকাঠি জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক শেখ আবু বক্কর সিদ্দিকি বলেন, এখানকার মাটি কুল চাষের উপযোগী। কেউ যদি কুল চাষে এগিয়ে আসে তা হলে কৃষি বিভাগ থেকে তাকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করা হবে।