আমিরাতে সিমেন্ট মেশানোর মেশিনের ভেতর থেকে ২২ বিদেশি আটক

ঢাকা , ১৩ ফেব্রুয়ারী , (ডেইলি টাইমস ২৪):

সিমেন্ট মেশানোর ট্রাকে করে সংযুক্ত আরব আমিরাতে অবৈধভাবে প্রবেশের সময় অন্তত ২২ বিদেশিকে আটক করা হয়েছে। আমিরাতের শারজাহ সীমান্ত থেকে আটককৃতদের মধ্যে ২১ জন এশিয়ার নাগরিক; অন্যজন আফ্রিকার।

আমিরাতের ফেডারেল কাস্টমস অথরিটি (এফসিএ) এবং সমুদ্র বন্দর ও কাস্টমস বিভাগ যৌথভাবে অভিযান চালিয়ে ওই ২২ বিদেশিকে আটক করেছে। এফসিএ বলছে, শারজাহ শহরের খাতম মিলাহা সীমান্ত তল্লাশি চৌকি পাড়ি দেয়ার সময় ট্রাকের ভেতর থেকে তাদের আটক করা হয়।

ফেডারেল কাস্টমস অথরিটির চেয়ারম্যান কমিশনার আলী বিন সুবাইহ আল কাবি বলেছেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তারা পাচারের ব্যাপারে কাস্টমসের স্থানীয় সব বিভাগকে সতর্ক করে দিয়েছিলেন।

মঙ্গলবার খাতম আল মিলাহা তল্লাশি চৌকির পরিচালক মোহাম্মদ আল রাইসি বলেন, দেশের ভেতরে অজ্ঞাতসংখ্যক অবৈধ অনুপ্রবেশকারী ঢুকে পড়ার চেষ্টা চালাতে পারে বলে আমাদের কাছে তথ্য ছিল। ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে ওই ২২ অনুপ্রবেশকারীর সেই চেষ্টা নস্যাৎ করে দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, চৌকিতে এক্স-রে স্ক্যানারের মাধ্যমে সিমেন্ট মেশানোর ওই মেশিন তল্লাশি করা হয়। এতে স্পষ্টভাবে দেখা যায়, মিশ্রিত সিমেন্টের ভেতরে ২২ ব্যক্তি রয়েছেন। এদের মধ্যে ২১ জন এশিয়ার এবং অন্যজন আফ্রিকার নাগরিক।

‘কাস্টমসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ব্যবস্থা নেয়ার আগে সহকর্মীদের শান্ত থাকার নির্দেশ দেন। এর কারণ হচ্ছে, মিশ্রিত সিমেন্টের ভেতর লুকিয়ে থাকা অনুপ্রবেশকারীদের সংখ্যা অনেক বেশি ছিল। তারা সিরিয়াল ক্রিমিনাল হতে পারে অথবা তাদের কাছে অস্ত্রও থাকতে পারে।’

মোহাম্মদ আল রাইসি বলেন, প্রথমে পুরো এলাকা সিলগালা করে দেয়া হয়। এছাড়া সীমান্তের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য কালবা পুলিশ অতিরিক্ত সদস্য মোতায়েন করে।

পরে ট্রাকের চালককে ভেতরে ঢুকে অনুপ্রবেশকারীদের নামিয়ে দেয়ার আহ্বান জানানো হয়। একে একে ২২ অনুপ্রবেশকারী ট্রাক থেকে বেরিয়ে এলে তাদেরকে আটক করে পুলিশি জিম্মায় নেয়া হয়।