অর্থনীতিকে বাঁচাতে হলে নদীকে বাঁচাতে হবে

0
6

ঢাকা , ১৩ মার্চ , (ডেইলি টাইমস ২৪):

নদী বাঁচলে এদেশের অর্থনীতি বাঁচবে। বাংলাদেশের সভ্যতা নদীবাহিত। নদীকে কেন্দ্র করে এদেশের শিল্প, অর্থনীতি, ব্যবসা-বাণিজ্য, কৃষি, সভ্যতা, সংস্কৃতি গড়ে উঠেছে। অথচ নানা কারণে এদেশের নদীগুলো মৃতপ্রায়।

বাংলাদেশের অর্থনীতি যেহেতু নদীকেন্দ্রীক। তাই নদী মরে গেলে দেশের অর্থনীতিও মরে যাবে। এ জন্য দেশের অর্থনীতিকে বাঁচাতে হলে নদীকে বাঁচাতে হবে।

সোমবার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) পরিসংখ্যান ও অর্থনীতি বিভাগ আয়োজিত ‘নদী অর্থনীতি উদ্বুদ্ধকরণে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূমিকা’ শীর্ষক সেমিনারে মুখ্য বক্তা হিসেবে রিভারাইন পিপলের মহাসচিব শেখ রোকন এসব কথা বলেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন- অর্থনীতিবিদ ও পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন-এর (পিকেএসএফ) চেয়ারম্যান কাজী খলিকুজ্জামান আহমদ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, নদী রক্ষায় শুধু প্রকল্প গ্রহণ করলেই হবে না, প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে হবে। যে মানুষদের উদ্দেশ্য করে প্রকল্প গ্রহণ করা হয় সেসব মানুষদের স্বার্থ আসলেই সংরক্ষণ হচ্ছে কি-না তা যাচাই করতে হবে।

তিনি বলেন, নদী রক্ষায় নীতি ও আইন রয়েছে। এসব নীতি ও আইন বাস্তবায়ন করতে হবে। পাশাপাশি পানি ব্যবস্থাপনা সঠিকভাবে করতে হবে। নদীকে স্বাভাবিকভাবে চলতে দিতে হবে। নদী দখল ও নদীতে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা যাবে না।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক হারুন উর রশিদ আসকারীর সভাপতিত্বে সেমিনারটি সঞ্চালনা করেন বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক রওশন আরা সেতু।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন- পরিসংখ্যান বিভাগের সভাপতি ও মডারেটর সহযোগী অধ্যাপক আলতাফ হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক সেলিম তোহা।

সেমিনারে আরও বক্তব্য রাখেন- সাবেক উপ-উপাচার্য পরিসংখ্যান বিভাগের অধ্যাপক কামাল উদ্দিন ও অর্থনীতি বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক আব্দুল মুঈদ প্রমুখ।