বিনোদন

বিষণ্নতায় দিন কাটাতাম: বাঁধন

ঢাকা , ১৩ মার্চ , (ডেইলি টাইমস ২৪):

হঠাৎ করেই বদল দেখা যাচ্ছে ছোট পর্দার অভিনেত্রী ও সাবেক লাক্স তারকা আজমেরী হক বাঁধনের মধ্যে। নিজের সাজপোশাক ও ব্যক্তিত্বের মধ্যে সেই পরিবর্তন লক্ষণীয়। এরপর থেকে ছোট পর্দায় তাঁর কাজের ব্যস্ততাও বেড়েছে। আজ থেকে এটিএন বাংলায় বাঁধন অভিনীত নাটক মেঘে ঢাকা আকাশ-এর প্রচার শুরু হচ্ছে। এখন থেকে সপ্তাহের মঙ্গল, বুধ ও বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে আটটায় নাটকটি প্রচারিত হবে। এটি লিখেছেন রুদ্র মাহফুজ, পরিচালনা করেছেন সাখাওয়াত মানিক। ব্যক্তিজীবন ও কাজের ব্যস্ততা নিয়ে বাঁধন শুটিং সেট থেকে কথা বললেন প্রথম আলোর সঙ্গে।

কোন নাটকের শুটিং করছেন?
একটি এক ঘণ্টার নাটকের। নাম উপেক্ষায় অবগাহন। দুই দিন ধরে উত্তরাতে শুটিং হচ্ছে। এতে আমার সহশিল্পী নাঈম।

‘মেঘে ঢাকা আকাশ’ নাটকে আপনার চরিত্রটি কেমন?
বড়লোকের মেয়ে, অহংকারী। শখে বিউটি পার্লারের ব্যবসা করেন। তবে তাঁর বদঅভ্যাস-সবকিছুতেই সে সমস্যা তৈরি করে। আমার ব্যক্তিজীবনের সম্পূর্ণ বিপরীত একটি চরিত্র এটি। বেশ মজাই লাগছে।

কিন্তু শুনেছি, শুটিংয়ের প্রায় তিন বছর পর নাটকটি প্রচার হচ্ছে। আগের শুটিংয়ের সঙ্গে তো সামনের শুটিংয়ে আপনার নতুন লুক মিলবে না। তাহলে?
এটা একটু ভাবনার বিষয়। কারণ, প্রায় তিন বছর আগে যখন শুটিং করেছি তখন কিছুটা মুটিয়ে গিয়েছিলাম। এখন তো সেই শারীরিক গড়ন নেই। তাই আগের চেহারার সঙ্গে এখন মেলানো যাবে না। তবে নাটকটির লেখক ও পরিচালক বিষয়টি নিয়ে নিশ্চয়ই ভাববেন।

নতুন আর কী কী কাজ করছেন?
মাসুদ সেজানের খেলোয়াড় ও জুয়েল মাহমুদের ওয়ানওয়ে নামে দুটি নতুন ধারাবাহিকে কাজ করছি। এ ছাড়া শিগগিরই ঈদের নাটকের কাজ শুরু করব।

পুরোনো ইমেজ থেকে বেরিয়ে হঠাৎ নতুন রূপ আর সাজে সামনে এলেন আপনি। সেই নতুন রূপের ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও বেশ আলোচিত হচ্ছে। কেন এই বদল?
যখন লাক্স থেকে বের হই তখন আমি বেশ সুন্দরী ছিলাম। সেই সময় নায়করাজ রাজ্জাক, সোহানুর রহমান সোহানের ছবিতে কাজের প্রস্তাব পেয়েছি। করিনি। তখন মেডিকেলে লেখাপড়ায় সময় দিয়েছি। পরে জীবন আমাকে ভয়ংকর এক পরিণতির দিকে নিয়ে গেছে। বিয়ের পর থেকেই আমার জীবনটা বদলে যেতে থাকে। বিষণ্নতায় দিন কাটাতাম আমি। একটা সময় সংসার ভেঙে গেল। ডাক্তারের পরামর্শে নিজেকে ভালোবাসতে ঘুরে দাঁড়ানোর যুদ্ধে যোগ দিলাম। এখনো জীবনের বহুপথ বাকি। সেই পথে নিজেকে সুন্দর করে গড়ে তুলতে হবে। সে কারণে নিজেকে নতুন করে সাজাচ্ছি।

অনেকেই ভাবছেন নতুন এই রূপ সিনেমা করার জন্য। সত্যি কী?
সিনেমা তো করতেই পারি। যদি সেই জায়গাটা নিজের মনের মতো হয় তাহলে ‘না’ করার কিছু নেই।

আবার সংসার গড়বেন কবে?
বর্তমানে সবাই সিনেমা ও বিয়ে নিয়েই আমাকে বেশি প্রশ্ন করে। কিন্তু আমার জীবনের সবকিছু এখন আমার ছয় বছরের মেয়েকে ঘিরে। আমাদের দুজনের পথচলায় কেউ যদি শক্তভাবে পাশে হাঁটতে চায়, তাহলে বিয়ে হতেই পারে। তবে দ্বিতীয়বার অনেক চিন্তাভাবনা করেই বিয়েটি করতে হবে আমাকে।

 

আরো সংবাদ...