রাজনীতি

খালেদা জিয়ার ‘অসুস্থতা’ নিয়ে কী ভাবছে আওয়ামী লীগ

ঢাকা , মার্চ , (ডেইলি টাইমস ২৪):

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ‘অসুস্থতার’ প্রসঙ্গটি এখন দেশব্যাপী আলোচনার বিষয়ে পরিণত হয়েছে। এ নিয়ে বিএনপির নেতাদের মধ্যে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে। তার সুচিকিৎসার দাবি করছেন তারা।

আবার একই সঙ্গে খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠিয়ে সরকার ভিন্ন ফায়দা নিতে চায় কি না—এমন সন্দেহও রয়েছে বিএনপির নেতাদের মধ্যে। তবে, আওয়ামী লীগ নেতারা এটিকে বিএনপির রাজনৈতিক কৌশল বলে অভিহিত করেছেন।

আওয়ামী লীগের নেতাদের ভাষ্য, শুধু খালেদা জিয়া নন, যেকোনো আসামির জন্যই কারা কর্তৃপক্ষ তথা সরকার সদা সতর্ক থাকে। আর একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে সরকারের কী ভূমিকা থাকা উচিত—এ বিষয়ে তাদের ভালোভাবেই জানা আছে।

খালেদা জিয়ার অসুস্থতা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে বুধবার জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় বকশিবাজার আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত বিশেষ আদালতে তাকে হাজির না করায়। পরে এ নিয়ে কথা বলেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও। তিনি শুক্রবার সকালে সংবাদ সম্মেলনে খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেন। কারামুক্তির পর দেশে নাকি বিদেশে চিকিৎসা করাবেন—এ বিষয়ে খালেদা জিয়া নিজেই সিদ্ধান্ত নেবেন বলে জানান তিনি। এ সময় খালেদা জিয়াকে গ্রেফতারের পর থেকে আজ অবধি তাকে অমূল্যায়ন করা হয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।

বিএনপির অন্য নেতারাও খালেদা জিয়ার অসুস্থতার কথা বলেন। বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রীর বিষয়ে সরকারের কতটুকু আন্তরিক থাকা দরকার তা বেগম খালেদা জিয়ার শারীরিক অসুস্থতার পর থেকে সরকারের উদাসীনতা থেকেই বোঝা যায়।’

খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে ধোঁয়াশার কারণ সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘দেখুন, খালেদা জিয়া সুস্থ না অসুস্থ, এ নিয়ে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা কথা বলবেন। আমরা যতটুকু জেনেছি, তিনি সে রকম অসুস্থ নন। আর খালেদাকে নিয়ে ধোঁয়াশা তৈরি করছে বিএনপি। তাকে নিয়ে মাইনাস গেইম খেলানোর ইচ্ছা আওয়ামী লীগের নেই। আওয়ামী লীগ সব সময় অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনে বিশ্বাস করে। বরং এটি নিয়ে বিএনপির নেতাদের মধ্যেই সংশয় আছে। আসলে বিএনপির নেতারা দ্বিধা-দ্বন্দ্বে আছে যে খালেদা জিয়াকে নির্বাচনের বাইরে রাখবে না ভেতরে রাখবে।’

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান বলেন, ‘বিএনপি তার দলের প্রধানের শারীরিক অবস্থা নিয়ে মিথ্যাচার করে প্রমাণ করেছে ওরা আসলে যাচ্ছেতাই বলতে পারে। তারা কি খালেদা জিয়ার অসুস্থতা চায়? এই বিষয়টা নিয়ে রাজনীতি করে বিএনপি নেতারা ছোট মানসিকতার পরিচয় দিয়েছে।’

১৪ দলের মুখপাত্র, স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার উন্নতি-অবনতি নিয়ে সরকার সচেতন। আমরা ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে খালেদা জিয়ার নিয়মিত চিকিৎসক মাহমুদুল হাসান শুভর সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি জানিয়েছেন, জেলখানায় আসার পর তিনি (খালেদা জিয়া) যে অবস্থায় এসেছিলেন, এখন তার চেয়ে ভালো আছেন। ওনার হাঁটুতে সামান্য সমস্যা আছে। তবে তার বড় কোনো সমস্যা নেই। সুতরাং এই চিকিৎসার জন্য বাইরে যাওয়ার প্রয়োজন নেই। তাছাড়া, আমাদের দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থা এখন অনেক উন্নত।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা যদি সে রকম হয় তবে অবশ্যই সরকার সে রকম ব্যবস্থা নেবে। এ নিয়ে গুজব ছড়ানোর কী আছে? বিএনপি নেতাদের বানিয়ে বানিয়ে গল্প বলার ইতিহাস তো নতুন নয়। সুতরাং প্যাথলজিক্যাল লায়ারদের কথায় কান না দেওয়ার অনুরোধ জানাই।’

আরো সংবাদ...