রাজনীতি

খালেদার সঙ্গে স্বজনদের দেখা করতে বাধা দেয়া হচ্ছে

ঢাকা , এপ্রিল , (ডেইলি টাইমস ২৪):

কারাবন্দি খালেদা জিয়ার সঙ্গে আত্মীয়-স্বজনদের দেখা করতে বাধা দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ। তিনি বলেন, ‘কারাগারে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সাথে তার ঘনিষ্ঠ আত্মীয়-স্বজনদের দেখা করতেও বাধা দেয়া হচ্ছে।’

বোরবার নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন। রিজভী বলেন, ‘কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন ও তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ। এখন পর্যন্ত তাকে কোন চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে না। সরকারি মেডিকেল বোর্ড মামুলি প্রহসনের এক্সরে ও রক্ত পরীক্ষা করে ফিজিওথেরাপির সুপারিশ করেছে।’

তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়া একজন বয়স্ক ও দেশের জনপ্রিয় নেত্রী, যার দীর্ঘদিন ধরে হাঁটু ও চোখের সমস্যা রয়েছে। তাকে কারাগারে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে রাখায় আরও বেশকিছু শারীরিক সমস্য দেখা দিয়েছে। এমনকি সরকারি মেডিকেলের চিকিৎসক বোর্ড বলেছে তার এক্স-রে রিপোর্টগুলোতে দেখা যাচ্ছে ঘাড়ে ও কোমরের হাড়ে সমস্যা আছে। এমতাবস্থায় আধুুনিক চিকিৎসার যুগে এমআরআইসহ উন্নত পরীক্ষা-নিরীক্ষা ছাড়া শুধুমাত্র এক্সরে ও রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমে সুনির্দিষ্ট ও সঠিক রোগ নির্ণয় সম্ভব নয়।’

বিএনপির এ নেতা বলেন, ‘দেশনেত্রীকে যেদিন পিজি হাসপাতালে (বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়-বিএসএমএমইউ) আনা হয়েছিল সেখানে ব্যক্তিগত চিকিৎসকদের ডাকা হলেও তাদেরকে চিকিৎসাসেবার সুযোগ ও পরামর্শ নেয়া হয়নি। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে তিলে তিলে নিঃশেষ করার জন্যই ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে পরিকল্পিতভাবে সাজা দিয়ে কারাবন্দি করে এখন চিকিৎসার সুযোগও দেয়া হচ্ছে না। এটা জাতীয়তাবাদী শক্তিকে ধ্বংস করতে বহুমুখী চক্রান্তের অংশ।’

বেগম জিয়ার সুচিকিৎসার জন্য অতি দ্রুত নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানিয়ে রিজভী বলেন, ‘সরকারি হুকুমে কারসাজিমূলকভাবে বেগম জিয়ার জামিনকে স্থগিত করা হয়েছে, এসব ঘৃণ্য চক্রান্ত বাদ দিয়ে তাকে অবিলম্বে মুক্তি দিন। তার চিকিৎসা কিসে ভালো হয় সেটি তাকে সিদ্ধান্ত নেয়ার সুযোগ দিন। বেগম জিয়ার ইচ্ছানুযায়ী সুচিকিৎসা নিশ্চিত করুন।’

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য প্রসঙ্গে রিজভী বলেন, ‘গতকাল প্রধানমন্ত্রী পহেলা বৈশাখের এক অনুষ্ঠানে বলেছেন- অশুভ শক্তি যেন আর ক্ষমতায় না আসতে পারে। এখন জনগণ মনে করে দেশের সবচেয়ে বড় অশুভ শক্তি বর্তমান মহাজোট সরকার।’

তিনি আরও বলেন, ‘গতকাল প্রধানমন্ত্রী পহেলা বৈশাখের অনুষ্ঠানে কবিগুরুর ‘১৪০০ সাল’ কবিতাটি আওড়িয়েছেন। আমি শুধুুু প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে এটুকু বলতে চাই- বিরোধীদের প্রতি সরকার প্রধানের ক্ষোভ, ঘৃণা এবং ধ্বংস করার মানসিকতার কারণে বর্তমান প্রেক্ষাপটে ঐ কবিতাটি এখন কীভাবে গৃহীত হচ্ছে সেটি তিনি উপলব্ধি করতে পারেননি।’

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক এবিএম মোশাররফ হোসেন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আরো সংবাদ...