সারাদেশ

টানা ৩ দিনের যানজটে অচল ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়ক

ঢাকা , ১৬ মে, (ডেইলি টাইমস ২৪):  

ফেনী জেলার মহিপালে আটকে পড়া গাড়ির চাপ আর দুটি সেতুতে দিয়ে টোল আদায়ে ধীর গতি আর বুধবার সকালে বাউশিয়াতে পণ্যবাহী ট্রাক উল্টে তিন ঘণ্টা যানবাহন বন্ধ থাকায় এবং তিন দিনের যানজটে অচল মহাসড়ক।

বুধবার ঢাকা চট্রগ্রাম মহাসড়কের চান্দিনা উপজেলার মাধাইয়া থেকে গোমতী সেতু পাড় হয়ে মেঘনা সেতুর পর নারায়ণগঞ্জ জেলার মদনপুর পর্যন্ত দীর্ঘ ৪০কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। টানা তিন দিনের যানজটে অচল মহাসড়ক। এ যানজটের ফলে হাজার হাজার যাত্রীবাহী গাড়ি, রোগীবাহী এ্যাম্বুল্যান্স ও বিদেশগামী যাত্রী আটকে পড়ে পথে পথে চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে। টাকা দিয়েও খাবার পাচ্ছে না যাত্রী ও গাড়ির চালকগণ। আবার পাওয়া গেলে তিনগুণ দামে জীবন বাঁচার তাগিদে কিনে খাচ্ছে।

হাইওয়ে পুলিশ ও জেলা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ৩/৪দিনের যানজটে আটকে পড়া গাড়িগুলো এক সাথে আসার ফলে হাজার হাজার পণ্যবাহী গাড়ি ও বাউশিয়াতে একটি পণ্যবাহী ট্রাক উল্টে গিয়ে তিন ঘণ্টা সড়ক বন্ধ ও দাউদকান্দির গোমতী ও মেঘনা সেতু টোল আদায়ে ধীর গতি ও সেতু দিয়ে ধীর গতিতে যানবাহন চলাচলে প্রথমে যানজটের সৃষ্টি হয়।

এ যানজটের রেশ কাটতে না কাটতে বুধবার ভোরে গোমতী সেতুর পশ্চিম পাড় পণ্যবাহী মালবোঝাই ট্রাক উল্টে যাওয়ার কারণে তিন ঘণ্টা যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে। এ তিন ঘণ্টা যানবাহন বন্ধ থাকার ফলে এ যানজট আরো দীর্ঘতম হয়।

গজারিয়া হাইওয়ে পুলিশ ও টোল আদায়কারী প্রতিষ্ঠানে র‌্যাকার দিয়ে গাড়িটি সরিয়ে নিয়ে ধীরে ধীরে যানবাহন চলাচল শুরু করে। কিন্তু দুই সেতু টোল আদাইয়ে ধীর গতি এবং দুই দিক থেকে চার লেন দিয়ে আসা যানবাহন গুলো দুটি সেতুর ওপর দিয়ে দুই লেন হয়ে ধীর গতিতে যানবাহন চলাচল করায় দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। আর এ যানজটের কারণে হাজার যাত্রী ও রোগীবাহী এম্বুল্যান্স এবং প্রবাসী যাত্রীর বিমানের ফ্লাইট মিশ হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তারা ঘণ্টার পর ঘণ্টা যানজটে মহাসড়কে আটকে থাকায় চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে।

ঢাকাগামী এস আলম পরিবহনের যাত্রী আবুল কালাম বলেন, গতকাল রাতে রওয়ানা দিয়ে ১৫ ঘণ্টায় গৌরীপুর এসে পৌঁছে। ঢাকায় কত ঘণ্টা পৌঁছাবে এও বলতে পারছি না। পথে পথে যাত্রীদের খাবার আর দুর্ভোগের হাহাকার বলে শেষ করা যাবে না।

টোল আদাকারী প্রতিষ্ঠান সূত্রে জানা যায়, আগে যেখানে প্রতিদিন ১৫-১৭ হাজার গাড়ি চলাচল করতো এখন প্রতিদিন ২০-২৫ হাজার যানবাহন চলাচল করছে। তাছাড়া রমজান উপলক্ষে শতকরা ৮০ভাগ পণ্যবাহী গাড়ি চলাচল করছে।

এ ব্যাপারে দাউদকান্দি হাইওয়ে পুলিশের ওসি মো. আবুল কালাম আজাদ বলেন, ফেনী মহিপালের গত দুই দিনে আটকে থাকা অতিরিক্ত গাড়ি চাপ অন্য দিকে মেঘনা সেতুতে পণ্যবাহী একটি ট্রাক বিকল হওয়ার কারণে এ দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। গত রাত থেকে যানজটের কারণে হাইওয়ে পুলিশের সকল সদস্য ২৪ ঘণ্টা দায়িত্ব পালন করছে।

দাউদকান্দি গৌরীপুর ফাঁড়ির ইনচার্জ আসম আব্দুন নূর জানান, গত রাত থেকে লেগে থাকা যানজটের খবর পেয়ে জেলা পুলিশের কয়েকটি টিম নিয়ে আমি নিজেই যানজট নিরসনের কাজের তদারকি করছি। তবে গতা রাতে যাবাহন কিছুটা স্বাভাবিক হলেও আজ সকালে পণ্যবাহী ট্রাক উল্টে গিয়ে আবার যানজটের সৃষ্টি হয়। তবে যানবাহন স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে হাইওয়ে পুলিশের পাশা-পাশি জেলা পুলিশের সদস্যরা কাজ করে যাচ্ছে। আশা করছি রাতের মধ্যে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আসবে।

আরো সংবাদ...