সারাদেশ

জয়পুরহাটে শৌচাগার থেকে এটিএম বুথের নৈশ প্রহরীর লাশ উদ্ধার

ঢাকা , ১০ আগস্ট , (ডেইলি টাইমস ২৪)

জয়পুরহাট শহরের প্রধান সড়কের পাশে মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের এটিএম (অটোমেটেড টেলার মেশিন) বুথের নৈশ প্রহরীর লাশ শৌচাগার থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ শুক্রবার বেলা তিনটার দিকে দ্বিতীয় তলার একটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের শৌচাগার থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাঁকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করছে পুলিশ।

নিহত নৈশ প্রহরীর নাম শফিকুল ইসলাম (৩৫)। তাঁর গ্রামের বাড়ি নওগাঁ জেলার বদলগাছি উপজেলার বামনপাড়া গ্রামে। গতকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে তিনি খুন হয়েছেন বলে পুলিশের ধারণা।

ব্যাংক ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, জয়পুরহাট শহরের প্রধান রাস্তার উত্তর পাশে হাবিব ম্যানশন মার্কেটের নিচে মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের এটিএম বুথ রয়েছে। পাশেই আলম মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের কার্যালয়। শুক্রবার সকাল আটটার দিকে ওই এটিএম বুথের অপর প্রহরী খায়রুল আলম দায়িত্ব পালন করতে এসে বুথের শাটার ভাঙা ও বন্ধ দেখে শফিকুলকে ডাকাডাকি করেন। শফিকুলকে না পেয়ে ব্যাংকের ম্যানেজারকে খবর দেন। পরে ওই ভবনের দ্বিতীয় তলার শৌচাগারের মধ্যে শফিকুলের লাশ পাওয়া যায়।

জয়পুরহাট মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের ব্যবস্থাপক শাহ জালাল বলেন, সকালে তিনি এসে বুথের শাটার, ভেতরের প্লাস্টিকের দরজা ও ভোল্টের লক ভাঙা দেখেন। তাঁর ধারণা, ভোল্টের টাকা খোয়া যায়নি। ঢাকায় ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ে বিষয়টি জানানো হয়েছে। নৈশ প্রহরীর মুঠোফোন খোলা থাকলেও কেউ ফোন ধরছিল না। পরে দ্বিতীয় তলার শৌচাগারে তাঁর লাশ পাওয়া যায়। সেখানে তাঁর মুঠোফোনও পাওয়া গেছে।

জয়পুরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সেলিম হোসেন বলেন, সকালে খবর পেয়ে তাঁরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। বুথের ভেতরে সিসি ক্যামেরা ভেঙে ফেলা হয়েছে। দুপুরের পর হাবিব ম্যানশনের দ্বিতীয় তলার মালিকের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের কার্যালয়ের টয়লেট থেকে নৈশ প্রহরীর লাশটি উদ্ধার করে জয়পুরহাট আধুনিক হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় রাজশাহী থেকে আসা ক্রাইম সিন ম্যানেজমেন্টের একটি টিম ঘটনাস্থলে কাজ শুরু করেছে।

আরো সংবাদ...