টেক

ই-সিগারেটের মাধ্যমে ভিটামিন ‘পান’ করছে মানুষ!

ঢাকা , নভেম্বর , (ডেইলি টাইমস২৪):

সাধারণ সিগারেটের তুলনায় অনেকেই ই-সিগারেটকে স্বাস্থ্যকর মনে করেন।  ই-সিগারেট নিয়ে ইদানিং বিভিন্ন ধরণের ‘এক্সপেরিমেন্ট’ করেন ধূমপায়ীরা। কেউ এর মাধ্যমেই গাঁজা সেবন করেন, এমনকি ভায়াগ্রাও সেবন করেন। অচিরেই আসছে ই-সিগারেটের মাধ্যমে ভিটামিন সেবন করার চল।

ই-সিগারেট যখন প্রথম বাজারে আসে, তখন একে সাধারণ সিগারেটের তুলনায় ৯৫ শতাংশ কম ক্ষতিকর বলে দাবি করা হয়। অবশ্য এখনো এ নিয়ে গবেষকদের মাঝে বিতর্ক আছে এবং ই-সিগারেটেরও ক্ষতিকর দিক আছে বলে দেখা যাচ্ছে।  ই-সিগারেটকে আবারও স্বাস্থ্যকর হিসেবে প্রচারের লক্ষ্যে বিক্রি করা হচ্ছে ভিটামিন ও এসেনশিয়াল অয়েল মিশ্রিত ই-জুস, যা সেবন করা যাবে ই-সিগারেটের মাধ্যমে।  কিন্তু ই-সিগারেটের মাধ্যমে ভিটামিন সেবন করাটা কি আসলে স্বাস্থ্যকর?

যুক্তরাষ্ট্রের পার্দু ইউনিভার্সিটির নিউট্রিশনাল এপিডেমোলজিস্ট রেগান বেইলির মতে, এ ধরণের কাজ কেবলই পণ্য বাজারজাতকরণের একটি কৌশল। ক্রেতারা ধরে নেবেন ভিটামিন মানেই স্বাস্থ্যকর। কিন্তু ধোঁয়ার সাথে ভিটামিন গ্রহণের উপকারিতার বিষয়ে আসলে কিছুই জানা নেই।

ই-সিগারেট কোম্পানিগুলো নিজেদের মাঝেই এখনো বাকবিতন্ডা করছে ধোঁয়ার সাথে ভিটামিন সেবনের ভালো-খারাপ দিক নিয়ে। কিছু কোম্পানি ভিটামিন বি যোগ করছে ই-সিগারেটের মিশ্রণে, তারা দাবি করছে ভিটামিন ডি নিঃশ্বাসের সাথে গ্রহণ করলে তা বিষাক্ত হয়ে যায়। আবার আরেক কোম্পানি ভিটামিন ডি সেবনের সুযোগ দিচ্ছে, দাবি করছে তা নিরাপদ।

সবদিক বিবেচনা করে দেখলে আসলে ই-সিগারেটের মাধ্যমে ভিটামিন গ্রহণ করার মাঝে তেমন উপকারী কিছু দেখা যাচ্ছে না, বরং এ থেকে দূরে থাকাটাই ভালো হয়।  কোম্পানিগুলো নিজেদের পণ্যের বিক্রি বাড়াতে অনেক তথ্যই অতিরঞ্জিত করে প্রকাশ করতে পারে।  আর ভিটামিনের জন্য ধূমপান করতে হবে, এমনটাও নয়।  ভিটামিনযুক্ত খাবার খাওয়াটাই যথেষ্ট। আর ভিটামিন ডি পেতে চাইলে সকালের রোড গায়ে মাখুন।

সূত্র: আইএফএলসায়েন্স

আরো সংবাদ...