জাতীয়

প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন ও ‘নির্বাচনকালীন সরকার’ হতে পারে শুক্রবার: অর্থমন্ত্রী

ঢাকা , নভেম্বর , (ডেইলি টাইমস২৪):

আগামীকাল শুক্রবার (০৯ নভেম্বর) প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন হতে পারে বলে ধারণা দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। একইসঙ্গে ওইদিনই ‘নির্বাচনকালীন সরকার গঠন করা হবে’ বলে তিনি জানিয়েছেন। অর্থমন্ত্রী বলেছেন, ‘পদত্যাগ করা টেকনোক্র্যাট মন্ত্রীদের জায়গায় নতুন কাউকে নিয়োগ দেওয়া হবে না। তবে এখনও পর্যন্ত তাদের পদত্যাগপত্র গ্রহণ করা হয়নি।’

বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) সচিবালয়ে সরকারি ক্রয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

গত ১ নভেম্বর থেকে ৭ নভেম্বর পর্যন্ত দেশের রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ শেষে আজ বৃহস্পতিবার (৮ নভেম্বর) সকাল ১১টায় সংলাপের বিভিন্ন বিষয় এবং নির্বাচন নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সংবাদ সম্মেলন করার কথা ছিল। বুধবার জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে দ্বিতীয় দফার বৈঠক শেষে এ তথ্য জানিয়েছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তবে গতকাল রাতে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইং থেকে গণমাধ্যমগুলোকে জানানো হয় প্রধানমন্ত্রীর বৃহস্পতিবারের সংবাদ সম্মেলন স্থগিত করা হয়েছে। এদিকে, আজ রাতে একাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা দেবেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা। তাই সরকারের চূড়ান্ত অবস্থান নির্ধারণে প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলনটি নানা কারণেই গুরুত্বপূর্ণ।

এই সংবাদ সম্মেলনের বিষয়ে জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী মুহিত জানান, প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন হতে পারে শুক্রবার। তবে সংবাদ সম্মেলন পেছানোর কারণ স্পষ্ট করেননি তিনি। তবে এদিন থেকে নির্বাচনকালীন সরকার গঠন হবে এমন আভাসও দেন তিনি।

অর্থমন্ত্রী জানান, ‘নির্বাচনে দাঁড়াবো না, ইটস মাই ডিসিশন। তবে আমি ডামি ক্যান্ডিডেট হিসেবে মনোয়ানয়ন পত্র সাবমিট করবো, যদি কোনও কারণে আমার ক্যান্ডিডেট যে হবে সে মিস করে যায় তাহলে আমাকে দাঁড়াতে হবে। এটা একটি রুটিন ব্যাপার।’ মুহিত বলেন, ‘আই ওয়ান্ট টু রিটায়ার্ড’।

পদত্যাগ করা মন্ত্রীদের মন্ত্রণালয়ে নতুন কাউকে নিয়োগ দেওয়া হবে কিনা জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘না, নতুন কাউকে আনা হবে না। এ চার মন্ত্রণালয় বর্তমান মন্ত্রীদের বাড়তি দায়িত্ব হিসেবে দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।’

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বুধবার (৬ নভেম্বর) ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নূরুল ইসলাম বিএসসি এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী ইয়াফেস ওসমান পদত্যাগপত্র জমা দেন।

আরো সংবাদ...