সিরাজগঞ্জে মন্ত্রী চেয়ে অনশনে তিনি…

0
37

ঢাকা , ১০ জানুয়ারি , (ডেইলি টাইমস২৪):

সোহেল রানা মিলন। সিরাজগঞ্জ জেলার কামারখন্দ উপজেলার শাহজাহানপুরের বাসিন্দা। নিজেকে সমাজসেবী পরিচয়দানকারী এই সোহেল তার নিজ জেলার যেকোনও একজন এমপিকে মন্ত্রী চেয়ে অনশন কর্মসূচি পালন করছিলেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর নতুন মন্ত্রিসভায় সিরাজগঞ্জ জেলার ছয়টি আসনের কোনও সংসদ সদস্যই মন্ত্রিত্ব পাননি, যাতে মর্মাহত হন সোহেল।

বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে সকাল থেকে অনশনে বসেন তিনি। অনশনের বিষয়ে সোহেল রানা মিলন জাগো নিউজ বলেন, তার বাড়ি সিরাজগঞ্জ জেলার কামারখন্দ উপজেলার শাহজাহানপুরে। স্বাধীনতার পর থেকে প্রতিবার আমাদের জেলায় একজন মন্ত্রী ছিলেন। এবার প্রথম মন্ত্রী দেয়া হয়নি। তাই অনতিবিলম্বে আমাদের জেলায় একজনকে মন্ত্রী চেয়ে অনশন করছি।

তিনি বলেন, যেহেতু সিরাজগঞ্জ উত্তরবঙ্গের প্রবেশদ্বার। তাই ওখানে একজন মন্ত্রী থাকা আমাদের এলকাবাসীর প্রত্যাশা। বিশেষ করে সদরের সংসদ সদস্য হাবিবুর মিল্লাত মুন্না, তিনি দীর্ঘদিন ধরে মাঠে আছেন। মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন, নেতৃত্ব দিচ্ছেন। এ ছাড়া স্কুল, রাস্তাঘাট, কলেজ সর্বোপরি উন্নয়ন করেছেন, তাই আমি মনে করি, উনাকে মন্ত্রিত্ব দেয়া উচিত।

হাবিবুর মিল্লাত মুন্নাকে কেন মন্ত্রী হিসেবে দেখতে চান- জানতে চাইলে তিনি বলেন, মিল্লাত সদরের এমপি, উত্তরবঙ্গে যেতে হলে শহরের ওপর দিতে যেতে হয়। তিনি যেহেতু এলাকায় উন্নায়ন করছেন, সাধারণ মানুষের সঙ্গে মিশেন। সবসময় জনগণের পাশে থাকেন। তিনি একজন যোগ্য ব্যক্তি। মন্ত্রী হলে আরও উন্নায়ন করবেন। তাই তার মন্ত্রী হওয়া দরকার বলে আমরা মনে করি।

সোহেল জানান, সিরাজগঞ্জে একজন মন্ত্রী চেয়ে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে তিনি জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অনশনে বসেন। সকাল থেকে অনশন কর্মসূচি পালন করার পর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অনুরোধে তিনি প্রেস ক্লাবের সামনে থেকে উঠে আসেন।