বাবা-মা সন্তানের কাছে কী চায়?

0
21

ঢাকা , ১১ জানুয়ারি , (ডেইলি টাইমস২৪):

বাবা-মা সন্তানের জন্য সেরা আশীর্বাদ। কেননা সন্তানকে জন্মের পর থেকেই বাবা-মা তাদের বেড়ে ওঠতে সার্বিক দেখা-শুনা করে থাকেন। সন্তানদের উন্নত জীবনের জন্য এবং তাদেরকে সুস্থ, সুন্দর ও ভালো রাখতেই চলে বাবা-মার যত সংগ্রাম।

দুর্ভাগ্যবশত সন্তানরা বাবা-মার সহযোগিতার ক্ষেত্রে পুরোপুরি বিপরীতে অবস্থান করে। যে বাবা-মা সন্তানের সুখের জন্য তাদের সুখকে বিসর্জন দেয়, সে সন্তানই বড় হয়ে সেভাবে বাবা-মার খোঁজ খবর রাখে না। তাদের মুখে হাসি ফোটাতে কোনো তত্ত্বাবধানই করে না।

এমনকি অনেক বাবা-মা সন্তানের সঙ্গে থাকতেও পারে না। তাদের স্থান হয় অসহায় পল্লী বৃদ্ধাশ্রমে। অথচ বাবা-মা তাদের যৌবনের সব সুখ-স্বপ্ন বিসর্জন দিয়েছেন সন্তানের অকৃত্রিম স্নেহ, মমতা ও প্রতিপালনে।

আর এভাবেই অনাদর-অবহেলায় অনেক বাবা-মা দুনিয়া থেকে বিদায় নেন পরকালের চিরস্থায়ী জীবনে। তাই সে সব বাবা-মা’র জন্য সন্তানদের শেষ করণীয় হলো দোয়া করা। সন্তানের সে দোয়া হবে বাবা-মার জন্য আল্লাহর কাছে অনেক শক্তিশালী আবেদন। যা মহান প্রভুই দুনিয়ার সন্তানদেরকে শিখিয়েছেন-

رَّبِّ ارْحَمْهُمَا كَمَا رَبَّيَانِي صَغِيرًا

উচ্চারণ : ‘রাব্বির হামহুমা কামা রাব্বায়ানি সাগিরা।‘ (সুরা বনি-ইসরাইল : আয়াত ২৪)
অর্থ : ‘হে আমাদের পালনকর্তা! তাদের উভয়ের প্রতি রহম করুন; যেমনিভাবে তারা আমাকে শৈশবকালে লালন-পালন করেছেন।’

মনে রাখতে হবে

বাবা-মা কখনো সন্তানের কাছে টাকা-পয়সা, বিলাসিতা কিংবা অসাধ্য-দুষ্প্রাপ্য কোনো কিছুই চায় না। প্রকৃত পক্ষে তারা চায় সন্তানের সঙ্গ, ভালোবাসা ও তত্ত্বাবধান। এ কারণেই হাদিসে পাকে প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ঘোষণা করেছেন- বাবা-মা’র সন্তুষ্টিতেই রয়েছে আল্লাহর সন্তুষ্টি। আর তাদের অসন্তুষ্টিতে রয়েছে আল্লাহর অসন্তুষ্টি।

সুতরাং দুনিয়ার সব মানুষের প্রতি আহ্বান, যাদের বাবা-মা জীবিত আছে, তাদের পতি যথাযথ দায়িত্ব পালন করা। আর যাদের বাবা মা ইন্তেকাল করেছেন তাদের জন্য আল্লাহর কাছে দোয়া করা।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে তাদের বাবা-মাকে সঙ্গ দেয়ার পাশাপাশি তাদের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রাখার তাওফিক দান করুন। আর যারা ইন্তেকাল করেছেন তাদের জন্য দোয়া করার তাওফিক দান করুন। আমিন।