সারাদেশ

নাজিরপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে বসতঘরে আগুন

ঢাকা , ০৩ মার্চ , (ডেইলি টাইমস২৪):

পিরোজপুরের নাজিরপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে অবসরপ্রাপ্ত এক সচিবের বসতঘরে অগ্নিসংযোগসহ স্থানীয় এক গ্রাম পুলিশকে মারধর এবং মাছের ঘের লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার মাটিভাঙ্গা ইউনিয়নের পশ্চিম বানিয়ারী গ্রামে। আহত গ্রাম পুলিশ ওয়াদুদ হোসেনকে নাজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোল্লা আজাদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

স্থানীয় বাসিন্দা সঞ্জয় বিশ্বাস জানান, তাদের ভোগ দখলীয় জমি দখল করতে গত শনিবার রাত ১১টার দিকে স্থানীয় ইউপি সদস্য নজরুল সরদারের নেতৃত্বে শতাধিক ব্যক্তি দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ওই জমিতে প্রবেশ করে তাদের মাছের ঘের থেকে মাছ লুট-পাট শুরু করে। এ সময় স্থানীয় গ্রাম পুলিশ ওয়াদুদ তাদের বাধা দিলে তাকে মারধর করা হয়। বিষয়টি তারা মাটিভাঙ্গা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে জানালে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তাদের প্রতিরোধ করার চেষ্টা করলে তারা পুলিশদের ওপর চড়াও হয়। পরে অতিরিক্ত পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

এ ঘটনার জেরে অভিযুক্তরা ওইদিন রাত ৩টার দিকে ওই মাছের ঘেরের পার্শ্ববর্তী বাড়ির সপরিবারে ঢাকায় বসবাসরত অবসরপ্রাপ্ত সচিব জগদ্বিশ চন্দ্র বিশ্বাসের বসতঘরে অগ্নিসংযোগ করে। সংবাদ পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা সেখানে পৌঁছানোর আগেই ঘরে থাকা মালামালসহ বসতঘরটি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এ অগ্নিসংযোগের ঘটনায় স্থানীয়রা ইউপি সদস্য নজরুল সরদারকে দায়ী করেছেন। তবে অভিযুক্ত নজরুল সরদার এ ঘটনায় দায়ী নন বলে দাবি করেন।

এ ব্যাপারে মুঠোফোনে কথা হলে অবসরপ্রাপ্ত সচিব জগদ্বিশ চন্দ্র বিশ্বাস জানান, তিনি সপরিবারে ঢাকায় বসবাস করেন। তার পিতার হাতের তৈরি ওই বসত ঘরটি তার পিতার স্মৃতি। সেই ঘরটি আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে সন্ত্রাসীরা।

মাটিভাঙ্গা তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মিজানুর রহমান খান জানান, ঘটনার সংবাদ পেয়ে তিনি এসআই নুরুল ইসলামসহ ফোর্স ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন।

এ ব্যাপারে থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. জাকারিয়া জানান, বিষয়টি তদন্ত করে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button