রাজনীতি

সম্মিলিত প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান নজরুলের

ঢাকা , ১৬ এপ্রিল , (ডেইলি টাইমস২৪):

নুসরাত হত্যাকাণ্ডের বিচার নিয়ে সংশয় প্রকাশ করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, একদিনের মানববন্ধনে এ দেশকে বিচারহীনতা এবং অপমৃত্যুর হাত থেকে রক্ষা করা যাবে না। ঐক্যবদ্ধ হয়ে আমাদের সারা দেশে সকল ক্ষেত্রে সম্মিলিত প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে নুসরাত জাহান রাফী হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ওলামা দল আয়োজিত এক মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

নজরুল ইসলাম বলেন, ‘সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনি হত্যায় হত্যাকারীদের গ্রেফতারের ৪৮ ঘণ্টার সময় বেঁধে দেয়া হয়েছিল। ৪৮ মাসে হয়নি, ৪৮ বছরেও হবে না। এখন নুসরাত হত্যার বিচারে আমরা দেখছি ক্ষমতাসীন দল এবং প্রশাসনের সঙ্গে যুক্ত কিছু ব্যক্তিরা জড়িত আছেন, হয়তো তাদেরও বিচার হবে না।’

তিনি বলেন, ‘আমরা দেখেছি এর আগে কোনো নারী হত্যা বা ধর্ষণের বিচার হয়নি। এই বিচারহীনতা থেকে আমরা যতদিন মুক্ত হতে না পারব ততদিন পর্যন্ত মর্যাদাশীল মানুষ, মুক্তিযোদ্ধা পরিবার ও তাদের সন্তান নিরাপদ নয় এবং আমাদের মা-বোনরাও নিরাপদ না।’

হত্যাকাণ্ডের বিচার না হওয়া প্রসঙ্গে নজরুল ইসলাম বলেন, ‘জনগণের কাছে দায়বদ্ধ, জনগণের ভোটে নির্বাচিত সরকার আমাদের দেশে নেই। যদি জনগণের দ্বারা নির্বাচিত সরকার থাকত তাহলে এসব হত্যাকাণ্ডের বিচার করত।’

বিএনপির এ নেতা বলেন, ‘যেখানে আমাদের সন্তানরা নিরাপদে থাকবে না, মা-বোনদের নিরাপত্তা থাকবে না, যেখানে বিচারহীনতা-সংস্কৃতি আমাদের সমস্ত অর্জনকে গ্রাস করে নেবে-এমন একটা দেশ গড়তে আমরা মুক্তিযুদ্ধ করিনি। আমাদের মুক্তিযুদ্ধের সুবর্ণ ফসল, গণতন্ত্রকে লুট করা হয়েছে।’

দেশে গণতন্ত্র অবরুদ্ধ বলে মন্তব্য করেন স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। তিনি বলেন, ‘দেশে যখন গণতন্ত্র অবরুদ্ধ, গণতন্ত্রকে গলা টিপে ধরা হয়েছে, তখন মুক্তির জন্য প্রয়োজন বিএনপির নেতৃত্বে গণআন্দোলন গড়ে তোলা। যার নেতৃত্ব দেবেন বেগম খালেদা জিয়া।’

খালেদা জিয়ার অসুস্থতার কথা জানিয়ে নজরুল ইসলাম বলেন, ‘তাকে জেলখানায় আটকিয়ে রেখে তার অসুস্থতা আরও বাড়িয়ে দেয়া হচ্ছে। যা তার জন্য আরও কঠিন কারণ হতে পারে। অবিলম্বে তার মুক্তি দাবি করেন নজরুল ইসলাম।’

মানববন্ধনে অন্যদের মধ্যে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টু, নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মুহাম্মদ রহমতউল্লাহ এবং ওলামা দলের কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

 

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button