জাতীয়

খালেদা-মোদির সাক্ষাতে জ্যেষ্ঠ নেতারা থাকছেন না?

নানা জল্পনা কল্পনার পর ঢাকা সফররত ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সাক্ষাৎ হচ্ছে। অনেক কাঠখড়ি পুড়িয়ে বিএনপি এসময় টুকু নিয়েছে বলেই মনে করছেন পর্যবেক্ষকরা। কারণে খালেদা জিয়া কোনো প্রটোকলেই মোদরি সঙ্গে সাক্ষাতের সূচিতে থাকতে পারেন না।

এ বিষয়টা বিএনপির মধ্যে উচ্ছ্বাস থাকারই কথা। কিন্তু উল্টো অনাগ্রহ বা সমন্বয়হীনতার আভাস পাওয়া যাচ্ছে।

রোববার বিকেলে রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে মোদির সঙ্গে দেখা করবেন খালেদা জিয়া। এসময় তার সঙ্গে বিএনপির কে কে থাকবেন বিষয়টা এখনও জানানো হয়নি। কেউ মুখও খুলছেন না।

তবে বিভিন্ন সূত্র থেকে কয়েকজনের নাম শোনা যাচ্ছে। যার মধ্যে বিএনপির সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য রয়েছেন মাত্র একজন- ড. আব্দুল মঈন খান। এছাড়াও উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য রিয়াজ রহমান, সাবিহ উদ্দিন আহমেদ, আমির খসরু মাহামদু চৌধুরী এবং ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরীর নাম শোনা যাচ্ছে।

খালেদা-মোদি বৈঠকে বিএনপির কত সদস্য থাকবে জানতে চাইলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অব.) মাহাবুবুর রহমান শনিবার রাতে বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে কিছু জানি না।’

আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীকে ফোন দিলে তিনি বলেন, ‘আমি একটা মিটিংয়ে আছি, পরে কথা বলি।’ এই বলে তিনি এড়িয়ে গেলেন।

বিএনপি চেয়ারপারসনের আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা কমিটির আহ্বায়ক শফিক রেহমানের ফোন বন্ধ, শমসের মবিন চৌধুরীর ফোনও বন্ধ। সাবিহ উদ্দিন আহমেদ প্রথমে ফোন ধরেনি। তবে পরে বলেন, এখনই এ ব্যাপারে কিছু বলা ঠিক হবে না বলে তিনি মনে করছেন।

এ ব্যাপারে দলের সহ-দপ্তর সম্পাদক শামীমুর রহমান শামীম বলেন, যারা পররাষ্ট্র নিয়ে কাজ করেন তারা জানাবেন যে কত সদস্যের প্রতিনিধি বৈঠকে থাকবে। অথচ এটি শনিবার দিবাগত রাত পৌনে ১০টা পর্যন্ত তাকে জানানো হয়নি।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button