জাতীয়

মোদি-খালেদার একান্ত বৈঠক; বাংলাদেশে গণতন্ত্রের অনুপস্থিতি নিয়ে কথা হয়েছে : মঈন খান

ঢাকা, ৭ জুন (ডেইলি টাইমস ২৪) : ঢাকায় সফররত ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বৈঠকে বাংলাদেশের গণতন্ত্রের অনুপস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে বলে জানিয়েছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান।

রবিবার বিকাল ৪টার দিকে সোনারগাঁও হোটেলের চতুর্থ তলায় সুরমা স্যুইটে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক চলে বিকাল ৪টা ৫০ মিনিট পর্যন্ত।

বৈঠক শেষে হোটেল সোনারগাঁওয়ে উপস্থিত সাংবাদিকদের ড. মঈন খান বলেন, অত্যন্ত চমৎকার পরিবেশে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বিএনপি চেয়ারপারসনের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠকে বিএনপির পক্ষ থেকে বেগম খালেদা জিয়া তার বক্তব্য উপস্থাপন করেছেন। অন্যদিকে ভারতের পক্ষ থেকে নরেন্দ্র মোদি তার বক্তব্য উপস্থাপন করেছেন।

সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, আমরা যেটা বলেছি- দুটি দেশের মানুষের সঙ্গে মানুষের সম্পর্ক চাই। কারণ একটি দেশের সরকার আসবে আবার যাবে। দুই দেশের মানুষের মধ্যে মানুষের পারষ্পরিক সম্পর্ক অটুট থাকা প্রয়োজন।

রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে কথা হয়েছে জানিয়ে মঈন খান বলেন, বাংলাদেশে গণতন্ত্র অনুপস্থিত। সেই বিষয়টি নিয়ে কথা হয়েছে। এখন যদি আমরা সার্কের আঞ্চলিক উন্নয়নকে বাস্তবে রূপ দিতে চাই তাহলে গণতন্ত্রের ওপর অবশ্যই জোর দিতে হবে।

তিনি বলেন, আগে উন্নয়ন পরে গণতন্ত্র- এ বিষয়টি বাস্তব সম্মত নয়। কারণ উন্নয়ন কাজে আসবে না যদি মানুষের কথা বলার স্বাধীনতা, নির্বাচন কমিশনের নিরপেক্ষতা, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিরপেক্ষ না থাকে। গণতন্ত্র ব্যতিরেকে সেই পরিবেশ বজায় রাখা সম্ভব হবে না।

বিএনপির এই সিনিয়র নেতা বলেন, নরেন্দ্র মোদি গণতন্ত্রের মানুষ। তার ইতিহাস যদি আপনারা ঘাঁটেন তাহলে সেটা দেখতে পাবেন। যারা গণতন্ত্রের মূল্য দেয় না তাদের সঙ্গে গণতন্ত্রের কথা বলে লাভ নেই। যারা গণতন্ত্রকে ধূলিসাৎ করেছে তাদেরকে আমরা বারবার দেশের চলমান রাজনৈতিক সমস্যা নিয়ে আলোচনার আহ্বান জানিয়ে আসছি। কিন্তু তাতে তারা সাড়া দেয়নি।

মোদির পক্ষ থেকে কি বলা হয়েছে জানতে চাইলে জবাবে মঈন খান বলেন, ভারতের পক্ষ থেকে কি বলা হয়েছে সেটা তারাই আপনাদের জানাবেন। আমার পক্ষ থেকে বলা সঠিক হবে না।

আরেক প্রশ্নের জবাবে মঈন খান বলেন, আমাদের সঙ্গে বৈঠকের পর মোদির সঙ্গে খালেদা জিয়ার একান্তে ওয়ান-টু-ওয়ান বৈঠক হয়েছে।

দুপুর ৩টার আগে গুলশানে নিজের বাসা থেকে হোটেল সোনারগাঁওয়ের উদ্দেশে রওনা দেন খালেদা জিয়া। বিকাল পৌনে ৪টায় তার গাড়ি বহর হোটেলে পৌঁছায়। তার সঙ্গে ছিলেন- দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম, আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সাবিহ উদ্দিন আহমদ ও রিয়াজ রহমান।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button