আইন ও আদালত

সোহেলসহ অভিযুক্ত ৭, আনোয়ার-রিজভীর অব্যাহতি

ঢাকা, ৮ জুন ( ডেইলি টাইমস্২৪) :

রাজধানীর মৎস্য ভবন এলাকায় বাসে পেট্রোলবোমা হামলা চালিয়ে এক পুলিশ সদস্য হত্যার ঘটনায় ঢাকা মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব হাবিবুন নবী খান সোহলসহ ৭ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেছে গোয়েন্দা পুলিশ। তবে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য এমকে আনোয়ার, যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভিসহ ৩১ জনকে অব্যাহতি দেয়ার আবেদন করা হয়েছে। ক্রসফায়ারে নিহত খিলগাঁও থানা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পদক নুরুজ্জামান জনিকেও অব্যাহতি দেয়ার আবেদন করা হয়েছে চার্জশিটে।

চার্জশিটে সোহেল ছাড়াও যাদের অভিযুক্ত করা হয়েছে তারা হলেন- আনোয়ার হোসেন টিপু, মোহাম্মাদ হোসেন, আব্দুস সত্তর, মো. রফিক আকন্দ, আলফাজ ওরফে আব্বাস ও মো. শাহ আলম।

সোমবার গোয়েন্দা পুলিশের এসআই দীপক কুমার দাস দণ্ড বিধি এবং বিস্ফোরক আইনে ঢাকার সিএমএম আদালতে পৃথক দুটি চার্জশিট দাখিল করেন।

অব্যাহতি পাওয়া বিএনপির অপর নেতাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন- আমান উল্লাহ আমান, আব্দুল আউয়াল মিন্টু, আজিজুল বারী হেলাল, রুহুল কবির তালুকদার দুলু, বরকতউল্লাহ বুলু, মিজানুর রহমান মিনু, আব্দুস সালাম, মীর শরাফাত আলী সফু প্রমুখ।

সোমবার মামলা দুটির চার্জশিট ঢাকা মহানগর ম্যাজিস্ট্রেট আমিনুল ইসলাম সনাক্ত করে আগামী ২২ জুন তদন্ত কর্মকর্তার উপস্থিতিতে চার্জশিট গ্রহণের শুনানির দিন ঠিক করেছেন।

উল্লেখ্য, চলতি বছর ১৭ জানুয়ারি বিএনপিসহ ২০ দলীয় জোটের ডাকা অবরোধের ১২তম দিন রাত পৌনে ৯টার দিকে মৎস্য ভবন এলাকায় ৩০/৪০ জন পুলিশ সদস্যবাহী একটি বাসে দুর্বৃত্তরা পেট্রোলবোমায় নিক্ষেপ করে।

এই ঘটনায় কনস্টেবল শামীম, এএসআই আবুল কালাম আজাদ, কনস্টেবল শিপন, মোরশেদ, বদিয়ারসহ পুলিশের ১৩ সদস্য দগ্ধ হন। পরে কনস্টেবল শামীম ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান।

ওই ঘটনার পর মোহাম্মাদ হোসেন, আব্দুস সত্তর, মো. রফিক আকন্দ ও আলফাজ ওরফে আব্বাস আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। স্বীকারোক্তিতে তারা হাবিবুন নবী খান সোহলের নির্দেশে এই পেট্রোলবোমা হামলা চালান বলে উল্লেখ করেন।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button