অর্থ ও বাণিজ্য

দর্শক-ক্রেতাদের সাড়া নেই, রিহ্যাব মেলা শুরু

ঢাকা, ১০ জুন ( ডেইলি টাইমস্২৪) :

চারদিন ব্যাপি রিহ্যাবের আবাসন মেলা `রিহ্যাব সামার ফেয়ার ২০১৫` এর দ্বিতীয় দিনও ছিল দর্শক-ক্রেতা শূন্য। জমকালো অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে শুরু হলেও দেখা নেই দর্শকের সমাগম। তবে যথাযত প্রচার না করার কারণকেই দায়ী করছেন মেলায় অংশ গ্রহণকারীরা।

আবাসন ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (রিহ্যাব) উদ্যোগে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত আবাসন মেলা গতকাল মঙ্গলবার শুরু হয়েছে, চলবে আগামী শুক্রবার পর্যন্ত।

বুধবার দ্বিতীয় দিন বিকেলে বিভিন্ন স্টলে ঘুরে দেখা গেছে, দর্শনার্থী ও ক্রেতা শূন্য মেলা। প্রতিটি স্টলে অলস সময় কাটাচ্ছে অংশগ্রহণকারীর আবাসন বিক্রেতারা। এদিকে মেলা উপলক্ষ্যে বেশকিছু কোম্পানির লোভনীয় অফার দিয়েও ক্রেতা আকর্ষণ করতে পারছে না। এ নিয়ে হতাশ আবাসন বিক্রেতারা। তবে আগামী শুক্রবার ছুটির দিনে মেলা জমে উঠবে বলে আসা করছেন তারা।

ডোমিনো ডেভেলপমেন্ট লিমিটেডের সহকারী বিক্রয় ম্যানেজার মো. আব্দুল মতিন তালুকদার জাগো নিউজকে বলেন, মেলায় একদম সাড়া নেই। আমাদের কর্মীরা অলস সময় পার করছে। মেলা হচ্ছে কিন্তু তার কোনো প্রচার নেই। মেলায় এসেছি নতুন পণ্য ও অফার প্রচার করতে। কিন্তু এভাবে যদি দর্শক-ক্রেতা শূন্য থাকে তাহলে মেলায় অংশগ্রহণ করে আমাদের কোনো লাভ হবে না।

মেলা সম্পর্কে অংশগ্রহণকারী স্বদেশ প্রপার্টিস লি. এর সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার খন্দকার এ কে এম ফায়জুল হক জাগো নিউজকে বলেন, মেলা উপলক্ষে আমরা ক্রেতাদের বিশেষ ছাড় দিয়েছি কিন্তু যাদের জন্য অফার তাদের (ক্রেতাদের) সাড়া নেই। (মঙ্গলবার) ও (বুধবার) একই অবস্থা। কোনো দর্শক-ক্রেতা নেই।

এর কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, রিহ্যাব মেলার আয়োজন করলেও তেমন প্রচার করেনি। অনেকেই জানেন না আবাসন মেলা হচ্ছে। এছাড়া সপ্তাহিক কর্মদিবসের কারণে সময়ের অভাবে ক্রেতারা আসছে না।

অন্যদিকে মেলা আয়োজনের ক্ষেত্রে বিহ্যাবের স্থান নির্ধারণের সমালোচনা করে আবাসন ব্যবসার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট এই কর্মকর্তা বলেন, বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র ঢাকা এক অংশে পড়ে গেছে। ফলে এখানে আসতে  অনেক সময় ব্যয় করতে হয়। তাই এ ধরণের মেলা ঢাকার মিডেল পয়েন্টে হওয়া উচিত।

রিহ্যাব মেলায় প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত থাকছে। প্রবেশ মূল্য সিঙ্গেল টিকিট ৫০ টাকা ও মাল্টিপল টিকিট ১০০ টাকা। সিঙ্গেল টিকিট দিয়ে একবার ও মাল্টিপল টিকিট দিয়ে চারবার প্রবেশ করা যাবে। মেলায় এবার স্টল থাকছে ১৩৫টি। আবাসন কোম্পানির পাশাপাশি ২৮টি বিল্ডিং ম্যাটেরিয়াল ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছে।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button