রাজনীতি

আদালতে খালেদা জিয়া

ডেইলি টাইমস ২৪:

দুর্নীতির দুটি মামলায় সাক্ষ্য গ্রহণের শুনানিতে অংশ নিতে আদালতে গেছেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে রাজধানীর বকশীবাজারে আলিয়া মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালতে পৌঁছান তিনি। এর আগে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে গুলশানের বাসভবন থেকে আদালতে উদ্দেশে রওনা হন বিএনপি চেয়ারপারসন।

খালেদা জিয়ার হাজিরাকে কেন্দ্র করে আদালত প্রাঙ্গণ ও এর আশপাশে নিরাপত্তাব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। পুলিশ ছাড়াও অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরাও সেখানে নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করছেন।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার সাক্ষ্য গ্রহণ মুলতবি ও পূর্বের সাক্ষ্য গ্রহণ বাতিলসহ দুটি আবেদন করবেন বলে গতকাল বুধবার জানিয়েছিলেন খালেদা জিয়ার আইনজীবী ব্যারিস্টার আহসানুর রহমান।

ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৩-এর বিচারক আবু আহমেদ জমাদারের আদালতে খালেদা জিয়ার দুই মামলার শুনানির জন্য দিন নির্ধারণ রয়েছে।

গত ২৫ মে খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে সাক্ষ্য গ্রহণ বাতিলের জন্য করা আবেদন নাকচ করেন আদালত। একই সঙ্গে মামলা দুটির পরবর্তী শুনানির জন্য ১৮ জুন দিন নির্ধারণ করা হয়।

রাজধানীর বকশীবাজারে আলিয়া মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালতে খালেদা জিয়ার উপস্থিতিতে তাঁর আইনজীবীরা ছয় কার্যদিবসে তাঁর অনুপস্থিতিতে নেওয়া সাক্ষ্য গ্রহণ বাতিলের আবেদন করেন। খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে ২০১৪ সালের ২২ সেপ্টেম্বর, ১ ডিসেম্বর, ৮ ডিসেম্বর, ১৭ ডিসেম্বর এবং এ বছরের ৭ ও ১৫ জানুয়ারি সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়। এ সময় আদালত তা নাকচ করে দেন।

২০১০ সালের ৮ আগস্ট জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে তিন কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা লেনদেনের অভিযোগ এনে খালেদা জিয়াসহ চারজনের বিরুদ্ধে তেজগাঁও থানায় একটি মামলা করে দুদক।

এ মামলার অন্য আসামিরা হলেন—খালেদা জিয়ার সাবেক রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী, হারিছের তখনকার সহকারী একান্ত সচিব ও বিআইডব্লিউটিএর নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক জিয়াউল ইসলাম মুন্না এবং ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খান।

অন্যদিকে, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের দুই কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৪৩ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ এনে খালেদা জিয়া, তারেক রহমানসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে ২০০৮ সালের ৩ জুলাই রমনা থানায় আরো একটি মামলা করে দুদক।

খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান ছাড়া অন্য আসামিরা হলেন—মাগুরার সাবেক সংসদ সদস্য কাজী সালিমুল হক কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমান।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button