খেলাধুলা

এক ম্যাচ নিষিদ্ধ নেইমার, বাড়তে পারে শাস্তি

স্পোর্টস ডেস্ক,ডেইলি টাইমস ২৪: এক ঘণ্টারও কম সময়ের মধ্যে দুই ধরনের সিদ্ধান্তের কথা জানাল দক্ষিণ আমেরিকা ফুটবল কনফেডারেশনের (কনমেবল)। প্রথমে জানানো হলো, দুই ম্যাচের জন্য সাময়িকভাবে নিষিদ্ধ হয়েছেন নেইমার। পরে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়, দুই ম্যাচ নয়, সাময়িক নিষেধাজ্ঞাটি এক ম্যাচের। তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে আজ শুক্রবার কনমেবলের শৃঙ্খলা কমিটি বৈঠকে বসছে। সেখানে বাড়তে পারে নেইমারের শাস্তির মেয়াদ।
টুর্নামেন্টের প্রথম দুই ম্যাচে দুটো হলুদ কার্ড দেখায় এমনিতেই ​এক ম্যাচের জন্য নিষিদ্ধ হতেন নেইমার। পরে ম্যাচ শেষে বিবাদে জড়িয়ে লাল কার্ডও দেখেছেন। তাই প্রশ্ন উঠেছিল, নেইমারের শাস্তি কী হতে যাচ্ছে। প্রথমে ​নেইমারকে দুই ম্যাচের জন্য প্রাথমিকভাবে নিষিদ্ধ করা হয়েছে বলে জানানো হয়। কিন্তু সেটি পরে এক ম্যাচে নেমে আসে। ব্রাজিল ফুটবল কনফেডারেশন ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এই রায়ের বিরুদ্ধে আবেদন করতে পারবে।
নেইমারের দুটো হলুদ কার্ড নিয়েই ব্রাজিলের তরফে প্রশ্ন আছে। পেরুর বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে তাঁকে হলুদ কার্ড দেখানো হয় ফ্রি কিকের সময় রেফারির দেওয়া ভ্যানিশিং স্প্রের দাগ হাত দিয়ে মুছে ফেলায়। কলম্বিয়ার বিপক্ষে পরের ম্যাচে ‘ইচ্ছাকৃত’ হ্যান্ডবলের জন্য দেখেন দ্বিতীয় হলুদ কার্ড। নেইমার লাল কার্ডটি দেখেছেন গতকাল কলম্বিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ শেষে।
রেফারি শেষ বাঁশি বাজানোর পরেও নেইমার জোরে কিক নিয়েছিলেন। সেই বল গিয়ে লাগে কলম্বিয়ার পাবলো আরমেরোর গায়ে। মাটিতে লুটিয়ে পড়েন সেই খেলোয়াড়। সঙ্গে সঙ্গে কলম্বিয়ার খেলোয়াড়ের ঘিরে ধরে নেইমারকে। পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। কলম্বিয়ার বাক্কা নেইমারকে সজোরে ধাক্কাও দেন। নেইমার ঢুস বাগিয়ে এগিয়ে যান জেইসর মুরিলোর দিকে। পরিস্থিতি শান্ত করতে নেইমার আর বাক্কা দুজনকেই লাল কার্ড দেখান রেফারি।

কনমেবলের শৃঙ্খলা কমিটির সদস্য সিয়াও রোচা ব্যাখ্যা করেছেন, কেন এক ম্যাচ নিষিদ্ধ হবেন নেইমার, ‘তাত্ত্বিকভাবে নেইমারকে এক ম্যাচে নিষিদ্ধ করা যেতে পারে। আসলে গতকা​লকেরটিসহ টুর্নামেন্টে যে দুটো হলুদ কার্ড সে দেখেছে, সেটাও বহাল থাকবে কিনা এ ব্যাপারে আইনে পরিষ্কার কোনো ব্যাখ্যা নেই। তবে ট্রাইব্যুনাল যদি মনে করে, লাল কার্ডটি দেখানোর কারণে আগের দুটো হলুদ কার্ডের শাস্তি আপনা থেকেই অকার্যকর হয়ে গেছে, স্বাভাবিকভাবেই নেইমারের নিষেধাজ্ঞা এক ম্যাচের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে।’
সে ক্ষেত্রে ভেনেজুয়েলার বিপক্ষে গ্রুপ পর্বের শেষ গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে তাঁকে ছাড়াই খেলতে হবে ব্রাজিলকে। তবে শাস্তির মাত্রা বাড়লে নকআউট পর্বেও খেলতে পারবেন না নেইমার।
এর আগে রেফারির কড়া সমালোচনা করেছিলেন ব্রাজিলের ফুলব্যাক দানি আলভেস। এবার নেইমারও তাঁর প্রতিক্রিয়ায় বললেন, ‘জানি না সব সময় কেন নিয়মগুলো আমার বিরুদ্ধেই যায়। বলটা আমি ইচ্ছা করে হাতে লাগাইনি, ভারসাম্য হারিয়ে ফেলায় এসে লেগেছিল। এই ম্যাচে এমন একজন রেফারিকে রাখা হয়েছিল যিনি এসব অহেতুক কারণে বাঁশি বাজিয়ে গেছেন। অবশ্য দলও ভালো খেলেনি।’ সূত্র: ইএসপিএন।

[icon name=”*”]

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button