খেলাধুলা

মুস্তাফিজের আরও একটি রেকর্ড

স্পোর্টস ডেস্ক,ডেইলি টাইমস ২৪: কেবল উইকেটের কারণেই নয়, নিজের বয়সের কারণেও একটি রেকর্ড করেছেন মুস্তাফিজুর রহমান। সবচেয়ে কম বয়সী বোলারদের মধ্যে পাঁচ উইকেট নেওয়াদের তালিকায় সপ্তম অবস্থানে আছেন মুস্তাফিজুর রহমান। মুস্তাফিজুর রহমানের এই কীর্তি নিয়ে একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে Cricket.com.au।

বিস্ময়কর হলেও সত্যি যে, এই তালিকায় প্রথম সাত জনের মধ্যে তিনজনই বাংলাদেশী। বাকী দুইজন হলেন তাসকিন আহমেদ ও আফতাব আহমেদ। বাকী চারজনই পাকিস্তানী বোলার। এরা হলেন- ওয়াসিম আকরাম, ওয়াকার ইউনুস, আকিব জাভেদ, ওমর গুল। এই বিবেচনায় প্রথম ম্যাচেই সেরা বোলারদের কাতারে নাম লেখাতে পারলেন মুস্তাফিজুর রহমান।

এই তালিকায় নাম লেখানদের মধ্যে একমাত্র আফতাব আহমেদই নিজের ক্যারিয়ারের সেরাটা না দেখেই খেলুড়ে জীবনকে বিদায় জানিয়েছেন। বাকী সবাই ক্যারিয়ারের লম্বা পথ পাড়ি দিয়ে নিজেদেরকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন কালজয়ী হিসেবে। একারণেই বলা যায়, বাংলাদেশের নতুন আবিষ্কার মুস্তাফিজুরও হয়তো নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করবেন কালজয়ী বোলার হিসেবেই।

এই তালিকায় নাম লেখান উমর গুলকে বলা হয়, টি২০ ফরম্যাটে সবচেয়ে কার্যকরী বোলার। তিনি ২০০৭ ও ২০০৯ টি২০ বিশ্বকাপে সেরা বোলার নির্বাচিত হয়েছিলেন। দুই টুর্নামেন্টেই সবচেয়ে বেশি উইকেট শিকার করেছিলেন তিনি। এই ফরম্যাটে উমর গুল এখনও পর্যন্ত দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী।

একই তালিকায় নাম লেখান আরেকজন হচ্ছেন ওয়াসিম আকরাম। পেস বোলিংয়ে ওয়াসিম আকরামের কীর্তির কথা দ্বিতীয়বার বলতে হয় না। ওয়াসিম আকরামকে বলা হয় সর্বকালের সেরা বা হাতি পেসবোলার। উইজডেন ক্রিকেটার্সের ১৫০ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে প্রকাশিত সর্বকালের সেরা টেস্ট একাদশে ওয়াসিম আকরামের নাম রাখা হয়। ওয়াসিম আকরাম বিশ্বের প্রথম বোলার যিনি ৫০০টি উইকেট শিকার করেছেন। ওয়াসিম আকরামের মতোই মুস্তাফিজুর রহমানও বাঁ হাতি পেসার।

কম বয়সে পাঁচ উইকেট নেওয়া বোলারদের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা বোলার হলেন পাকিস্তানের ওয়াকার ইউনুস। তিনিও নিজের ওয়ান ডে ক্যারিয়ারে চার শ`য়ের বেশি উইকেট নিয়েছেন।

এই তালিকায় সামনের সারিতে অবস্থান করা তাসকিন আহমেদ শুরুটা যেমন স্বপ্ন দিয়ে করেছিলেন, তা এখনও এগিয়ে নিয়ে চলছেন। এই তালিকায় সামনের সারিতে অবস্থান করা খেলোয়াড়দের ইতিহাসই বলে দেয়; মুস্তাফিজ-তাসকিনদের সামনে কত উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ অপেক্ষা করছে।

ইন্ডিয়ার বিরুদ্ধে অভিষেক ম্যাচে মুস্তাফিজুর রহমান অবশ্য একটি রেকর্ড করার সুযোগও হারিয়েছেন। প্রথম ম্যাচে ছয় উইকেট নেওয়া দ্বিতীয় বোলার হিসেবে নাম লেখাতেন তিনি। মোহিত শর্মা ফিরতে একটি ক্যাচ ধরতে ব্যর্থ হয়ে রেকর্ড করার এই সুযোগটা হারান তিনি।

[icon name=”*”]

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button