রাজনীতি

অস্ত্র মামলায় ছাত্রলীগ নেতা রনির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র

ঢাকা, ২০ জুন, (ডেইলি টাইমস ২৪):

চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নূরুল আজিম রনির বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে দায়ের হওয়া মামলায় আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেছে পুলিশ। রোববার চট্টগ্রামের চতুর্থ বিচারিক হাকিম শহীদুল্লাহ কায়সারের আদালতে অভিযোগপত্রটি দাখিল করা হয়।

আদালত অভিযোগপত্র সিন করে পরবর্তী কার্যক্রম শুরুর জন্য সেটি জেলা ও দায়রা জজ আদালতে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।

অভিযোগপত্রে শুধুমাত্র নূরুল আজিম রনিকে আসামি করা হয়েছে এবং ২২ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম আদালতের পুলিশ পরিদর্শক মো. মশিউর রহমান।

তিনি জানান, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে অভিযোগপত্রটি জেলা আদালতের সাধারণ নিবন্ধন শাখায় জমা দেন অস্ত্র মামলার তদন্ত কর্মকর্তা হাটহাজারী থানার উপ-পরিদর্শক (এস আই) দেলোয়ার হোসেন। রোববার সেটি আদালতে উপস্থাপন করা হয়েছে।

গত ৭ মে বেলা সোয়া ১২টার দিকে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন চলাকালে হাটহাজারী উপজেলার মির্জাপুর থেকে রনিকে আটক করে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। এরপর প্রভাব বিস্তারের দায়ে দুই বছরের কারাদণ্ড দেন নির্বাচনে দায়িত্বরত জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হারুনুর রশিদ। এছাড়া অস্ত্র আইনে তার বিরুদ্ধে মামলাও দায়ের করা হয়।

গত ২৫ মে দুই বছরের কারাদণ্ডাদেশের বিরুদ্ধে করা আপিল মামলায় রনির জামিন দেন চট্টগ্রাম জেলা ও দায়রা জজ আদালত। তবে অস্ত্র মামলায় জামিন নামঞ্জুর করেন।

এরপর রনির পক্ষে হাইকোর্টে জামিনের আবেদন জানানো হলে গত ১৩ জুন ছয় মাসের জন্য জামিন দেন আদালত। তবে জামিন আদেশ এখনও চট্টগ্রাম কারাগারে এসে পৌঁছেনি।

রনির আইনজীবী অ্যাডভোকেট রনি কুমার দে বলেন, যেহেতু জামিন আদেশ আসার আগেই আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল হয়েছে সেক্ষেত্রে রনির মুক্ত হবার সুযোগ নেই। এক্ষেত্রে আবারও জামিনের আবেদন করতে হবে।

গত ৭ মে আটকের সময় রনির কাছে একটি নাইন এমএম পিস্তল, ১৫ রাউন্ড গুলি ও ২৬ হাজার টাকা পাওয়া যায় বলে সংবাদমাধ্যমকে তথ্য দিয়েছিল বিজিবি। এসময় রনিসহ নয়জনকে আটক করা হলেও অস্ত্র মামলায় শুধুমাত্র রনিকেই আসামি করে পুলিশ।

নূরুল আজিম রনি চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর অনুসারী হিসেবে রাজনীতিতে পরিচিত।

 

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button