আন্তর্জাতিক

বিশ্বের সবচেয়ে সস্তা দেশ ভারত

ঢাকা, ২৩ জুন, (ডেইলি টাইমস ২৪):

নতুন এক জরিপে জীবনযাত্রার ব্যয়ের দিক থেকে বিশ্বের সবচেয়ে সস্তা দেশগুলোর তালিকার শীর্ষে স্থান করে নিয়েছে ভারত। উপমহাদেশের অপর দুই সস্তা দেশ- পাকিস্তান ও নেপালকে পেছনে ফেলে ভারত শীর্ষস্থানে উঠে এসেছে। খাদ্য, বস্ত্র এবং টুথপেস্টের মতো নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য ভারতে তুলনামূলকভাবে অনেক কম। আর তা ছাড়া নয়া দিল্লি, মুম্বাই ও ব্যাঙ্গালুরুর মতো শহরগুলোতে কর্মজীবীদের বেতন-ভাতাও ভালো। ফলে বিশ্বের আর যেকোনো দেশের তুলনায় জীবন যাত্রার ব্যয়ের দিকে থেকে ভারত বেশ সস্তাই বটে। তথাপি, ভারতে সস্তায় জীবনযাপনের বিষয়টি নির্ভর করে, কারো ‘সামাজিক স্ট্যাটাসের ওপর’। রিয়েল এস্টেট বা আন্তর্জাতিকভাবে আমদানিকৃত পণ্যের ক্ষেত্রে এই সস্তার বিষয়টি প্রয়োগযোগ্য নয়। যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি (এমআইটি)-র অর্থনীতির অধ্যাপক অভিজিত ব্যানার্জি বলেন, ”ভারতের রয়েছে বিশাল আভ্যন্তরীণ ভোক্তা বাজার। ফলে আভ্যন্তরীণভাবে উৎপাদিত দ্রব্যাদি খুব অল্প দামেই পাওয়া যায়।”

”আন্তর্জতিকভাবে বাণিজ্য হয় না এমন পণ্যের দাম ভারতে সত্যিই খুব কম। যেমন, একটি মোটামুটি মানসম্পন্ন রেস্টুরেন্টে খুব অল্প খরচেই খাওয়া-দাওয়া সেরে নেওয়া যায়।” ”আর ভারতের রয়েছে এক বিশাল জনসংখ্যা। ফলে দেশটির মানুষরা খুব অল্প মজুরিতেই কাজ করতে আগ্রহী থাকে। যার ফলে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যও কম থাকে।” জরিপের তথ্যানুযায়ী ভারতে একটি বিয়ারের দাম পড়ে গড়ে ৯৪ রুপি, একটি বাস টিকিটের দাম ১৫ রুপি, এক লিটার পেট্রলের দাম ৬৭ রুপি এবং শহরে একটি অ্যাপার্টমেন্টের গড় ভাড়া পড়ে মাসে ১১ হাজার ৬০০ রুপি। এ ছাড়া ভারতে উৎপাদিত সফটওয়্যার, আইটি সার্ভিস এবং কৃষি পণ্য- ধান ও গম- বিশ্ববাজারে ভালোই বিকোয়। ফলে দেশটির রপ্তানি আয়ও ভালো যা শ্রমিকদের উচ্চ মজুরি দানে সহায়ক হিসেবে কাজ করে। আর গত ১৫ বছরে দেশটিতে দারিদ্র্যও লাঘব হয়েছে প্রায় অর্ধেক।

তবে, অধ্যাপক ব্যানার্জির মতে, ভারতে সস্তায় জীবনযাপনের বিষয়টি নির্ভর করছে কারো ব্যক্তিগত রুচির ওপর। অর্থাৎ সস্তায় জীবনযাপন করতে হলে নিম্নমানের জীবনযাত্রায় অভ্যস্ত হতে হবে। যেমন ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় আবাসন ও যাতায়াতের ক্ষেত্রে নিম্নমানের পরিবহন ব্যবহার করতে হবে। দিল্লির কর্মস্থলের পাশের কোনো অ্যাপার্টমেন্টে থাকতে চাইলে যুক্তরাষ্ট্রের বোস্টনের মতোই উচ্চহারে ভাড়া গুনতে হবে। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণা মতে, উত্তর-পূর্ব ভারতের বিহার প্রদেশটি পুরো দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে দরিদ্রতম অঞ্চল। এ ধরনের দরিদ্র অঞ্চলে স্বাস্থ্যসেবার খরচ অনেক বেশি, যা সবার পক্ষে বহন করা সম্ভব নয়। বিশ্বব্যাংকের হিসেব মতে, গত বছর শুধু স্বাস্থ্যসেবার খরচ মেটাতে গিয়ে ৩ কোটি ৯০ লাখ ভারতীয় চরম দারিদ্র্য বরণ করে নিয়েছে।

গবেষণায়, বিশ্বের ৫ হাজার ৮৭৫টি শহরের ৩০ লাখ পণ্যের মূল্য খতিয়ে দেখা হয়। বাসের টিকেট থেকে শুরু করে, রেস্টুরেন্টের খাবার, অ্যাপার্টমেন্ট, পোশাক-আশাক, সুপারমার্কেট, ইন্টারনেট ও ফোন বিল এবং এমনকি বিনোদন ও অবসর তৎপরতার খরচও খতিয়ে দেখা হয় এতে। জীবনযাপনের ব্যয়ের দিক থেকে সবচেয়ে সস্তা দেশের তালিকায় ভারতের পরে যে দেশগুলোর নাম রয়েছে সেগুলো হলো মলদোভা, পাকিস্তান, কাজাখস্তান, নেপাল, ইউক্রেন, জর্জিয়া, আলজেরিয়া, আজারবাইজান ও কলাম্বিয়া।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button