রাজনীতি

খালেদা জিয়া মিথ্যাচার করে রমজানের পবিত্রতা নষ্ট করছেন

ঢাকা, ২৪ জুন, (ডেইলি টাইমস ২৪):

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া গুপ্তহত্যাকারীদের রক্ষা করার জন্য সরকারের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করে রমজান মাসের পবিত্রতা নষ্ট করছেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ।

শুক্রবার সকালে মাহবুব উল আলম হানিফের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের একটি প্রতিনিধি দল রাজধানীর রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনে যায়। সেখানে উপস্থিত সাংবাদিকদের তিনি এ সব কথা বলেন।

মাহবুব উল আলম হানিফ বলেন, গুপ্তহত্যাকারীদের রক্ষা করার জন্য নানান সময় নানান মিথ্যাচার করে যাচ্ছেন খালেদা জিয়া। সরকারের বিরুদ্ধে মিথ্যা কথা বলছেন। মিথ্যাচার করে রোজার পবিত্রতা নষ্ট করছেন।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়া গুপ্তহত্যাকারীদের যে রক্ষা করছেন, সেটা প্রমাণিত। খালেদার মুখে দেশপ্রেম মানায় না। উনি যখন রাষ্ট্র ক্ষমতায় ছিলেন, তখন মানুষ দেখেছে তার দেশপ্রেম। খালেদা জিয়া একাধিকবার প্রধানমন্ত্রী ছিলেন। একজন সাবেক প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তার যে দায়িত্বশীল কথা বলার কথা তা তিনি বলছেন না।

আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, আমরা তাদের (রামকৃষ্ণ মিশন কর্তৃপক্ষ) আশ্বস্ত করেছি, আতঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই। গুপ্তহত্যা বা ভয়ভীতি দেখিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টির চেষ্টা করা হচ্ছে। লক্ষ্য একটাই সরকার অস্থিতিশীল করা। এরা কারা, দু-একজন ধরা পড়ার পরই সেটা পরিষ্কার হয়ে গেছে। একাত্তরের পরাজিত শক্তি বিএনপি-জামায়াত চক্র সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডকে বাধাগ্রস্ত ও পতন ঘটানোর জন্য গুপ্তহত্যাসহ নাশকতার মাধ্যমে জনগণের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টির চেষ্টা করছে।

তিনি জানান, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ও সরকারের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করার জন্য একাত্তরের পরাজিত শক্তি এবং তাদের মিত্ররা সুপরিকল্পিতভাবে নাশকতা করে সরকার অস্থিতিশীল করার চক্রান্ত করছে। এই ধরনের নাশকতামূলক কর্মকাণ্ডের অংশ হিসেবে এই ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে একটি চিঠি এসেছিল। এটা নিয়ে তাদের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছিল। ঘটনার ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এসেছিলেন।

হানিফ বলেন, আমাদের এই আসাটা ধারাবাহিক প্রক্রিয়ার একটা অংশ। এই আসার মাধ্যমে এইটুকু নিশ্চিত করতে চেয়েছি যে, বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষের নিরাপত্তা দেওয়ার দায়িত্ব সরকারের। সেই দায়িত্ব পালনের জন্য আমরা সরকারি দল সক্রিয় আছি, সচেষ্ট আছি। শুধু একদিন এসেই আশ্বস্ত করে যাওয়া নয়, ধারাবাহিকভাবে এটা মনিটরিং করতে চাই। ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের উপরে আর কখনো কেউ যেন গুপ্তহত্যা বা আতঙ্ক সৃষ্টির সুযোগ না পায় সে কারণেই মূলত আসা।

রামকৃষ্ণ মঠ ও রামকৃষ্ণ মিশনের অধ্যক্ষ স্বামী ধ্রুবেশানন্দ বলেন, তারা আমাদের আশ্বস্ত করেছেন ভয় পাবেন না, আতঙ্কিত হবেন না। আমরা আপনাদের পাশে আছি এবং সত্যিই তারা আছেন। মঠ ও মিশনের সব কার্যক্রম স্বাভাবিক রয়েছে।

প্রতিনিধি দলে আরও উপস্থিত ছিলেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও স্থানীয় সাংসদ সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদ, আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক আবদুর রাজ্জাক, কেন্দ্রীয় সদস্য সুজিত রায় নন্দী, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ প্রমুখ।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button