জাতীয়

ভারতীয় ভিসা সহজ করার প্রতিশ্রুতি মরীচিকায় পরিণত

ঢাকা, ২৬ জুন, (ডেইলি টাইমস ২৪): বাংলাদেশীদের জন্য ভারতীয় ভিসা সহজ করার যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল ভারত তা মরীচিকায় পরিণত হয়েছে।

ভারতের দেয়া এ সংক্রান্ত প্রস্তাবে ঘোরতর আপত্তি তুলেছিল গোয়েন্দা সংস্থাগুলো, পশ্চিমবঙ্গ ও আসাম সরকার।

এর ফলে প্রস্তাবটি ‘কোয়াইটলি ড্রপড’ বা চুপিসারে ফেলে রাখা হয়েছে। বিজেপি সরকারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী হওয়ার পর ২০১৪ সালে ঢাকা সফরে আসেন সুষমা স্বরাজ। তখন তিনি বাংলাদেশীদের জন্য ৫ বছর মেয়াদী মাল্টিপল ভিসা দেয়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন। প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছিল বাংলাদেশী ৬৫ বছরের ওপরে ও ১৮ বছরের নিচে যাদের বয়স তাদের ভিসার নিয়মকানুন শিথিল করা হবে। কিন্তু এখনও তা বাস্তবায়ন হয়নি। এ খবর দিয়েছে অনলাইন দ্য হিন্দু।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেছেন, গোয়েন্দা সংস্থাগুলো ওই সময় সতর্ক করে বলেছিল যে, ভারতের এমন উদ্যোগে অনুপ্রবেশ বৃদ্ধি পাবে। এ বিষয়ে চেক অ্যান্ড ব্যালেন্স নীতি অনুসরণ করতে হবে। কোন বাংলাদেশী ভিসার কোন বিধি লঙ্ঘন করছেন কিনা তা সনাক্ত করার জন্য আমাদেরকে সিস্টেম শক্তিশালী করতে হবে। মাল্টিপল ভিসার জন্য প্রতি বছর আমরা ফরেন রিজিওনাল রেজিস্ট্রেশন অফিসে ব্যক্তিগত সাক্ষাতের বিষয়টি নিয়ে আমরা পরিকল্পনা করছি। এ বিষয়টি এরই মধ্যে ঘোষণা করেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। তাই এটা বাস্তবায়ন করতে হবে। এ উদ্যোগ বাস্তবায়নের জন্য এরই মধ্যে চিঠি লিখেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশন। স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিরেন রিজিজু দ্য হিন্দুকে বলেছেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে দ্রুতই একটি সিদ্ধান্ত নেবে।

উল্লেখ্য, ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বাংলাদেশের ৬৫ বছরের বেশি বয়সী ও ১৮ বছরের কম বয়সী নাগরিকদের ভিসামুক্ত প্রবেশের সুবিধা দেয়ার কথা ঘোষণা করেছে। পৌঁছামাত্র ইলেকট্রনিক টুরিস্ট ভিসা দেয়ার কথা বলা হয়েছে ১৫০টি দেশকে। এর মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশ। ৫ বছর মেয়াদী মাল্টিপল ভিসা, ৬৫ বছরের ওপরে ও ১৮ বছরের নিচের নাগরিকদের ভিসামুক্ত প্রবেশÑএ দুটি প্রস্তাবেই গোয়েন্দা সংস্থাগুলো ঘোরতর বিরোধিতায় তা চুপিসারে ফেলে রাখা হয়েছে।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button