প্রবাসের খবর

বিশ্ব জয় করল বাংলাদেশি জামাই

ঢাকা, ২৭ জুন, (ডেইলি টাইমস ২৪):

ফ্রান্সের সবচেয়ে মূল্যবান ও ঝুকিপূর্ণ খেলা কাননি কাইয়াক চ্যাম্পিয়ন হলেন দ্যনি গার্জ শানু। ফ্রান্সের রানী খ্যাত শহর মারসাই এর বাসিন্দা তিনি। এ খেলায় বিশ্বের নামিদামি অনেক খেলোয়াড়কে পেছনে ফেলে তিনি ফ্রান্সের চ্যাম্পিয়নই শুধু নন অলিম্পিকসহ ওয়াল্ড চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন।  বাংলাদেশি মেয়ে নুসরাত এর সাথে ফরাসি নাগরিক দ্যনির প্রথমে প্রেম হয় এবং পরে ২০১১ সালে তাদের বিয়ে হয়। নুসরাত এর দেশের বাড়ি বাংলাদেশের হবিগঞ্জের জেলায়। নুসরাত এর বাবা দীর্ঘ ৩০ বছর থেকে ফ্রান্সের মারসাই শহরে বাস করছেন। দ্যনি এক কথায় বাংলাদেশের জামাই। মারসাইয়ে দ্যনি’র শ্বশুর কবির সাহেবের সঙ্গে এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনায় উঠে আসে অনেক বিষয়। শুধু মেয়ের জামাই নয় এখন নিজের ছেলেও এ খেলায় নাম লিখিয়েছে।  কিভাবে এ খেলায় ছেলে আসল জানতে চাইলে দ্যনি’র শ্বশুর কবির বলেন, দ্যনি গার্জ এর হাত ধরে ঝুকিপূর্ণ এ খেলায় নাম লিখিয়েছে ছোট ছেলে ম্যাক্সিম কবীর। ১৪ বছর বয়সী ম্যাক্সিম আগামী বছর ফ্রান্সের জাতীয় দলে খেলবে বলে জানান তিনি। জাতীয় দলে ঢোকার পর মারসাই থেকে অন্য শহরে চলে যাবে ম্যাক্সিম। ম্যাক্সিম বর্তমানে কলেজের শেষবর্ষে অধ্যায়ন করছে। আগামী বছর চুড়ান্ত পরীক্ষা দিয়ে বাংলাদেশের উচ্চমাধ্যমিক সমমানের ব্যাক লেভেলে পড়বে।  একজন বাবা হিসেবে তার অনুভূতি কি জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা খুব ঝুকিপূর্ণ খেলা। যখন তারা ছোট্ট আকারের সাত কেজি ওজনের নৌকা নিয়ে উত্তাল পানিতে প্রতিযোগিতায় নামে সে সময় প্রতিটি মুহুর্ত শঙ্কায় কাটে। কারণ মনে হয় এই বুঝি পানির ঢেউ নৌকাটি উল্টে দিল। যদিও বা প্রতিটি মোড়েই থাকে বিশেষ নিরাপত্তা বাহিনী। খেলাটি ঝুকিপূর্ণ হয়েও মেয়ের জামাইয়ের সাফল্য ও সে পথে নিজের সন্তানের পদচারণা তাকে অন্য রকম একটা অনুভূতি দেয়। একজন গর্বিত পিতা হিসেবে তিনি চান তার ছেলেও পাশাপাশি ফ্রান্স প্রবাসী বাংলাদেশিদের সন্তানেরাও এ খেলায় এগিয়ে আসুক। খেলাটি ব্যয়বহুল হলেও সফলতা ধরা দিলে অর্থবিত্ত ও সম্মান সবই আসে।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button