বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

‘এডিপি বাস্তবায়নে আইসিটি ডিভিশনের রেকর্ড সাফল্য’

ঢাকা, ২৯ জুন, (ডেইলি টাইমস ২৪):

বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি) বাস্তবায়নে রেকর্ড সাফল্য দেখিয়েছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে প্রায় ১২১ শতাংশ এডিপি বাস্তবায়ন করে সরকারের মন্ত্রণালয় ও বিভাগের মধ্যে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে।

মঙ্গলবার আইসিটি ডিভিশনের সম্মেলন কক্ষে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এডিপি পর্যালোচনা সভায় জানানো হয়, ২০১৫-১৬ অর্থবছরে এ বিভাগের এডিপি বাস্তবায়নের হার দাঁড়িয়েছে ১২০.৫৫ শতাংশ। যা তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের পূববর্তী অর্থবছরের চেয়ে ১৯ শতাংশ বেশি। ২০১৪-১৫ অর্থ বছরে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের এডিপি বাস্তবায়নের হার ছিল ১০২ শতাংশ।

আইসিটি ডিভিশনের একজন উর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, ২০১৫-১৬ অর্থ বছরে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের ৯টি প্রকল্পে সংশোধিত বরাদ্দের পরিমান ছিল ৯শ’ ৫৪ কোটি টাকা। এ সময়ে অর্থ ব্যয় হয়েছে ১১শ’ ৫০ কোটি ১২ লাখ টাকা বা ১২০.৫৫ শতাংশ।

তিনি জানান, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অধীনস্থ চারটি সংস্থার মধ্যে বিদায়ী অর্থবছরে (২০১৫-১৬) বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) সংশোধিত বাজেটে নির্ধারিত বরাদ্দের অতিরিক্ত ব্যয় করে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে। বিসিসির ৪টি প্রকল্পে সংশোধিত বাজেটে বরাদ্দ ছিল ৪শ’ ৪৮কোটি ২১ লাখ টাকা। ব্যয় করে ৬শ’ ৭৯ কোটি ৮৫ লাখ টাকা। সংস্থাটির এডিপি বাস্তবায়নের এই হার ১৫১ শতাংশ। অন্য সংস্থার মধ্যে বাংলাদেশ হাইটেক কর্তৃপক্ষের এডিপি বাস্তবায়নের হার ৮৭.১৫ শতাংশ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তরের ৯৯.১৭ শতাংশ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের ৯৮.৬১ শতাংশ। বিসিসির সাফল্যে খুশী হয়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী সংস্থাটির নির্বাহী পরিচালক এস এম আশরাফুল ইসলামকে একটি ক্রেস্ট উপহার দেন।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের এই অর্জনকে রেকর্ড সাফল্য হিসেবে দেখছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। তিনি বলেন, এডিপি বাস্তবায়নে এই সাফল্যের নেপথ্যে কাজ করেছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা জনাব সজীব ওয়াজেদ জয়ের পরামর্শ ও নির্দেশনা।

২০১৪ সালের ১২ জানুয়ারি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নতুন সরকার দায়িত্ব গ্রহণের পর জনাব সজীব ওয়াজেদ জয় পাঁচ বার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগে আসেন এবং এই বিভাগের প্রতিটি প্রকল্প ও কর্মসূচি পর্যালোচনা করে তা বাস্তবায়নের ব্যাপারে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিয়েছেন এবং তদারকি করেছেন। শুধু তাই নয় মাননীয় উপদেষ্টা আমাদের পরামর্শ দিয়েছেন জনগণের উপকার হয় শুধুমাত্র এমন প্রকল্প ও কর্মসূচি গ্রহণ করতে হবে এবং বৈদেশিক সহায়তার প্রকল্পের ক্ষেত্রে দেশীয় স্বার্থকে বিবেচনায় নিয়ে নেগোশিয়েশন করতে হবে। তাঁর নির্দেশ বাস্তবায়ন ও পরামর্শ গ্রহণে আইসিটি ডিভিশনের প্রত্যেক কর্মকর্তা ও কর্মচারী নিবেদিত প্রাণ হয়ে কাজ  করেছে। যার ফলশ্রতিতে এডিপি বাস্তবায়নে এই সাফল্য।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার জানান, মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের গতিশীল নেতৃত্বের কারণে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ অত্যন্ত গতিশীল। তিনি এডিপি বাস্তবায়ন নিয়ে প্রতিমাসে একবার এবং কোন কোন মাসে দু’বারও সভা করেছেন। বাস্তবয়নের দুর্বলতাগুলো চিহ্নিত করে তা সমাধানের পথ দেখিয়ে দিয়েছেন। এ বিভাগের অধিকাংশ কর্মকর্তা-কর্মচারী অফিসের নির্ধারিত সময়ের অতিরিক্ত কাজ করেন। যে কারণে ২০১৪-১৫ অর্থবছরে এডিপি বাস্তবায়নের হার ছিল ১০২ শতাংশ এবং সদ্য বিদায়ী অর্থবছরে (২০১৫-১৬) এই হার ১২০.৫৫ শতাংশ।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button