আন্তর্জাতিক

নতুন প্রধানমন্ত্রীর পর নতুন মন্ত্রিসভা ব্রিটেনে

ঢাকা, ১৪ জুলাই, (ডেইলি টাইমস ২৪):

 

ব্রেক্সিট ভোটকে কেন্দ্র করে ডেভিড ক্যামেরনের পদত্যাগের পর নতুন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ক্ষমতা গ্রহণ করেছেন টেরেসা মে। মার্গারেট থ্যাচারের পর যুক্তরাজ্যের দ্বিতীয় নারী প্রধানমন্ত্রী হলেন তিনি। গত ছয় বছরের বেশি সময় ধরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন টেরেসা মে।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে দেশটির বেরিয়ে যাওয়া নিয়ে গণভোটে পরাজয়ের পর ডেভিড ক্যামেরনের পদত্যাগের পরই প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন মে। এর পরপরই নতুন মন্ত্রিসভা ঘোষণা করেন তিনি। ব্রিটেনকে ইউরোপ থেকে বের করে নিয়ে আসাটাই তার কাছে সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ বলে উল্লেখ করেন তিনি।

টেরেসা মে ঘোষিত ব্রিটেনের নতুন মন্ত্রিসভায় যারা থাকছেন তারা হলেন:

চ্যান্সেলর
নতুন মন্ত্রিসভার চ্যান্সেলর হয়েছেন ফিলিপ হ্যামন্ড (৬০)। তিনি ২০১৪ থেকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এর আগে তিনি প্রতিরক্ষা ও পরিবহন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন। এর আগে জজ ওসবন ব্রিটিশ চ্যান্সেলর ছিলেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী
নতুন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে লন্ডনের সাবেক মেয়র বরিস জনসনকে (৫২)। ব্রিটেনের ইউরোপীয় ইউনিয়ন ছাড়ার পক্ষের প্রচারণায় নেতৃত্ব দিয়েছিলেন তিনি। এবারই প্রথম মন্ত্রিসভার দায়িত্ব পেলেন তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
ব্রিটেনের নতুন মন্ত্রিসভার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হয়েছেন অ্যাম্বার রুড (৫২)। এর আগে এই পদেই ছিলেন নির্বাচিত নতুন প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে। ডেভিড ক্যামেরনের জ্বালানি ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ছিলেন তিনি।

ব্রেক্সিট বিষয়ক মন্ত্রী
ব্রিটেনের ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার বিষয়ে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য ডেভিড ডেভিসকে (৬৭) ব্রেক্সিট বিষয়ক মন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। কনজারভেটিভ পার্টির বয়োজ্যেষ্ঠ এই এমপি ২০০৫ সালে দলীয় নেতৃত্ব নির্বাচনে ডেভিড ক্যামেরনের কাছে পরাজিত হয়েছিলেন। তবে ব্রেক্সিটের পক্ষে ছিলেন তিনি। আর এই প্রচারণায় তার সরব উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে।

আন্তর্জাতিক বাণিজ্য বিষয়ক মন্ত্রী
আন্তর্জাতিক বাণিজ্য বিষয়ক প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন লিয়েম ফক্স (৫৪)। তিনি ২০১০ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত প্রতিরক্ষামন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি সব সময় ব্রেক্সিটের পক্ষে বেশ সোচ্চার থেকেছেন।

প্রতিরক্ষামন্ত্রী
প্রতিরক্ষামন্ত্রী হিসেবে স্কছম্যান ফ্যালনই (৬৪) দায়িত্ব পালন করবেন। তিনি ২০১৪ সাল থেকেই এই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি কনজারভেটিভ দলের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button