রাজনীতি

সরকারের সদিচ্ছা নিয়ে জনমনে সন্দেহ দেখা দিচ্ছে: গয়েশ্বর

ঢাকা, ১৫ জুলাই, (ডেইলি টাইমস ২৪):

সন্ত্রাস ও উগ্রবাদ প্রতিরোধে সরকারের সদিচ্ছা নিয়ে জনমনে সন্দেহ দেখা দিতে শুরু করেছে বলে মনে করছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। গুলশান ও শোলাকিয়ায় সন্ত্রাসী হামলার পর উগ্রবাদ ঠেকাতে জাতীয় ঐক্যের যে ডাক বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া দিয়েছিলেন তাতে সাড়া না দিয়ে উল্টো সরকারের মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ নেতারা সমালোচনা করায় জনমনে এ সন্দেহ দেখা দিচ্ছে বলে জানান তিনি। এমনকি সরকারের লোকজন এতে জড়িত কি না সে ব্যাপারে মানুষের সন্দেহ তৈরি হয়েছে বলেও মনে করেন তিনি। শুক্রবার (১৫ জুলাই)দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে জাতীয় নাগরিক সংসদ আয়োজিত ‘সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ মোকাবেলায় নিঃশর্ত জাতীয় ঐক্য প্রয়োজন’ শীর্ষক এক মতবিনিময় সভায় গয়েশ্বর চন্দ্র রায় এ কথা বলেন। ক্ষমতাসীনদের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘গুলশানের হলি আর্টিসান বেকারি রেস্টুরেন্টে সন্ত্রাসী হামলার পর সরকারের মন্ত্রী-এমপিদের মুখ বন্ধ ছিল। দুই-তিনদিন জামায়াত-শিবির-বিএনপির নামও বলেনি। ১০ দিন রিহার্সেল দিয়ে মাঠে নামলেন নাসিম-ইনুরা। সবার ভাষা এক ও অভিন্ন। বলতে শুরু করলেন, খালেদা জিয়া জঙ্গিবাদী। মানুষের কাছে এটা চরম বিরক্তিকর, এমনকি যে লোক বিএনপি করে না তার কাছেও বিরক্তিকর।’ প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে গয়েশ্বর রায় বলেন, ‘আপনি কি এই ঘটনা মোকাবেলা করবেন, এ ব্যাপারে আপনার কি কোনো আন্তরিকতা আছে, নাকি এটাকে সামনে রেখে খুঁজে খুঁজে বিরোধী দলের লোকদেরকে নিঃশেষ করবেন? এটা আজ জাতির কাছে সবচেয়ে বড় প্রশ্ন।’ তিনি বলেন, ‘গুলশান ও শোলাকিয়ায় সন্ত্রাসী হামলায় দেশবাসী আজ আতঙ্কিত। জাতির এই দুঃসময়েও সরকারের দাম্ভিকতার শেষ নেই। অথচ ওই ঘটনায় সাধারণ লোক বলেন, এটি একটি নাটক। এটি সরকারই করেছে, কয়দিন পরপরই করবে। আমরা (দেশবাসী) এটি নিয়ে ব্যস্ত থাকব। আর উনি (প্রধানমন্ত্রী) আমৃত্যু রাষ্ট্র পরিচালনা করবেন।’ বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ সদস্য বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী আগাম বলেছেন, আরো ঘটনা ঘটানোর সম্ভাবনা আছে। হ্যাঁ, ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা তো আছে। যদি (আপনি) ঘটান, তাহলে তো ঘটবে। আর সম্ভাবনা যদি সত্যিই থাকে, তাহলে ঘটনা মোকাবেলা করার জন্য আপনি কী উদ্যোগ নিলেন, সেটা তো বললেন না। দেশবাসী তা জানতে চায়।’

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button
Close