খেলাধুলা

পগবাকে রেকর্ড গড়ে কিনতে আত্মবিশ্বাসী ম্যানইউ

ঢাকা, ২০ জুলাই, (ডেইলি টাইমস ২৪):

পল পগবার একটি স্বপ্ন আছে। আর তা জানে সবাই। ফ্রান্সের এই অমিত প্রতিভাবান ফুটবলার পেলে-ম্যারাডোনাকে ছাড়িযে যেতে চান। হতে চান একেবারে অন্যরকম খেলোয়াড়। যে ফুটবলার সব পারে। সেই তার জন্য এত হাহাকার করতে হতো না ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে। যদি তারা ধরে রাখতে পারতো পগবাকে। এখন জুভেন্তাস থেকে পগবাকে ফেরাতে যে কোনো মূল্য দিতে রাজি ওল্ড ট্র্যাফোর্ডের ক্লাবটি। বিশ্ব রেকর্ড ভাঙা মূল্যে পগবাকে আনতে তৈরি তারা। ক্লাবটির সিনিয়র খেলোয়াড়রা মনে করেন, পগবার তাদের সাথে যোগ দেওয়া কেবল সময়ের ব্যাপার। পগবার ট্রান্সফারে কতো টাকা খরচ হতে পারে ইউনাইটেডের? খবর, ভেঙে যেতে পারে ১০০ মিলিয়ন পাউন্ডের দরজা। ফুটবল ইতিহাসে আগে কখনো যা ঘটেনি। ৮৬ মিলিয়ন পাউন্ডের প্রস্তাব। এর সাথে অ্যাপিয়ারেন্স, গোল, ট্রফিসহ নানা খাতের টাকা যোগ হচ্ছে। প্রাথমিক প্রস্তাবেই ভেঙে যায় গ্যারেথ বেলের গড়া ৮৫ মিলিয়ন পাউন্ডের বিশ্ব রেকর্ড। এই মূল্যেই ২০১৩ সালে টটেনহাম থেকে রিয়াল মাদ্রিদ কিনেছিল বেলকে। কিন্তু জুভেন্তাস যে বলছে পগবাকে বিক্রি করবে না! হোসে মরিনহো এখন ইউনাইটেডের কোচ। এবং এই পর্তুগিজ একবার যে গো ধরেন তা করে ছাড়েন। ২৩ বছরের মিডফিল্ডারকে চার বছর পর আবার ইউনাইটেডে ফেরানোর পণ তার। মরিনহোর দল প্রাক মৌসুমের প্রস্তুতিতে এখন চীনে। দলের সাথে ক্লাবের নির্বাহী সহ-সভাপতি এড উডওয়ার্ড যাননি। ইতালিয়ান জায়ান্ট জুভেন্তাস থেকে পগবাকে নিয়ে আসাই তার মিশন। পগবা এখন যুক্তরাষ্ট্র ছুটি কাটাচ্ছেন। গেলো মৌসুমে জুভেন্তাসকে লিগ ও ইতালিয়ান কাপ জেতানোয় তার ছিল বড় ভূমিকা। এই মৌসুমে জুভেন্তাসে বেতনের ২০ শতাংশ বোনাস তার দাবি। ইউনাইটেড কোনো অবস্থায় পিছু হটতে চাচ্ছে না। ২০১৯ পর্যন্ত জুভেন্তাসে পগবার চুক্তি। কিন্তু তাকে আগামী ৫ বছরের জন্য ম্যানইউতে চায় ক্লাবটি। প্রতি সপ্তাহে পগবাকে তারা দেবে ৩ লাখ পাউন্ড বেতন। পগবা ২০০৯ সালে মাত্র ১৬ বছর বয়সে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে যোগ দেন। ২০১২ সালে মূল দলে আসেন। তখনকার কোচ স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসন তাকে তিনটি ম্যাচে বদলী হিসেবে খেলার সুযোগ দিয়েছিলেন। সেটা ভালো লাগেনি পগবার। ইউনাইটেড পগবার সাথে নতুন চুক্তি করতে চাইলেও খেলোয়াড় তার আগেই জুভেন্তাসে সই করে ফেলেন। তা ফার্গুসনদের জানান পরে। ফ্রি ট্রান্সফারে ইংল্যান্ড ছাড়েন পগবা। এখন রেকর্ড ট্রান্সফার ফি ও বেতনে তাকে ফেরানোর লড়াই করতে হচ্ছে ইংল্যান্ডের ইতিহাস সেরা ক্লাবটিকে।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button