অর্থ ও বাণিজ্য

বিশ্বজুড়ে বাড়ছে পাট পণ্যের ব্যবহার

ঢাকা, ২৫ জুলাই, (ডেইলি টাইমস ২৪):

পরিবেশবান্ধব হওয়ায় বিশ্বজুড়ে বাড়ছে পাটের তৈরি পণ্যের ব্যবহার। তবে বাংলাদেশে পাটজাতপণ্য তৈরির জন্য রপ্তানিমূল্যের চেয়ে ১০ শতাংশ বেশি দামে ইয়ার্ন বা সুতা সংগ্রহ করতে হচ্ছে ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের। তাদের অভিযোগ, সিন্ডিকেটের মাধ্যমে এই অবস্থার সৃষ্টি করা হয়েছে। বেসরকারী টেলিভিশন চ্যানেল সময় টিভি এমন তথ্যই জানিয়েছে।

এদিকে, উদ্যোক্তাদের সব ধরনের সহায়তার আশ্বাস দিয়ে বাংলাদেশ জুট মিলস কর্পোরেশন- বিজেএমসি বলছে, এ ব্যাপারে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পরিবেশ সুরক্ষায় বাংলাদেশে পলিথিন ব্যাগের পাশাপাশি নিষিদ্ধ- পলিপ্রোপাইলিন বা পিপি ওভেন ব্যাগ। এসবের পরিবর্তে ব্যবহার করা হচ্ছে পাটের ব্যাগ।

পাটের বাধ্যতামূলক ব্যবহারের পাশাপাশি সৌখিনতা আর নতুন ব্যবসার পরিকল্পনাতেও ঠাঁই করে নিচ্ছে সোনালী এই আঁশ। জুটব্যাগ থেকে শুরু করে ফ্যাশন্যাবল পোশাক, হোম ডেকোর থেকে কর্পোরেট গিফট- এমন অনেক কিছু তৈরি হচ্ছে পাটের আঁশ দিয়ে। পরিবেশবান্ধব বলে বিশ্বজুড়ে বাড়ছে এসব পণ্যের চাহিদা।

তবে সোনালী আঁশের এই বাংলাদেশে, পাটজাত পণ্য তৈরির কাঁচামাল বা ইয়ার্ন পেতে হিমশিম খেতে হচ্ছে দেশিয় উদ্যোক্তাদের।

উদ্যোক্তাদের অভিযোগ, তাদের চেয়ে ১০ শতাংশ কম দামে বাংলাদেশ থেকে পাটের সুতা আমদানি করে বিদেশি উদ্যোক্তারা। তাই বিশ্ববাজারে প্রতিযোগিতায় টিকতে পারছেন না তারা।

বিজেএমসি বলছে, পাটপণ্যের বাজার সম্প্রসারণে মেশিনারিজ আমদানিসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ নিচ্ছেন তারা। যার সুফল পাওয়া যাবে এক বছরের মধ্যে।

পাট ও পাটজাত পণ্যের ব্যবহার বাড়াতে ‘কম্পোজিট জুট টেক্সটাইল এবং গার্মেন্টস ইউনিট’ স্থাপন প্রকল্পের কাজ শুরুর কথা জানালন বিজেএমসির শীর্ষকর্তা।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button