খেলাধুলা

নতুন অস্ত্র ‘বাটার ফ্লাই’ নিয়ে আসছেন রুবেল

ঢাকা, ১ আগস্ট, (ডেইলি টাইমস ২৪):

অভিষেকের পর থেকেই যেন তুঙ্গে রয়েছে মোস্তাফিজুর রহমান। গত এক বছর দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছেন আল-আমিন হোসেনও। নিষেধাজ্ঞা থেকে ফেরার পথেই আছেন দুর্দান্ত গতিসম্পন্ন তাসকিন আহমেদ। আর সব সময়ের সেরা অধিনায়ক মাশরাফিও রয়েছেন দারুণ ছন্দে। তাই ইনজুরি থেকে ফেরার পর জাতীয় দলে জায়গা পেতে বেশ কাঠখড়ই পোড়াতে হবে বলে ভাবছেন রুবেল হোসেন। সে কথা জেনেই নিজের বোলিংয়ে বৈচিত্র্য আনার চেষ্টা করছেন বাংলাদেশের স্পিড স্টার। নিজের নতুন অস্ত্র ‘বাটার ফ্লাই’কে আরও ধারালো করার লক্ষ্যে বেশ কিছুদিন থেকেই চেষ্টা করে যাচ্ছেন রুবেল।

নতুন অস্ত্র ‘বাটার ফ্লাই’র আবিষ্কার আগেই করেছিলেন রুবেল। এখন সেটাকে ঘষামাজা করে আরও ধারালো করে তোলাই লক্ষ্য। সোমবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুশীলন শেষে তার সেই অস্ত্র সম্পর্কে সাংবাদিকদের বিস্তারিত জানান রুবেল। তিনি বলেন, ‘ওটা আসলে আমি অনেকদিন ধরে অনুশীলন করছি। যদিও সেটা আমার জন্য একটু কঠিন হয়ে যায়। তবে এটা নিয়ে কাজ করছি। কিছুদিন পরে স্কিল অনুশীলন শুরু হবে। তখন সেখানে আরও কাজ করার সুযোগ পাবো।’

বিশেষ বলটি কীভাবে করা হয় জানতে চাইলে রুবেল বলেন, ‘এটা হচ্ছে আঙ্গুলের মাঝখানে বল রেখে ডেলিভারি দিতে হয়। বল ছাড়ার পর ক্রিজে পড়েই কিছুটা স্লো হয়ে যাবে। এটা খুব ভালো ডেলিভারি। যদি সফল ডেলিভারি দেওয়া যায়, তবে নিশ্চিত সাফল্য পাওয়া সম্ভব হবে।’

আধুনিক ক্রিকেটে, আধুনিক প্রযুক্তির সাহায্যে প্রতিনিয়ত একজন ক্রিকেটারকে বিশ্লেষণ করা হয়। তাই তাদের বোলিংয়ে নিত্যনতুন বৈচিত্র্য আনতে হয়। তা না পারলে টিকে থাকাই কঠিন হয়ে পড়ে বলে মনে করেন রুবেল।

তিনি বলেন, ‘এটা আমি চেষ্টা করছি। আমার সাইড আর্ম অ্যাকশন তো তাই। এ কারণে এটা একটু কঠিন। চেষ্টা করছি নতুন কিছু আনার জন্য। আমার মূল শক্তি জোরে বল করা। এ কারণে চাই, বোলিংয়ে আরও অতিরিক্ত কিছু যোগ করতে। বোলিংয়ে যদি ভেরিয়েশন আনা যায়, তাহলে আরও ভালো করা সম্ভব।’

তবে নতুন অস্ত্র আনতে গিয়ে নিজের পুরনো অস্ত্রে সামান্য ছাড় দিতে রাজি নন রুবেল। মূলত ইয়র্কার রুবেলের মূল শক্তির জায়গা বলে জানান তিনি। এছাড়া গতিতেও ব্যাটসম্যানকে পরাস্ত করতে পছন্দ করেন তিনি। নিজের গতিতে তেমন হের-ফের হয়নি বলে মনে করছেন এ পেসার।

‘আমার মূল স্ট্যান্থ হচ্ছে আমি জোড়ে বোলিং করতে পারি। ইয়র্কার আমার মূল শক্তির জায়গা। মূলত আমি আমার বোলিংয়ে পেস বাড়ানোর জন্য অনেক কঠিন পরিশ্রম করছি। আগের গতিতে ফিরে আসতে অনেক চেষ্টা করছি। আমার কাছে মনে হয়নি, গতি খুব একটা কমেছে। সর্বশেষ প্রিমিয়ার লিগে সম্ভবত আমার স্বাভাবিক গতিতে বোলিং করেছি।’

বোলাররা নেটে যখন বোলিং করে তখন বাটার ফ্লাই নিয়ে কাজ করেন রুবেল। তবে এক্ষেত্রে কোচের ভূমিকা অনেক বলে মনে করেন তিনি। তাই কোচের প্রয়োজনীয়তাও জানালেন তিনি, ‘বোলিং কোচ খুবই প্রয়োজন। কারণ তারা সঙ্গে থাকলে নতুন নতুন অনেক কিছু শেখার থাকে। আমরা পেশাদার ক্রিকেটার। বিভিন্ন কোচের কাছ থেকে অনেক কিছু শিখেছি। তারপরও নতুন নতুন অনেক কিছু শেখার থাকে।’

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button