বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

মঙ্গলপৃষ্ঠের রেখাগুলো পানিপ্রবাহ দ্বারা তৈরি নয়?

ঢাকা, ০২ আগস্ট, (ডেইলি টাইমস ২৪):

লালগ্রহ মঙ্গল নিয়ে আবারও নতুন বিতর্ক সৃষ্টি হলো। গ্রহটির বেশ কিছু অঞ্চলের মাটিতে যেসব দাগ দেখা যাচ্ছে সেগুলো আসলে পানির স্রোতের কারণে তৈরি হয়েছে কিনা এটাই বিতর্কের বিষয়। নাসার মহাকাশযান ‘মার্স রিকনাইসেন্স অরবিটার’ -এর পাঠানো ছবি দেখে নাসার বিজ্ঞানীরা ধারণা করছেন মঙ্গলের ‘গালি’ এলাকাগুলোতে যে দাগগুলি দেখা যাচ্ছে সম্ভবত সেগুলি পানিপ্রবাহের কারণে সৃষ্টি হয়নি। মঙ্গলের পৃষ্ঠদেশে যে সব এলাকায় একই সঙ্গে তিন রকমের গঠন দেখা যায়, সেই সব এলাকাগুলোকে বলা হয় ‘গালি’। এর আগে বিজ্ঞানীদের ধারণা ছিল, পানির স্রোতের জন্যই ওই দাগগুলি তৈরি হয়েছে। ওই এলাকাগুলির চেহারায় তিন রকমের বৈশিষ্ট্য রয়েছে। উপরের অংশে রয়েছে একটা গুপ্ত কুঠুরি, কোন তরল প্রবাহিত হওয়ার পথ বা চ্যানেল। নীচের স্তরে জমে রয়েছে থিতিয়ে পড়া পদার্থগুলি। অরবিটারের পাঠানো ছবি দেখে বিজ্ঞানীরা অনুমান করছেন কার্বন ডাই-অক্সাইডের বরফই ওই ‘গালি’ এলাকগুলো বানাতে পারে। এই ‘গালি’ ছাড়াও মঙ্গলের পিঠে আরও এক ধরনের এলাকা রয়েছে, যেগুলিকে বলা হয় ‘স্ট্রিক্‌স’। মানে ডোরাকাটা বা আঁকাবাঁকা দাগ। ওই ‘স্ট্রিক্‌স’গুলোকে ‘রেকারিং স্লোপ লাইনি’ (আরএসএল) বলা হয়। ওই ‘স্ট্রিক্‌স’গুলো আসলে ভেজা লবণ দ্বারা সৃষ্। তার মানে কোন কালে ওই ‘স্ট্রিক্‌স’ এলাকায় পানি প্রবাহিত হতো কিংবা এখনও হচ্ছে। ‘এমআরও’-র পাঠানো তথ্যাদির ভিত্তিতে গবেষণাটি চালিয়েছেন মেরিল্যান্ডে জন্স হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাপ্লায়েড ফিজিক্স ল্যাবরেটরির (এপিএল) গবেষকরা। ‘গালি’ এলাকার দাগগুলিকে যে পানির প্রবাহ-পথ বলে মনে করা হয়েছিল নাসার মহাকাশযান ‘এমআরও’-র পাঠানো তথ্যপ্রমাণ সেই ধারণাকে সমর্থন করেনি। বরং কার্বন ডাই-অক্সাইডের বরফই ওই ‘গালি’ এলাকার গঠনে বড় ভূমিকা নিয়েছে বলে বিজ্ঞানীরা মনে করছেন।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button