জাতীয়

করমুক্ত করা হয়েছে ৪৩ বিদ্যুৎকেন্দ্র

ঢাকা, ০৩ আগস্ট, (ডেইলি টাইমস ২৪):

সরকারি ও বেসরকারি উদ্যোগে পরিচালিত ৪৩টি বিদ্যুৎকেন্দ্রের আমদানিকৃত পণ্যমূল্য ও অর্জিত আয়ের আয়কর দেয়া থেকে অব্যহতি দিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

এ অব্যহতি দেয়া দিয়ে সম্প্রতি এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান স্বাক্ষরিত একটি পরিপত্র জারি করা হয়েছে। এনবিআর সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়।

সূত্রটি জানায়, এ সংক্রান্ত একটি পরিপত্র গত ২৮ জুলাই এক আদেশের মাধ্যমে জারি করা হয়। সেই আদেশে বলা হয়েছে, ‘যে সব বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী কোম্পানি, সরকারের সঙ্গে যৌথ মালিকানায় বা অংশীদারিত্বে প্রতিষ্ঠিত এবং কর অব্যহতিপ্রাপ্ত, সে সব কোম্পানিকে তাদের নামে আমদানিকৃত পণ্য সামগ্রীর বিপরীতে ঠিকাদারকে পরিশোধযোগ্য মূল্যের ওপর ও অর্জিত আয় হতে উৎসে আয়কর দেয়া হতে অব্যহতি দেয়া হয়েছে।’

এনবিআর সূত্র আরো জানায়, ২০০৯ সাল পর্যন্ত সরকারি ও বেসরকারি উদ্যোগে পরিচালিত মোট ৪৩টি বিদ্যুৎকেন্দ্র চালু হয়েছে। এর মধ্যে সরকারি উদ্যোগে পরিচালিত ১৮টি বিদ্যুৎকেন্দ্রের উৎপাদন ক্ষমতা ৩৮২৪ মেগাওয়াট এবং বেসরকারি উদ্যোগে স্থাপিত ২৫টি বিদ্যুৎকেন্দ্রের উৎপাদনক্ষমতা ২১০৪ মেগাওয়াট।

তবে এসব কেন্দ্র থেকে প্রকৃতপক্ষে উৎপাদনক্ষমতার সমপরিমাণ বিদ্যুৎ উৎপাদিত হয় না। পিক আওয়ারে সরকারি বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলো থেকে সর্বোচ্চ ৩৩৩১ এবং বেসরকারি বিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলো থেকে ২০৪৫ মেগাওয়াটসহ মোট সর্বোচ্চ ৫৩৭৬ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদিত হয়। আর এসব বিদ্যুৎকেন্দ্রেকেই কর অব্যহতি সুবিধা দেয়া হলো।

স্বাধীনতা লাভের পরপর বাংলাদেশে মোট ১১টি ইউনিটবিশিষ্ট ৭টি বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র ছিল। তবে নব্বই দশকের মাঝামাঝি থেকে শিল্প-কারখানাগুলোতে নিজস্ব বিদ্যুৎ উৎপাদন ব্যবস্থা গড়ে তুলতে উৎসাহিত করতে প্রাইভেট পাওয়ার কোম্পানিগুলিকে নির্দিষ্ট শর্তে বিদ্যুৎ উৎপাদন করে জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করার অনুমতি দেয়া হয়েছে।

এ নীতির সুযোগ নিয়ে ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি বেসরকারি কোম্পানি বার্জ মাউন্টেড বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করেছে। এগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কেন্দ্রগুলো বাঘাবাড়ি, হরিপুর, খুলনা, ময়মনসিংহ ও মেঘনাঘাটে অবস্থিত।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button