রাজনীতি

খালেদা জিয়ার সঙ্গে ঐক্য করতে যাইনি: কাদের সিদ্দিকী

ঢাকা, ০৫ আগস্ট, (ডেইলি টাইমস ২৪): কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি কাদের সিদ্দিকী বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে কোনো ঐক্য করতে যায়নি।  দেশের চলমান পরিস্থিতি নিয়ে আলাপ-আলোচনা করতে তার বাসভবনে গিয়েছি। খালেদা জিয়াকে বলেছি জামায়াতকে সঙ্গে নিয়ে রাজনীতি করা যায় না। জাতির নেতৃত্ব দিতে চাইলে এখনি ঘোষণা দিতে হবে তার জোটে জামায়াত নেই।

শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর মতিঝিলে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে স্ত্রী নাসরিন সিদ্দিকীর একটি বক্তব্য সংশোধন করে কাদের সিদ্দিকী এ কথা বলেন।

সংবাদ সম্মেলনের শুরুতে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি নাসরিন সিদ্দিকী বলেন, খালেদা জিয়া আমাদের ডেকেছিলেন, কালকে (বৃহস্পতিবার) আমরা গিয়েছিলাম দেশে যাতে জঙ্গি দমন হয়, সে কারণে একটি ঐক্য করতে। আমার স্বামী মুক্তিযুদ্ধ করেছেন, জামায়াতকে নিয়ে তিনি কোনো ঐক্য করবেন না। এটাই উনি বলেছেন। দেশের যে অবস্থা চলছে আমি মনে করি, স্বাধীনতার সপক্ষের শক্তি একত্র হয়ে কাজ করলে জঙ্গি দমন হবে। আর জঙ্গি উত্থান হয়েছে কোত্থেকে, সেটা সরকারকে দেখতে হবে।

এরপর কাদের সিদ্দিকী বলেন, আমার স্ত্রী খুব সহজ-সরল সাদামাটা মানুষ। সে জন্য অনেক কথা কূটনৈতিক বা রাজনৈতিকভাবে চিন্তা করেননি। আমরা খালেদা জিয়ার সঙ্গে কোনো ঐক্য করতে যাইনি। আমরা দেশের পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করতে গিয়েছিলাম।

কাদের সিদ্দিকী আরও বলেন, দেশের চলমান পরিস্থিতিতে সার্বিকভাবে একটি জাতীয় ঐক্য গঠনের প্রচেষ্টা নেওয়া দরকার। সেখানে যেমন জামায়াত থাকবে না, সেখানে তেমনি বঙ্গবন্ধুর সরকারকে উৎখাতের জন্য দেশকে অস্থিতিশীল করার জন্য গণবাহিনীও থাকবে না।

তিনি বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বাংলাদেশের অঙ্গচ্ছেদ হয়। ওই দিন হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করা হয়। সুতরাং বঙ্গবন্ধুর শাহাদাৎ বাষির্কীতে জন্মদিন পালন করা চলবে না; যদি তা আসল জন্মদিনও হয়।

তিনি বলেন, ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন বাংলাদেশের অবিসংবাদিত নেতা। আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেই পর্যায়ে পৌঁছেছেন। তবে খালেদা জিয়াকে বাদ দিয়ে নয়। তাকে বাদ দিয়ে কোনো কিছু করতে গেলে বড় ভুল হয়ে যাবে। এ ধরনের ভুল পাকিস্তানি শাসকরা করেছিল। তারা বঙ্গবন্ধুকে হিসাবের বাইরে রেখেছিল। এ জন্য তাদের চড়া মূল্য দিতে হয়েছে।

জাতীয় ঐক্য’র জন্য শেখ হাসিনাকে ‘যোগ্য নেতা’ আখ্যা দিয়ে বঙ্গবীর বলেন, জাতীয় ঐক্যর ডাক প্রথম দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু বিদেশ থেকে ফিরে তিনি বললেন- জাতীয় ঐক্য হয়ে গেছে। আমি খালেদা জিয়াকে যেমন বলেছি জাতীয় ঐক্য করতে জামায়াত ছাড়ুন, তেমনি শেখ হাসিনাকেও বলছি, জাতীয় ঐক্য করতে গণবাহিনীর ইনুকে ছাড়ুন।

প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, জনগণ ছাড়া জাতীয় ঐক্য হয় না। যেসব দল জনগণের প্রতিনিধিত্ব করে তাদের নিয়ে জাতীয় ঐক্য করুন। যদি তা না পারেন দায়িত্ব গিয়ে খালেদা জিয়ার কাঁধে পড়বে। যদি তিনি সফল হন, নেতা হয়ে যাবেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান বীরপ্রতীক, সহসভাপতি আবদুল্লাহ বীরপ্রতীক প্রমুখ।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button