জাতীয়

ইজতেমায় ১২ হাজার নিরাপত্তাকর্মী

ঢাকা, ১২ জানুয়ারি , (ডেইলি টাইমস ২৪):

মুসলিমদের দ্বিতীয় বৃহত্তম জমায়েত বিশ্ব ইজতেমা মাঠের সার্বিক নিরাপত্তায় এবছর র্যাব-পুলিশসহ ১২ হাজার নিরাপত্তাকর্মী নিয়োজিত আছেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে ইজতেমা চলাকালীন আইনশৃংখলা নিয়ে টঙ্গীর টেলিফোন শিল্প সংস্থা (টেশিস) মাঠে সংবাদ সম্মেলনে গাজীপুর জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ এ তথ্য জানান।

মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ জানান, টঙ্গী ব্রিজ থেকে জয়দেবপুর চৌরাস্তা, মন্নু গেট থেকে কামারপাড়া পর্যন্ত এবং তুরাগ নদসহ পুরো এলাকাকে পাঁচটি সেক্টরে ভাগ করা হয়েছে। প্রতিটি সেক্টরে একজন করে অ্যাডিশনাল এসপিকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। একটি অত্যাধুনিক কন্টোল রুম ও পাঁচটি সাব কন্টোল রুম থেকে সবকিছু তদারকি করা হবে।

তিনি আরও বলেন, এবারের বিশ্ব ইজতেমায় পাঁচ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। থাকবে ইজতেমা মাঠের ভেতরে সাদা পোশাকে পর্যাপ্ত পুলিশ। মোড়ে-মোড়ে, গলিতে-গলিতে চেকপোস্ট করেছি। ইজতেমার প্রবেশ পথগুলোতেও চেকপোস্ট বসানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার থেকেই ইজতেমার চারপাশে ফোর্স মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশ সুপার জানান, বিদেশি খিত্তায় তিনটি আর্চওয়ে স্থাপন করা হয়েছে। গত বছরের চেয়ে বেশি ওয়াচ টাওয়ার স্থাপন করা হয়েছে। সেখান থেকে পুলিশ পর্যবেক্ষণ করছে।

এবারই প্রথম বিশ্ব ইজতেমার চারপাশ এবং বাহিরে সিসি টিভির আওতায় আনা হয়েছে বলে জানান এসপি।

তিনি বলেন, ইজতেমাকে ঘিরে বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে মুসল্লিরা আসছেন। আমাদের দায়িত্ব তাদের সার্বিক নিরাপত্তা বিধান করা।

আগত মুসল্লিদের উদ্দেশে তিনি বলেন, তারা যদি কোনো সমস্যায় পড়েন তবে তারা যেন পুলিশের শরণাপন্ন হন। এসময় নিজেদের সচেতন থাকার পরামর্শ দেন এসপি হারুন অর রশীদ।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button