জেলার সংবাদ

শালিকের মুখে মানুষের ভাষা!

ঢাকা, ২২ জানুয়ারি , (ডেইলি টাইমস ২৪):

পীরগঞ্জ উপজেলার ক্ষিদ্রগড়গাঁও গ্রামের সেলিম রেজার ‘জন’ নামে পোষা শালিক পাখিটি শিশুদের মতো কথা বলতে পারে। “ঐ ছুয়া(ঐ ছেলে), এ মা, এ সোহেল, মামুনি, ভাত দে, কি রে” এই রকম অল্প অল্প করে শালিক পাখির মুখে শিশুর মতো কথা শুনতে প্রতিনিয়তই বিভিন্ন বয়সী মানুষের ভিড় জমে সেলিমের বাড়ির আঙিনায়। দেখতে যাওয়া মানুষদের পাখিটি শুনিয়ে দেয় এমন কথা ও ডাক।

সাধারণত টিয়া বা ময়না পাখি মানুষের মতো কথা বলতে পারে এমনটি জানা অনেকের। কিন্তু বনে জঙ্গলে ঘুরে বেড়ানো শালিক পাখিও যে কথা বলতে পারে- সেলিমের বাড়িতে গিয়ে তার প্রমাণ পাওয়া যায়। বাড়ির সবাই পাখিটিকে ‘জন’ নামে ডাকে। সেও ‘জন’ বলে। সেলিমের বাড়ির লোকজনের নামও পাখিটি বলতে পারে।

খাঁচায় বন্দী জীবন নয়, এ পাখিটি সারাদিন নিজের ইচ্ছে মতো যেখানে সেখানে উড়ে বেড়ায়। সন্ধ্যা হলে আবার বাড়িতে ফিরে আসে। এমনই বলছিলেন পাখিটির পালক সেলিম রেজা। তিনি বলেন, ‘পাখিটি ডিম, মাংস, ভাত, চানাচুর, মুড়ি খায়। আমরা যখন খেতে বসি তখনই উড়ে এসে আমাদের পাশে বসে।’ পাখিটিকে কথা শিখাতে ২ থেকে ৩ মাস লেগেছে বলে জানান তিনি। সেলিম আরও জানান, পাশের হরিপুর উপজেলার এক গাছ থেকে বাচ্চা বয়সে এই পাখিটি তিনি এনেছিলেন সাড়ে তিন বছর আগে। পোষ মানানোর এক পর্যায়ে পাখিটি শিশুদের মতো কথা বলা শুরু করে। এখন পাখিটি তাদের পরিবারের সদস্যের মতোই বলে জানায় সেলিম।

এ শালিকটি এরই মধ্যে অনেকে কিনতে চেয়েছে। তবে সেলিম এ পাখি বিক্রি করবেন না জানান। শালিক পাখিটি এখন সেলিমের পরিবারের সদস্য।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button