জাতীয়

‘হাসিনা-মোদীর নেতৃত্বে নতুন উচ্চতায় ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক’

ঢাকা, ৩০ জানুয়ারি , (ডেইলি টাইমস ২৪):

বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা বলেছেন, ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং ইন্দিরা গান্ধী বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সম্পর্কের একটি শক্তিশালী বীজ বপন করেছিলেন। বর্তমানে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে এই সম্পর্ক আরো নতুন উচ্চতায় পৌঁছে গেছে। আশা করছি আমাদের এই সম্পর্ক চিরদিন অবিচ্ছেদ্য থাকবে।’
রবিবার রাত সাড়ে আটটায় রাজশাহী নগরীর অলোকার মোড়ে চেম্বার ভবনে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।
হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা বলেন, ‘দুই দেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের ফলে টেকসই উন্নয়ন, দায়িত্বপূর্ণ ব্যবসায়িক আচরণ ও ব্যবসায়ের সামাজিক দায়িত্ববোধ নতুন ধারণার ক্ষেত্র তৈরি করেছে এবং ব্যবসার ধরণ পরিবর্তন করে দিচ্ছে। সমগ্র দেশেই ভারতের ব্যবসায়ীদের এখন পদচারণা রয়েছে। সোনামসজিদ স্থলবন্দর, বঙ্গবন্ধু সিলিকন সিটি ও নতুন অর্থনৈতিক জোনকে ঘিরে রাজশাহীর সঙ্গে ভারতের ব্যবসায়ীদের যোগাযোগ আরো বাড়বে।’
অনুষ্ঠানে রাজশাহীর ব্যবসায়ীরা রাজশাহী-কোলকাতা কার্গো বিমান চালু, রাজশাহী-মালদা বাস সার্ভিস চালু ও সোনামসজিদ স্থলবন্দরের জন্য রাজশাহী-চাঁপাইনবাবগঞ্জ মহাসড়ককে দুইলেন করতে ভারতীয় হাই কমিশনারের সহযোগিতা কামনা করেন। পাশাপাশি ভিসা প্রক্রিয়া সহজ করতেও তার দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়। এছাড়া ভিসার ক্ষেত্রে রাজশাহীর ব্যবসায়ীদের বিশেষ সুবিধা দেয়ার জন্য তারা ভারতীয় হাই কমিশনারের কাছে দাবি জানান।
অনুষ্ঠান শেষে তিস্তা পানি চুক্তির বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, ‘বন্ধুত্ব একটি ইস্যুকে কেন্দ্র করে হয় না। বন্ধুত্বের বহু ইস্যু থাকে। আমরা সীমান্ত, সমুদ্র সীমান্ত ও ভারতীয় বাজারে বাংলাদেশি পণ্যের কোটামুক্ত প্রবেশাধিকারসহ নানা বিষয় নিয়ে কাজ করছি, যার মধ্যে তিস্তাও রয়েছে।’
তিনি আরো বলেন, ‘বাংলাদেশের মানুষের জন্য ভারতীয় ভিসা প্রাপ্তি সহজকরণ করতে আমরা সব সময়ই কাজ করছি। ১ ফেব্রুয়ারি থেকে ভারতীয় ভিসা পাওয়ার জন্য ই-টোকেন লাগবে না। রেল, বিমান বা সড়কের টিকিট দিয়েই কোনো ধরনের অ্যাপয়েন্টমেন্ট ছাড়াই ভিসার জন্য আবেদন করা যাবে।’
এর আগে নগর ভবনের সরিৎ দত্তগুপ্ত নগর সভাকক্ষে রাজশাহী মহানগরের সামাজিক, সাংস্কৃতিক, পরিবেশ ও প্রত্নতত্ত্ব অবকাঠামোর উন্নতি সাধনের মাধ্যমে টেকসই উন্নয়ন শীর্ষক প্রকল্পের সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। চুক্তির আওতায় প্রকল্প ব্যয় ধরা হয়েছে ২১ কোটি ৯৫ লাখ ৪৫ হাজার টাকা।
অনুষ্ঠানের সভাপতি রাজশাহী চেম্বারের সভাপতি মনিরুজ্জামান মনি ভারতীয় হাই কমিশনারের হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।
Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button