আন্তর্জাতিক

বিএসএফের কাটা ঘাঁয়ে পাকিস্তানিদের লবণ ছিটা!

ঢাকা,০৫ ফেব্রুয়ারী , (ডেইলি টাইমস ২৪):

খারাপ মানের পচা বাসি খাবার, অফিসারদের দুর্নীতি আর দুর্ব্যবহারের বিরুদ্ধে সোশাল মাধ্যমে ভিডিও আপলোড করে তোলপাড় ফেলে দিয়েছিলেন বিএসএফ জওয়ান তেজ বাহাদুর।

ভারতীয় সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) ২৯ ব্যাটালিয়নের ওই কর্মীর ওই কাণ্ডে বেশ বিব্রত হয়ে পড়ে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ।

এরপর সৈনিকদের ওপর বিধিনিষেধ কিছুটা শিথিল  করা হয়।

কিন্তু এরপর আবার বিএসএফের কাটা ঘাঁয়ের ওপর  নুনের ছিটা দেন তাদেরই আরেক কর্মী। এবার খোঁচাটা মারেন ১৫০ ব্যাটালিয়নের ক্লার্ক নবরতন পাল চৌধুরী।

গান্ধীনগরের ওই ব্যাটালিয়ন ক্লার্ক নবরতন  ৩ মিনিটের এক ভিডিওতে অভিযোগ করেন- বিএসএফ জওয়ানদের জন্য বরাদ্দ মদ বাইরে বিক্রি করে দিচ্ছেন কর্তারা। তাও আবার গুজরাটে- যেই রাজ্যে মদ্যপান-বিক্রি নিষিদ্ধ।

বিষয়টি এত তোলপাড় তোলে যে মুখ খুলতে হয় সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াতকেও। তিনি প্রকাশ্যে এভাবে অভিযোগ জানাতে বারণ করেন নিরাপত্তা বাহিনীর কর্মীদের। তাদের অভিযোগের জন্য খোলা হয়  হোয়াটসআপ অ্যাকাউন্ট।

পরিস্থিতি যখন এমন তখনি চিরশত্রু পাকিস্তানিরা ভারতীয়দের ঘরের অশান্তিতে মজা লোটার সুযোগ পেয়ে যায়। তারা তাদের কাটা ঘায়ে ফের ঘাঁই দিতে শুরু করেছে, সঙ্গে লাবণ তো আছেই।

ভারতীয় মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরে জানা গেছে- পাকিস্তানিরা বিএসএফ সদস্যদের টিটকিরি দিয়ে বলছে, তোদের খাবার না থাকলে আমাদের এখানে এসে খেয়ে যা।

গুজরাট ফ্রন্টিয়ারের এক বিএসএফ কর্মকর্তা বলেন, সীমান্তের ওপাড় থেকে আমাদের জওয়ানদের উদ্দেশ্যে কটাক্ষ উড়ে আসছে।

প্রসঙ্গত, বার্মা সেক্টরে মুখোমুখি পোস্টে আছে ভারত-পাকিস্তানের সীমান্তরক্ষীরা।   এখানে বিএসএফ জওয়ানদের উঠতে বসতে হরদম কটাক্ষ করে  চলেছে পাকিস্তানি সীমান্তরক্ষী রেঞ্জার্স জওয়ানরা।

নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক বিএসএফ কর্মকর্তা বলেন, আমাদের জওয়ানদের ডেকে বলা হয়- খাবার খেতে চাইলে পাকিস্তানি পোস্টে গিয়ে খেয়ে আয়। অনেক খাবার আছে!

বিষয়টি বিএসএফের মনোবলে প্রচণ্ড ধাক্কা দিচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, ভারতীয় জওয়ানদের মনোবল কমাতে আইএসআই সবসময় চেষ্টা চালায়। পাকিস্তানি গুপ্তচর সংস্থা আইএসআইয়ের নির্দেশেই দেশটির সৈনিকরা বিএসএফকে নিয়ে এমন টিটকিরি খেলায় মেতেছে বলে মনে করছেন তিনি।

এ ব্যাপারে পাকিস্তানিদের বক্তব্য জানা যায়নি।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button