আন্তর্জাতিক

২২ বছর ধরে নর্দমার গর্তে থেকেও সুখী তারা

ঢাকা,০৭ ফেব্রুয়ারী , (ডেইলি টাইমস ২৪):

দুনিয়া জুড়ে দুই ধরনের মানুষ রয়েছেন। একদল সব পেয়েও অসুখী। আর আরেকদল কিছু না পেয়েও সুখী। দ্বিতীয় দলের মধ্যে পড়েন ‘কলম্বিয়ার সুখী দম্পতি’। এই দম্পতি নর্দমার গর্তে বাস করছেন। কিন্তু তাও জীবন নিয়ে তাদের কোনো অভিযোগ নেই!
বিশ্বাস করাটা কঠিন, কিন্তু এটাই সত্য, বিগত ২২ বছর ধরে নর্দমার গর্তে বাস করে আসছেন মারিয়া গার্সিয়া ও তার স্বামী মিগুয়েল রেস্ট্রেপো। বিলাসী জীবনযাপনের সামর্থ্য নেই তাদের, স্বপ্নটা পর্যন্ত নেই! আর স্বপ্ন না থাকায় এভাবে বছরের পর বছর দিন গুজরান করেও নিজেদের বেঁচে থাকা নিয়ে অসন্তুষ্ট নন তারা।
কলম্বিয়ার মেডেলিনে প্রথম পরিচয় মারিয়া-মিগুয়েলের। জীবনের ওই সময় তারা মাদকাসক্ত ছিলেন। আর যে এলাকায় এই দুটো মানুষের কাছে আসার ও ভালোবাসার শুরু ওই এলাকাটা সংঘর্ষ-সংঘাত ও মাদক পাচারের জন্য কুখ্যাত।
ওই দিনগুলোতে রাস্তায় থাকতেন তারা এবং মাদকের ছোবলে ধ্বংস হচ্ছিলো তাদের জীবন। মনো-বেদনার ওই দিনগুলোতে পরস্পরের সান্নিধ্যে ভিন্নভাবে বাঁচার প্রেরণা খুঁজে পান দুজন এবং সিদ্ধান্ত নেন মাদক ত্যাগের।
যেহেতু আশ্রয় দেয়ার মতো দুজনের পরিবারের কোনো পরিজন ছিলো না, ছিলো না আর্থিকভাবে সাহায্য করার মতো কোনো বন্ধু সেহেতু ঘর বাঁধার তীর্থ হিসেবে ওই নর্দমার গর্ত-ই বেছে নেন মারিয়া-মিগুয়েল। এখানেই তারা সম্পূর্ণভাবে মাদকের মরণ-নেশা থেকে বেরিয়ে আসেন এবং পরস্পরের মাঝে নতুন জীবনের সন্ধান পান।
কাঠকয়লা-ধুলোময়লার রঙে এই গর্তে ভালো থাকার স্বর্গ এঁকেছেন মারিয়া-মিগুয়েল। এখানে জায়গা অনেক সীমিত, তাও একে খুব প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রে আরাম-আয়েশে রূপ দিয়েছেন। গর্তের মধ্যেই বিদ্যুৎ ও টিভি দেখার ব্যবস্থাও করেছেন তারা।
Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button