আন্তর্জাতিক

ইসলামকে ‘ক্যান্সার’ বলেছিলেন ট্রাম্পের পদত্যাগী নিরাপত্তা উপদেষ্টা

ঢাকা,১৪ ফেব্রুয়ারী , (ডেইলি টাইমস ২৪):

রাশিয়ার সঙ্গে সংযোগ থাকার অভিযোগে সদ্য পদত্যাগী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা মাইকেল ফ্লিন চরম ইসলাম বিদ্বেষী হিসেবে পরিচিত। গত আগস্টে দেয়া এক বিবৃতিতে তিনি বলেছিলেন ইসলাম হচ্ছে ক্যান্সারের মতো।
বারাক ওবামার প্রশাসনে নিরাপত্তা বাহিনীর গোয়েন্দা সংস্থার প্রধান ছিলেন ফ্লিন। কিন্তু ২০১৪ সালে তাকে জোর করে সরিয়ে দেয়া হয় যাকে ফ্লিন ব্যাখ্যা করেন, মৌলবাদী ইসলামি বিরুদ্ধে তার জোরালো অবস্থানের জন্য। গত আগস্টে ডালাসে মুসলিম বিরোধী গ্রুপ অ্যাক্ট ফর আমেরিকা আয়োজিত সমাবেশে ফ্লিন বলেন, ইসলাম হচ্ছে একটি রাজনৈতিক মতাদর্শ যা ধর্মের আড়ালে আত্মগোপন করে আছে। ইসলাম হচ্ছে একটা বর্ধিষ্ণু ক্যান্সার যা ছড়িয়ে পড়ছে।
শুধু তাই নয়, ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে এক টুইটে বলেছিলেন, মুসলিমদের ভয় পাওয়া যৌক্তিক। নিজের লেখা বইয়ে দাবি করেছেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র মৌলবাদী ইসলামের সঙ্গে বিশ্বযুদ্ধে লিপ্ত। তার নিয়োগে শঙ্কা প্রকাশ করেছিল কাউন্সিল অন আমেরিকান-ইসলামিক রিলেশন ফ্লিনের নিয়োগের প্রতিবাদ করেছিল। বর্তমানে তার পদত্যাগকে তারা স্বাগত জানিয়েছে।
সিএআইআর,র নির্বাহী পরিচালক বিবৃতিতে বলেন, আমরা ফ্লিনের পদত্যাগকে স্বাগত জানায়। এবং আমরা আশা করি, হোয়াইট হাউজে কর্মরত গোঁড়া মুসলিম বিরোধী স্টিভ ব্যানন, স্টিফেন মিলার, সেবাস্টিয়ান ও ক্যাথেরিন গোরকাকেও সরিয়ে নেয়া হবে। আমেরিকা নীতি নির্ধারণী পরামর্শ তথ্যের ভিত্তিতে নেয়া উচিত, ভয়ের ভিত্তিতে নয়।
উল্লেখ্য, সোমবার রাশিয়ার সঙ্গে সংযোগ থাকার অভিযোগ ওঠায় পদত্যাগ করেন ফ্লিন। মার্কিন বিচার বিভাগ একটি তদন্ত শেষে জানায়, রাশিয়ার কূটনীতিকের সঙ্গে কি বিষয়ে আলোচনা হয়েছিল তা জানতে চাইলে ফ্লেইন তদন্ত কর্মকর্তাদের বিভ্রান্তিকর উত্তর দেন।
Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button