জেলার সংবাদ

মোরেলগঞ্জে সুপেয় পানির চরম সংকট

ঢাকা,০৪ মে, (ডেইলি টাইমস ২৪):

মোরেলগঞ্জে সুপেয় পানির চরম সংকট বিরাজ করছে। পাণীয়জলের সংকট উত্তরণে বিশেষ কোনো বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে না। মোরেলগঞ্জে ১৬ ইউনিয়ন ও পৌরসভা মিলে ২০১৬-১৭ অর্থবছরে জন প্রতি পানি ও স্যানিটেশন খাতে বরাদ্দ রাখা হয়েছে মাত্র ৩ টাকা। তবে একাধিক ইউনিয়ন পরিষদ এ খাতে এক টাকাও বরাদ্দ রাখা হয়নি।

মোরলগঞ্জ উপজেলায় একটি পৌরসভা, ১৬ ইউনিয়ন, ১৩টি গ্রাম ও ৫০টি হাট বাজারের সমন্বয়ে ৪৪০ বর্গ কিলোমিটার আয়তনে ৪ লাখ মানুষের বসবাস। এ উপজেলায় সরকারিভাবে স্থাপিত নলকূপের সংখ্যা ৪৪ হাজার ৭৩৮টি।  কাগজে-কলমে এতগুলো টিউবওয়েলের কথা বলা হলেও বাস্তবচিত্র ভিন্ন। অতিরিক্ত লবণাক্ততার কারণে এলাকার লোকজন টিউবওয়েল থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে। তাছাড়াও অনেক টিউবওয়েলের পানিতে আর্সেনিকের আতঙ্ক রয়েছে। অধিকাংশ টিউবওয়েল অকেজো। খুচরা যন্ত্রাশ ও তত্ত্বাবধায়নের অভাবে শতকরা ৮০ ভাগ টিউবওয়েল অকেজো। লবণাক্ততার কারণে ৯০ শতাংশ মানুষের জীবন-জীবিকা বিপন্ন। ৭৫ ভাগ পরিবারে সুপেয় পানির অভাব রয়েছে। পানির  লবণাক্ততার কারণে উপজেলার ৫০ ভাগ স্বাস্থ্যগত সমস্যায় ভুগছে।

নিরাপদ পানি দূর-দূরান্তের পুকুর থেকে সংগ্রহ করতে হয়। মোরেলগঞ্জ পৌর সদরে পানি সরবাহের কোনো ব্যবস্থা নেই। পৌর এলাকার অর্ধ লক্ষ লোককে একটি পুকুরের উপর নির্ভর করতে হয়। এলাকার অধিকাংশ মানুষ বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ করে এবং পুকুর ও খালের পানি পান করছে। সরকারি ও বেসরকারিভাবে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে নিরাপদ পানির জন্য পন্ড সেন্ড ফিল্টার স্থাপন করা হলেও অধিকাংশ অকেজো হয়ে পড়ে আছে। উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী দপ্তরের পানি ও স্যানিটেশনের কার্যক্রম এলাকাবাসীর নজরে আসছে না। এ দপ্তরের কার্যক্রম নিয়ে জনমনে নানা প্রশ্ন উঠেছে।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button