জাতীয়

হত্যাকাণ্ডে নাগরীর সম্পৃক্ততা পায়নি পুলিশ

ঢাকা,০৫ মে, (ডেইলি টাইমস ২৪):

ব্যবসায়ী নুরুল ইসলাম হত্যাকাণ্ডে কবি শাহাবুদ্দিন নাগরীর সম্পৃক্ততা পায়নি ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি)। আজ বৃহস্পতিবার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে নুরানী আক্তার সুমি হত্যার দায় স্বীকার করেছেন।

জানা যায়, নুরানী আক্তার জবানবন্দিতে জানান, পাসপোর্ট করা নিয়ে নুরানীর সঙ্গে নুরুল ইসলামের ঝগড়া হয়। নুরানী বিদেশে বেড়াতে যাওয়ার জন্য পাসপোর্ট করতে চেয়েছিলেন। নুরুল ইসলাম সে কাজে সহযোগিতা করছিলেন না। ১৩ এপ্রিল ভোরবেলায় এ নিয়ে দুজনের তুমুল ঝগড়া শুরু হয়। ঝগড়াঝাঁটির একপর্যায়ে তিনি নুরুল ইসলামকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেন। ড্রেসিং টেবিলের কোনায় মাথা লেগে নুরুল ইসলাম পড়ে যান। তখনই তার মৃত্যু হয়। এরপর নুরানী আক্তার মৃতদেহটি খাটের তলায় ঢোকানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু পারেননি। বেলা তিনটার দিকে শাহাবুদ্দিন নাগরী ওই বাড়িতে আসেন। তিনি সোয়া সাতটার দিকে বেরিয়ে যান। নুরানী আক্তার তাকে নুরুল ইসলামের মৃত্যুর খবর দেননি। রাত একটার দিকে শাহাবুদ্দিন নাগরী খবর জানতে পারেন।

ডিবির অতিরিক্ত উপকমিশনার রাজীব আল মাসুদ বলেন, নুরুল ইসলাম হত্যাকাণ্ডের তদন্ত শেষ পর্যায়ে। শিগগিরই অভিযোগপত্র দেওয়া হবে। এখন পর্যন্ত হত্যাকাণ্ডে শাহাবুদ্দিন নাগরীর জড়িত থাকার কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

১৩ এপ্রিল ওই ফ্ল্যাট থেকেই নুরুল ইসলামের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এক দিন পর নুরুল ইসলামের বোন শাহানা রহমান নিউমার্কেট থানায় নুরানী আক্তার ও তার বন্ধু শাহাবুদ্দিন নাগরীকে আসামি করে হত্যা মামলা করেন। গত শুক্রবার মামলাটি ডিবিতে স্থানান্তর করা হয়।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button