খেলাধুলা

২২ বলে সেঞ্চুরি!

ঢাকা,০৬ মে, (ডেইলি টাইমস ২৪):

বর্তমান ক্রিকেটে অনেক গতি চলে এসেছে। আগে ৫০ ওভার খেললে অধিকাংশ দল ২৫০ বা ২৬০ রান করতে পারতো। যেটাকে চ্যালেঞ্জিং স্কোর মনে করা হতো।

কিন্তু এখন ৩০০ বা সাড়ে ৩০০ রানও মামুলি ব্যাপার। এই পরিবর্তনটা এসেছে টি ২০ ক্রিকেটের আবির্ভাবের পর। এটা বলাই যায়।

টি ২০ ক্রিকেটে ব্যাটসম্যানদের বিধ্বংসী ব্যাটিং দেখে ক্রিকেট বিশ্ব। যেখানে ২০ ওভারেও ২০০ বা তারও বেশি রান স্কোর বোর্ডে জমা হয়।

এমন যুগেও ২২ বলে এখনও কেউ সেঞ্চুরি করতে পারেননি। কিন্তু এখন থেকে ৮৬ বছর আগে এই অসাধ্যকে জয় করেন স্যার ডন ব্র্যাডম্যান। তিনি তো ক্রিকেটের ডন। তার পক্ষে সবই সম্ভব!

১৯৩১ সালের ২ নভেম্বর নিউ সাউথ ওয়েলস-এর ব্ল্যাকহিলথ গ্রামে লিথগো দলের বিরুদ্ধে খেলার আমন্ত্রণ পেয়েছিলেন ব্র্যাডম্যান ও তার সতীর্থরা।

তখন ক্রিকেটের প্রাগৈতিহাসিক যুগ। আট বলে এক ওভার ধরা হতো। প্রথম ওভারে ব্র্যাডম্যান নিয়েছিলেন ৩৩ রান। দ্বিতীয় ওভারে নেন ৪০ রান। অর্থাৎ দু’ ওভারে স্যার ডনের রান দাঁড়ায় ৭৩। তৃতীয় ওভারে ৬ বল খেলে তিনি নেন ২৭ রান। মাত্র ২২ বলে সেঞ্চুরি করেন স্যার ডন।

২০১৩ সালে পুণে ওয়ারিয়র্সের বিরুদ্ধে ৩০ বলে সেঞ্চুরি করে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন ‘ক্যারিবিয়ান দৈত্য’ ক্রিস গেইল। আইপিএল-এর দশ বছরের ইতিহাসে এটাই এখনও পর্যন্ত দ্রুততম সেঞ্চুরি।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ২০১৫ বিশ্বকাপে রেকর্ড গড়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার এবি ডিভিলিয়ার্স। ৩১ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন তিনি। এখনও পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ক্রিকেটে এটাই দ্রুততম শতরান।

গেইল, ডি’ ভিলিয়ার্সদের জন্মের বহু আগে ব্র্যাডম্যান করে গিয়েছিলেন অনন্য সেই কীর্তি। যদিও তার সেই বিধ্বংসী ইনিংস রেকর্ড বইয়ের পাতায় স্থান পায়নি। ক্রিকেটভক্তদের হৃদয়ে অবশ্য জায়গা পেয়ে গিয়েছে ব্র্যাডম্যানের সেই ইনিংস।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button