জেলার সংবাদ

স্বামীকে পুলিশ বানাতে ১০ লাখ, তারপরও লাশ চুমকি

ঢাকা,১৫ মে, (ডেইলি টাইমস ২৪):

সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুর থানায় চুমকি রানী ভৌমিককে (২৫)তার পুলিশ কনস্টেবল স্বামী নিরোধ কুমার সরকার মারধর ও শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

রোববার রাতে থানার ভাঙ্গাবাড়ি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সোমবার সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

চুমকি রানী বেলকুচি উপজেলার খাস সোনামুখী গ্রামের ব্যবসায়ী বাদল কুমার ভৌমিকের মেয়ে।

আর সিএমপিতে চাকরিরত নিরোধ কুমার ভাঙ্গাবাড়ি গ্রামের নীল মনি সরকারের ছেলে। ঘটনার পর থেকে তিনি পলাতক।

নিহতের বাবা বাদল ভৌমিক অভিযোগ করেন, চার বছর আগে পুলিশের চাকরির জন্য ১০ লাখ টাকা যৌতুকের শর্তে নিরোধের সঙ্গে চুমকির বিয়ে ঠিক হয়।

চাকরি পাওয়ার পর নিরোধ চুমকিকে বিয়ে করবে না বলে সাফ জানিয়ে দেয়। পরে স্থানীয়দের মধ্যস্ততায় আরও কয়েক লাখ টাকা যৌতুকের বিনিময়ে নিরোধ-চুমকির বিয়ে হয়।

বিয়ের পর থেকে তাদের মধ্যে বিভিন্ন বিষয়ে পারিবারিক দ্বন্দ্ব দেখা দেয়। এরই জের ধরে রোববার নিরোধ বাড়িতে আসে। রাতের কোনো এক সময় তাদের মধ্যে ঝগড়া হলে চুমকিকে মারপিট ও শ্বাসরোধ করে হত্যা করে গলায় শাড়ি পেঁচিয়ে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে আত্মহত্যা বলে প্রচার করেন নিরোধ।

এনায়েতপুর থানার ওসি রাশেদুল ইসলাম বিশ্বাস জানান, লাশ সিরাজগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে এটি হত্যা না আত্মহত্যা তা ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

ঘটনার পর থেকে পুলিশ কনস্টেবল নিরোধ পলাতক। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা হয়েছে বলেও জানান ওসি।

Show More

আরো সংবাদ...

Back to top button